উত্তরের খোঁজে ধনকার

সোমবার উত্তরবঙ্গে চললেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকার | এক সপ্তাহের সফরে প্রথমে যাবেন দার্জিলিং, কয়েকদিন থাকার পর যাবেন ডুয়ার্স তরাইয়ের বিভিন্ন প্রান্তে | ঠিক কেন যাচ্ছেন তার হদিশ নেই, তবে বাগডোগরা বিমানবন্দরে নেমে সাংবাদিক সম্মেলন করবেন বলে খবর | সম্প্রতি তিনি দিল্লি গিয়েছিলেন | সেখানে রাষ্ট্রপতি সহ বিভিন্ন মন্ত্রী, মানবিধাকার কমিশনের  সাথেও দেখা করেন | দেখা করেন কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরীর সাথেও | সূত্র মারফত খবর, মমতা সরকারের বিরুদ্ধে নালিশ জানাতেই নাকি তাঁর দিল্লি সফর | 

অনেকের ধারণা এবার তাঁর বিদায়ের সময় হয়েছে | দার্জিলিং সফর কিন্তু তা বলে না | তিনি ওই অঞ্চলগুলিতে ঘুড়বেন যেখানে বিজেপি শক্তিশালী বলেই সংবাদ | প্রথম দিন থেকেই রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তিনি সক্রিয় | তাঁর এই অতি সক্রিয়তা যে যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামোর পক্ষে ক্ষতি হচ্ছে তা বিজেপি ব্যাতিত বাকি সব দলই অভিযোগ করেছেন | এবারে ফের কি করতে চলেছেন তা নিয়ে উঠেছে জল্পনা 

রাজ্যে একদিনে অ্যাক্টিভ আক্রান্ত মাত্র ৩ জন

কলকাতাঃ রাজ্যে কমছে দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যু। তা স্বত্বেও বাড়ছিল অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা। কিন্তু এদিন অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা কমে মাত্র ৩ জনে এসেছে। যা স্বস্তির খবর।

রবিবার সন্ধ্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে একদিনে আক্রান্ত ২ হাজার ১৮৪ জন। গতকাল ছিল ২ হাজার ৪৮৬ জন। পাশাপাশি ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫৩ জনের। গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ৫৫ জনে।

রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ লক্ষ ৮১ হাজার ৭০৭ জন। আর মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৭ হাজার ৩৪৮ জন। একদিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ১২৮ জন। মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪ লক্ষ ৪১ হাজার ৩৪৩ জন।  

তবে এদিন অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যাটা খুবই কম। গত ২৪ ঘন্টায় অ্যাক্টিভ আক্রান্ত মাত্র ৩ জন। গতকাল ছিল ৩২২ জন। সব মিলিয়ে মোট সংখ্যাটা ২৩ হাজার ছাড়িয়ে গেল। অর্থাত্ ২৩ হাজার ১৬ জনে।

বাংলায় একদিনে করোনা টেস্ট হয়েছে ৫২ হাজার ৯৯৭ টি। মোট টেস্টের সংখ্যা ১ কোটি ৩৬ লক্ষ ৮৪ হাজার ৮৬২ টি। এই মুহূর্তে ১২১ টি ল্যাবরেটরিতে করোনা টেস্ট হচ্ছে। তা আরও বাড়ানো হবে।

রাজ্যে বাড়ছে মাইক্রো কন্টেনমেন্ট জোন,কোন জেলায় কত

কলকাতাঃ পশ্চিমবঙ্গে ফের বাড়ল মাইক্রো কন্টেনমেন্ট জোন, এই মুহূর্তে সংখ্যাটা প্রায় ৮০। রাজ্য সরকারের তথ্য অনুযায়ী, সবচেয়ে বেশি কন্টেনমেন্ট জোন-র সংখ্যা পূর্ব বর্ধমান জেলায়। কম জলপাইগুড়িতে।

কোন জেলায় কত জানুন-

হাওড়া জেলায় ১৮ টি।
উত্তর ২৪ পরগণায় ১৭ টি।
পূর্ব বর্ধমান জেলায় ২২ টি।
জলপাইগুড়িতে মাত্র ১ টি।
বাঁকুড়া জেলায় ১১ টি।
ঝাড়গ্রাম জেলায় ৯ টি।

