অবশেষে খুনের মামলায় গ্রেফতার পদকজয়ী কুস্তিগীর সুশীল কুমার

পালিয়ে আর বাঁচা হল না দু’বারের অলিম্পিক্সে পদকজয়ী কুস্তিগীর সুশীল কুমারের। গত ৫ মে ছত্রসাল স্টেডিয়ামে খুন হন বছর তেইশের তরুণ কুস্তিগীর সাগর রানা। এই খুনে অভিযুক্ত সুশীল কুমার। সংবাদ সংস্থা আইএএনএস সূত্রে জানা যাচ্ছে, কেবল সুশীল কুমারই নন,  দিল্লি পুলিশ গ্রেফতার করেছে এই মামলার আরেক অভিযুক্ত অজয় কুমারকেও। গত কয়েক দিন ধরেই বিভিন্ন রাজ্যে পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন তাঁরা। অবশেষে শনিবার রাতে পুলিশের জালে ধরা পড়লেন দুজন।


ছত্রসাল স্টেডিয়ামে খুনের ঘটনার পর থেকেই অলিম্পিক্সে ভারতের হয়ে দু’বার পদকজয়ী কুস্তিগীর সুশীল কুমারের দিকেই আঙ্গুল ওঠে। কিন্তু প্রথমে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করেন। পরে অবশ্য তাঁর বিরুদ্ধে প্রমান মিলতেই বেপাত্তা হয়ে যান। প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ানও সুশীল কুমারের দিকেই অভিযোগ ওঠে। ঠিক কী হয়েছিল সেদিন? জানা যাচ্ছে, স্টেডিয়ামের পার্কিং লটে সুশীল কুমার এবং তাঁর কয়েক জন সঙ্গীর সঙ্গে ঝামেলা হয় সাগর রানার। পরে ২৩ বছরের সাগর রানার মৃতদেহ উদ্ধার হয়। অভিযোগ সুশীল কুমার এবং তাঁর ৮ সঙ্গী মিলে পিটিয়ে মারে সাগর রানাকে। পরে তদন্তে নেমে দিল্লি পুলিশ গ্রেফতার করে সুশীলের অন্যতম সঙ্গী প্রিন্স দালালকে। তাঁর মোবাইলে একটি ভিডিও ফুটেজ পাওয়া যায়। সেখানে পরিস্কার দেখা গিয়েছে সুশীল ও তাঁর সঙ্গীরা মারধোর করছেন সাগরকে।