বাজেট অধিবেশনে কি সংঘাত মমতা, ধনখরের ?

আর কিছুক্ষনের মধ্যে তৃণমূল সরকারের তৃতীয় দফায় ক্ষমতায় আসার প্রথম বাজেট | বাজেটের নিয়ম শুরুর আগেরদিন রাজ্যপাল বাজেট ভাষণ দেন | এমনটাই হয়ে থাকে লোকসভাতেও, যেখানে বাজেট ভাষণ দেন রাষ্ট্রপতি | সাধারণত রাষ্ট্রপতি বা রাজ্যপাল তাঁদের সরকারের লিখিত ভাষণই দিয়ে থাকেন | এর অন্যথা হয় না | কিন্তু জগদীপ ধনকর সব নিয়মের বাইরে | তিনি তাঁর নিজের নিয়মে চলতে ভালোবাসেন এবং তাই নিয়ে দীর্ঘদিন সংঘাত চলেছে মমতা সরকারের সাথে |

শুক্রবার দুপুরে কি করেন সেটাই দেখার | গুঞ্জনে রাজ্যপাল, রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে ভাষণ পাঠ করে পারেন | সেই ক্ষেত্রে প্রস্তুতি নিয়েছে তৃণমূল বিধায়করা | রাজভবন থেকে দাবি করা হয়েছিল বিভিন্ন চ্যানেলে যেন এই বাজেট ভাষণ লাইভ টেলিকাস্ট করা হয় | সরকার পত্রপাঠ তা বাতিল করেছে কারণ দর্শানো হয়েছে করোনা আবহে সাংবাদিদের বা বৈদ্যুতিন মাধ্যমকে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না | সাংবাদিক শেষ পর্যন্ত আসলেও টিভি ক্যামেরা নৈব নৈব্য চ | রাজ্যের মানুষ অপেক্ষায়, কি হয় | এরই মধ্যে রাজ্যপালের কিছু অবাঞ্ছিত ছবি ও খবর তৃণমূল প্রকাশ করেছে, তাতে ধনকরের প্রতিক্রিয়া কি হয় তাই দেখার | 

রাজ্যপালের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব !

কলকাতাঃ রাজ্যপালের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনতে পারে শাসক দল। বিধানসভায় জগদীশ ধনখড়ের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের আবেদন করতে পারে তৃণমূল বিধায়করা।

বিস্তারিত আসছে --

শুক্রবার থেকে শুরু বিধানসভা

আগামীকাল অর্থাৎ শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে বিধানসভা | অবশ্যই করোনা বিধি মেনেই | ইতিমধ্যে অধিকাংশ বিধায়কই শপথ বাক্য পাঠ করেছেন | তবে যতই বিধানসভা শুরু হোক না কেন, বাতাবরণ যে উত্তপ্ত হবে তা বলাই বাহুল্য | প্রথমত নতুন বিরোধী দল ভোট উত্তর কালের অবস্থান নিয়ে উত্তাপ সৃষ্টি করবে | পাশাপাশি শুভেন্দু অধিকারী বক্তব্য রাখতে উঠলেই প্রবল বাধা দেওয়া হবে বলেই ধারণা |

এরই মধ্যে জল্পনা চলছে পুরো ও পৌরসভা ভোট কবে হবে | শতাধিক পৌরসভার ভোট করোনার কারণে থেমে রয়েছে | মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন যত দ্রুত সম্ভব উপনির্বাচনগুলি হোক | ৬/ ৭ টি কেন্দ্রে উপনির্বাচন বাকি রয়েছে | ভবানীপুর কেন্দ্রের প্রার্থী মুখ্যমন্ত্রী নিজেই |  

মুকুলই পিএসির চেয়ারম্যান

ক্ষিপ্ত বিজেপির রাজ্য শাখা কারণ তাঁদের আপত্তি সত্বেও মুকুল রায়কে পাবলিক একাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান করা হয়েছে | বিধানসভার এই বিষয়ে কোনও নির্দিষ্ট আইন নেই | স্পিকার যে কোনও বিধায়ককে চেয়ারম্যান করতে পারেন তবে সাধারণত বিরোধী দলের বিধ্যাককেই এই দায়িত্ব দেওয়া হয়ে থাকে |

মুকুল রায় সম্প্রতি তৃণমূলে ফিরে এসেছেন কিন্তু তিনি বিধানসভায় তিনি এখনও বিজেপির বিধায়ক | এই বিষয়ে আজ স্পিকারের সঙ্গে দেখা করেন বিজেপির বিধানসভার বিরোধী নেতা শুভেন্দু অধিকারী | তিনি মুকুল রায়ের বিষয়ে আপত্তি তুলেছেন বলে খবর |