যে সব এলাকাকে মাইক্রো কন্টেনমেন্ট জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে,সেখানে প্রশাসন রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে। টাঙানো হয়েছে নো এন্ট্রি বোর্ড। কন্টেনমেন্ট জোনের সংক্রমিতদের বাড়ি বাড়ি খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে প্রশাসন।

কন্টেনমেন্ট জোনের অন্যান্য বাসিন্দাদের চলাফেরায় কোনও নিষেধাজ্ঞা না থাকলেও বহিরাগতদের প্রবেশ আটকাতে মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ।

করোনার দ্বিতীয় পর্বে যাতে সংক্রমণের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী না হয় তার জন্য সক্রিয় প্রশাসন।

রাজ্যে অ্যাক্টিভ আক্রান্ত বেড়ে ২৩ হাজার

কলকাতাঃ রাজ্যে কমছে দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যু। তা স্বত্বেও বাড়ছে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা।  

শনিবার সন্ধ্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে একদিনে আক্রান্ত ২ হাজার ৪৮৬ জন। গতকাল ছিল ২ হাজার ৭৮৮ জন। পাশাপাশি ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫৫ জনের। গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ৫৮ জনে।

রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ লক্ষ ৭৯ হাজার ৫২৩ জন। আর মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৭ হাজার ২৯৫ জন। একদিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ১০৯ জন। মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪ লক্ষ ৩৯ হাজার ১১৫ জন।  

এদিকে ফের বাড়তে শুরু করেছে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় অ্যাক্টিভ আক্রান্ত ৩২২ জন। তারফলে মোট সংখ্যাটা ২৩ হাজার ছাড়িয়ে গেল। অর্থাত্ ২৩ হাজার ১৩ জনে।

বাংলায় একদিনে করোনা টেস্ট হয়েছে ৫৩ হাজার ১১৭ টি। মোট টেস্টের সংখ্যা ১ কোটি ৩৬ লক্ষ ৩১ হাজার ৮৬৫ টি। এই মুহূর্তে ১২১ টি ল্যাবরেটরিতে করোনা টেস্ট হচ্ছে। তা আরও বাড়ানো হবে।

রাজ্যে কমছে দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যু,বাড়ছে সুস্থতার হার

কলকাতাঃ রাজ্যে কমছে দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যু। বাড়ছে সুস্থতার হার। অন্যদিকে শুধু কলকাতায় আক্রান্ত ২৮৭ জন। একদিনে শহরে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের।

শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে একদিনে আক্রান্ত ২ হাজার ৭৮৮ জন। গতকাল ছিল ৩ হাজার ১৮ জন। পাশাপাশি ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫৮ জনের। গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ৬৪ জনে।

রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ লক্ষ ৭৭ হাজার ৩৭ জন। আর মোট মৃতের সংখ্যা ১৭ হাজার ২৪০ জন। একদিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ১১২ জন। মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪ লক্ষ ৩৭ হাজার ১০৬ জন।  

এদিকে ফের বাড়তে শুরু করেছে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় অ্যাক্টিভ আক্রান্ত ৬১৮ জন। তারফলে মোট সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়াল ২২ হাজার ৬৯১ জনে।

বাংলায় একদিনে করোনা টেস্ট হয়েছে ৫৫ হাজার ৩৬৭ টি। মোট টেস্টের সংখ্যা ১ কোটি ৩৫ লক্ষ ৭৮ হাজার ৭৪৮ টি। এই মুহূর্তে ১২১ টি ল্যাবরেটরিতে করোনা টেস্ট হচ্ছে। তা আরও বাড়ানো হবে।

big breakingঃ কীভাবে মূল্যায়ন, ঘোষণা করল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ

কলকাতাঃ নবম এবং দশম শ্রেণির ফলের ভিত্তিতে মাধ্যমিকের মূল্যায়ন করা হবে। ৫০-৫০ ফর্মুলায় মাধ্যমিক মার্কশিট ও ৬০-৪০ ফর্মুলায় উচ্চ মাধ্যমিকের মার্কশিট দেওয়া হবে। কিছুক্ষণ আগে ফর্মূলা ঘোষণা করল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

