মায়ানমারের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করল বাইডেন সরকার

সেনাবাহিনীর হাতে দেশের শাসনভার চলে যাওয়ার পর মায়ানমারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আমেরিকার জো বাইডেন প্রশাসন। গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত একটি সরকারকে সরিয়ে ক্ষমতাদখল করেছে সেনাবাহিনী। হোয়াইট হাউসে বাইডেন বুধবার বলেন, সেনা অভ্যুত্থানের নেতাদের বিরুদ্ধে একাধিক নিষেধাজ্ঞা জারি করা হচ্ছে। আমেরিকায় মায়ানমারের জন্য রাখা ১ কোটি ডলারের তহবিলের ওপর জেনারেলদের কোনও অধিকার থাকবে না। সেদেশের সেনাবাহিনীর নেতাদের এবং তাদের পরিবারের সব ব্যবসা নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। এক সপ্তাহের মধ্যেই প্রথম দফার চিহ্নিতকরণের কাজ শেষ করা হবে। তাদের সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হবে। তবে সাধারণ নাগরিকদের স্বাস্থ্য, নাগরিক অধিকারের জন্য সরাসরি অর্থ জোগাবে মার্কিন প্রশাসন।

বাইডেন বলেন, সেনা অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে মায়ানমারের সাধারণ মানুষ বিক্ষোভে ফেটে পড়েছেন। তাদের কণ্ঠস্বর শোনা যাচ্ছে। গোটা বিশ্ব সেদিকে তাকিয়ে আছে। অবিলম্বে সেনাশাসন প্রত্যাহার করে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রতিনিধিদের হাতে ক্ষমতা তুলে দেওয়া দাবি জানিয়েছেন বাইডেন। মার্কিন মদতেই গত সপ্তাহে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সেনা অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে কড়া প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে। বাইডেন অবিলম্বে আং সান সু চি সহ ধৃত রাজনৈতিক নেতাদের মুক্তিরও দাবি করেছেন।

পারস্পরিক সম্পর্ক নিয়ে ফোনে কথা মোদি-বাইডেনের

আমেরিকার নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে কথা হল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। সোমবার টুইট করে সে কথা নিজেই জানিয়েছেন মোদি। বলেন, আঞ্চলিক বিষয় ও পারস্পরিক আগ্রাধিকার নিয়ে কথা হয়েছে তাঁদের। প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এই প্রথম বাইডেনের সঙ্গে ফোনে কথা হল মোদির। দুই দেশের সম্পর্ক যে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ও পারস্পরিক কৌশলগত স্বার্থের মজবুত ভিত্তির উপর দাঁড়িয়ে রয়েছে, তা নিয়ে একমত হন দুজনেই। ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে আন্তর্জাতিক নিয়মকানুন মেনে কাজ করার ওপরেও জোর দেন তাঁরা। বিশ্ব পরিবেশ নিয়েও সহযোগিতার কথা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। 


ফের গান্ধিমূর্তি ভাঙচুর আমেরিকায়

জাতির জনকের মৃত্যুদিনেই সামনে এল তাঁর মূর্তি ভাঙার খবর। আমেরিকায় ফের গান্ধিমূর্তির ওপর হামলা হয়েছে। ক্যালিফোর্নিয়ার একটি পার্কে দুষ্কৃতীরা মূর্তি ভাঙচুর করে, বেদি থেকে মূর্তি উপড়ে দেয়। এই ঘটনার পর আমেরিকার সর্বত্র নিন্দার ঝড়। আমেরিকার বসবাসকারী ভারতীয়েরা ঘটনার বিশদ তদন্ত দাবি করেছেন। উত্তর ক্যালিফোর্নিয়ায় ডেভিসে সেন্ট্রাল পার্কে রয়েছে এই মূর্তি। এটি ভারত সরকারের দান। চারবছর আগে মূর্তিটি বসানো হয়। উচ্চতা ৬ ফুট, ওজন ২৯৪ কেজি। মূর্তিটির পায়ের গোড়ালি করতা দিয়ে কাটা হয়েছে। মুখের অর্ধেক ভেঙে দেওয়া হয়েছে। ২৭ জানুয়ারি ভোরে পার্কের এক কর্মচারী প্রথম ভাঙা মূর্তিটি দেখতে পান। মূর্তিটি সরিয়ে একটি নিরাপদ জায়গায় রাখা হয়েছে। কেন এই মূর্তি ভাঙা হল তা এখনও জানতে পারেনি পুলিশ। তেব স্থানীয় ভারতীয়দের মধ্যে অত্যন্ত শ্রদ্ধার একজনের মূর্তি ভাঙার ঘটনাতে তারা অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে দেখছে। এই মূর্তি বসানোর বিরোধিতা করেছিল অগ্রানাইজেশন ফর মাইনোরিটিজ ইন্ডিয়া নামে হিন্দুত্ববাদী একটি সংগঠন। ভোটাভুটি মূর্তি বসানোর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। তারপর থেকেই তারা মূর্তি সরানোর দাবি জানিয়ে আসছে।