বিস্তারিত আসল

মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজের আবেদন শুভেন্দুর

ঠিক এক সপ্তাহ আগে আজকের দিনে মুকুল রায় বিজেপি ত্যাগ করে তৃণমূলে ফিরে আসেন | কয়েকদিন ধরে জল্পনা চলছিল তাঁর বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেয় বিজেপি | এবারে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়কে পত্র দিয়ে মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজ করার আবেদন জানালেন | শুভেন্দুর সাথে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদের এই বিষয়ে কথাও হয়েছে বলা জানা গিয়েছে | কিন্তু পদ্ধতিগত ভাবে এই ভাবেই কি সদস্যপদ  খারিজ করা যায় উঠেছে প্রশ্ন | তৃণমূলের নেতাদের পরম নিশ্চিন্ত দেখা গেল |

অন্যদিকে বিজেপির মাথাব্যথার কারণ এই ভাবে দল ভাঙার চেষ্টা চালাবে তৃণমূল বলে ধারণা | তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ জানালেন, আগে শুভেন্দু তাঁর বাবার বিষয়ে ভাবুক | প্রসঙ্গত শিশির অদিকারী তৃণমূলের সাংসদ হওয়া সত্বেও বিজেপির মঞ্চে উঠে প্রচার করেছেন | তৃণমূলও তাঁর সাংসদ পদ বাতিল করার ভাবনায় লোকসভার স্পিকারের সাথে কথা শুরু করেছে |  

রাজ্যে ফের বাড়ছে কন্টেনমেন্ট জোনের সংখ্যা

কলকাতাঃ করোনার প্রথম পর্বে সংক্রমণ রোধে রাজ্যে  কন্টেনমেন্ট জোনের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছিল। পরে ধীরে ধীরে তা কমিয়ে আনা হয়। এবার ফের তা বাড়ানো হচ্ছে বলে খবর।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, কৃষ্ণনগর ১, রানাঘাট ১ ও ২ ব্লক এবং চাকদহ ও কল্যাণী ব্লকের কয়েকটি গ্রামের কিছু এলাকাকে কন্টেনমেন্ট জোন হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে। কৃষ্ণনগর ১ ব্লকের দোগাছি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে রয়েছে দোগাছি, গোয়ালদহ, যাত্রাপুর গ্রামের কিছুটা অংশ।

এছাড়া রানাঘাট ২ ব্লকের দেবগ্রাম পঞ্চায়েতের গোপীনগরের একাংশ, রানাঘাট ১ ব্লকের হবিবপুর পঞ্চায়েতের মুসলিমপাড়া, কল্যাণী ব্লকের সগুনা পঞ্চায়েতের বসন্তপুর গ্রামের কিছু অংশে কন্টেনমেন্ট জোন করা হয়েছে। পাশাপাশি চাকদহ ব্লকের তাতলা ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের লালপুর, কমলপুর ও পুংলিয়া গ্রামের কিছুটা অংশকে আপাতত কন্টেনমেন্ট জোন হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে।

রাজ্যে ফের বাড়ছে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা

কলকাতাঃ রাজ্যে দৈনিক করোনা সংক্রমণ চার হাজারের নিচে নেমে এলেও,বাড়ছে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা।এছাড়া সংক্রমণের তুলনায় সুস্থতার সংখ্যাও কম।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে একদিনে আক্রান্ত ৩ হাজার ১৮ জন। গতকাল ছিল ৩ হাজার ১৮৭ জন। পাশাপাশি ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৬৪ জনের।

রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ লক্ষ ৭৪ হাজার ২৪৯ জন। আর মোট মৃতের সংখ্যা ১৭ হাজার ১৮২ জন। একদিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ৩৩ জন। মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪ লক্ষ ৩৪ হাজার ৯৯৪ জন।  
এদিকে ফের বাড়তে শুরু করেছে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় অ্যাক্টিভ আক্রান্ত ৯২১ জন। তারফলে মোট সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়াল ২২ হাজার ৭৩ জনে। গতকাল সংখ্যাটা ছিল ২১ হাজার ১৫২ জন।

বাংলায় একদিনে করোনা টেস্ট হয়েছে ৫৫ হাজার ৬৭১ টি। মোট টেস্টের সংখ্যা ১ কোটি ৩৫ লক্ষ ২৩ হাজার ৩৮১ টি। এই মুহূর্তে ১২১ টি ল্যাবরেটরিতে করোনা টেস্ট হচ্ছে। তা আরও বাড়ানো হবে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বাক্ষর জাল করে প্রতারণা,ধৃত ১

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বাক্ষর এবং সরকারি প্যাড জাল করে প্রতারণার অভিযোগ। গ্রেফতার এক যুবক।

অভিযোগ, বাঁকুড়া জেলার রাইপুরের বহু যুবক-যুবতীকে রাজ্য সরকারের গ্রুপ ডি পোস্টে চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতারণা করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বাক্ষর ও সরকারি প্যাড দেখিয়ে ওই যুবক-যুবতীর কাছ থেকে প্রচুর টাকা নেওয়া হয়েছে। পরে জানা যায় ওই নথিপত্র জাল।

ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় এক যুবককে। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতের নাম কমলকান্ত সিং(২৬)। বাড়ি বেলপাহাড়ির ভুলাভেদা গ্রাম পঞ্চায়েতের সিন্দুরিয়া গ্রামে। বাড়িতে না থেকে ওই যুবক থাকতেন ঝাড়গ্রামে।

কতদিন চলবে বৃষ্টি, জানাল আবহাওয়া দফতর

এক নাগারে চলছে বৃষ্টি। তাতে জলমগ্ন কলকাতা। ভারী বৃষ্টিতে জল জমেছে বহু জায়গায়। ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন মানুষ। এই পরিস্থিতিতে আরও কয়েক দিন বৃষ্টি চলবে বলে জানাল আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে ঘূর্ণাবর্তের পরিস্থিতি রয়েছে। তারফলে আগামী শনিবার পর্যন্ত রাজ্যের বিভিন্ন অংশে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কতা জারি করা হয়েছে। পাশাপাশি নীচু এলাকায় জল জমার সম্ভাবনা রয়েছে।এছাড়া বাড়বে নদীর জলস্তর।

রাতভর বৃষ্টির জেরে  জলমগ্ন হয়ে পড়ে কলকাতা। ভাসছে আর্মহার্স্ট স্ট্রিট, কলেজ স্ট্রিট, বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিট, ঠনঠনিয়া, খিদিরপুর, যাদবপুর, ঢাকুরিয়া, বাইপাস লাগোয়া আনন্দপুর, পঞ্চান্নগ্রাম, মুক্তারামবাবু স্ট্রিট, সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ, গিরিশ পার্ক সহ একাধিক অঞ্চল। জল ঢুকে পড়েছে মন্দির ও হাসপাতালে।

কীভাবে মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিকের মূল্যায়ন,ঘোষণা কাল

করোনাকালে পরীক্ষা হবে না। তবে কীভাবে মূল্যায়ন করা হবে,তা জানা যায়নি। এই পরিস্থিতিতে আজ নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানালেন,মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিকের মূল্যায়ন নিয়ে আগামীকাল ঘোষণা হবে। পাশাপাশি জানিয়েছেন, জুলাই মাসের মধ্যে ফল ঘোষণা করা হবে।

কৃষকদের জন্য নয়া ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কৃষকবন্ধু প্রকল্পের ভাতা বৃদ্ধি করা হল। ৫ হাজার টাকা থেকে বেড়ে হল ১০ হাজার টাকা। ন্যূনতম ৪ হাজার টাকা পাবেন কৃষকরা। কৃষকদের মৃত্যুতে ২ লাখ টাকা দেওয়া হবে।

আরও ২০ লাখ কৃষক কিষান ক্রেডিট কার্ড দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই ৭০ লাখ কিষান ক্রেডিট কার্ড দেওয়া হয়েছে। ৫০ হাজার একক পতিত জমি চাষযোগ্য করা হয়েছে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী।

এবারে শুভেন্দু বনাম দিলীপ

বাংলাতে রাজনীতি থাকবে আর গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব থাকবে না এমনটা হয় নাকি ? কয়েক বছর বিজেপি দলের অভন্ত্যরে একটি কথাই চালু ছিল মুকুলপন্থী বনাম দিলীপ ঘোষ পন্থী | শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর দিলীপ ঘনিষ্টরা খুশি হয়েছিলেন বলে শোনা যায় কিন্তু আজ আর মুকুল দলে নেই এবং শুভেন্দুরও কেন্দ্রীয় স্তরে মর্যাদা বাড়ছে | এর ফলে দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্টরা যে খুশি নয় তা বোঝাই যাচ্ছে |

জানা গেলো সম্প্রতি শুভেন্দু যে দিল্লি গিয়েছিলেন তা জানতেন না দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ | তিনি মিডিয়ার কাছে তা জানিয়েছিলেন | এর সাথে শুভেন্দু যে রাজভবনে দলের বিধায়কদের নিয়ে যান তাও নাকি অজানা দিলীপের | দলের অন্দরের গুঞ্জন দিলীপ ঘোষকে না জানিয়েই শুভেন্দু নানান সংগঠনের কাজ করছেন | কিন্তু শুভেন্দুর ঘনিষ্টরা জানাচ্ছেন যে দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক( সং ) আমিতাভ চক্রবর্তী নাকি সব  জানেন কিন্তু প্রশ্ন উঠছে দলের সভাপতি জানবেন না কেন ?  

ফেরা মুশকিল দলবদলুদের

মুকুল রায়ের বিষয়টি আলাদা | তাঁর প্রতি একটা সেন্টিমেন্ট তৃণমূল তথা নেত্রীর ছিলই যে, মুকুল দলের বিরুদ্ধে কটূক্তি করেন নি | অন্যদিকে ছোট বড় কথা অনেকেই বলেছেন , সেখানেই শেষ নয় নাড্ডা বা অমিত শাহের মঞ্চে অনেকেই চরম সমালোচনা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের | কাজেই তাদের দলে না নেওয়ার পক্ষে আবেদন উঠেছে সমর্থকদের কাছ থেকে |
মঙ্গলবার বেসুরো হয়েছেন তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া সাংসদ সুনীল মন্ডল | আজ তাঁর বিষয়ে কথা উঠলে, সাংসদ এবং দলের প্রবীণ নেতা সৌগত রায় জানান, তিনি তো দলেই নেই এবং তাঁর বিরুদ্ধে লোকসভার স্পিকারের কাছে নালিশ জানানো হয়েছে | আপাতত সব্যসাচী দত্ত ছাড়া কারুর বিষয়ে ভাবনা নেই বলেই সংবাদ | 

হারের লকেট পেল শূন্য

পশ্চিমবঙ্গে যে কটি লোকসভা আসনে বিজেপি জিতেছিল তার প্রতিফলন বিধানসভায় পরে নি | তবে আলিপুরদুয়ারে জন বার্লা তাঁর লোকসভার অধীনে থাকা সবকটি আসন জিততে পেরেছে | ভালো ফল করতে পেরেছেন শান্তনু ঠাকুর, নিশীথ প্রামানিক ইত্যাদি | কিন্তু সবচাইতে খারাপ ফল করেছেন লকেট চট্টোপাধ্যায় | তাঁর লোকসভার অধীনে থাকা সবকটি আসনে পরাজিত হয়েছে বিজেপি, যেখানে সবকটি আসনে জয় এসেছিলো লোকসভার নিরিখে |


কেন্দ্র তাদের মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণ করতে চলেছে | বাংলা থেকে নাম উঠেছে বেশ কয়েকজনের | যথা দিলীপ ঘোষ | যদিও দিলীপবাবুর লোকসভা কেন্দ্রে মাত্র একটিই বিধানসভা জিতেছে বিজেপি কিন্তু তাঁর বিষয় আলাদা | নাম এসেছে নিশীথ, শান্তনুর বলে গুঞ্জন | একটা সময় কেন্দ্রীয় নেতাদের ঘনিষ্ট লকেটের নামও ঘোরাফেরা করছিলো কিন্তু সাম্প্রতিক ভোটে তিনি পরাজিত এবং কাউকেই জেতাতে পারেন নি ফলে শোনা যাচ্ছে কার্পেটের তলায় চলে গেলো তাঁর নাম |