থেফট ট্র‌্যাকিং ডিভাইস ধরিয়ে দিল বাইক চোরকে

কলকাতাঃ অত্যাধুনিক "থেফট ট্র‌্যাকিং ডিভাইস" তথা চোর ধরার প্রযুক্তিই ধরিয়ে দিল বাইক চোরকে। 

বাইক বা মোটরসাইকেল চুরি হওয়া স্বাভাবিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। একটু বেখেয়াল হলেই দামি গাড়িটি নিয়ে চম্পট দিচ্ছে চোর। কিন্তু চোরকে পাকড়াও করতে সাহায্য নিতে পারেন প্রযুক্তির। সেটা হল থেফট ট্র‌্যাকিং ডিভাইস। 

কী এই থেফট ট্র‌্যাকিং ডিভাইস ?

চোর বাইক চুরি করে পালাচ্ছে,তখন বাইকের মধ্যে বসানো 'থেফট ট্র‌্যাকিং ডিভাইস' অর্থাৎ চোর ধরার প্রযুক্তির কল্যাণে মেসেজ চলে যাবে বাইকের মালিকের কাছে। ফলে আপনি তা জানতে পারলেন আপনার সাদের বাইকটি চুরি হয়ে গিয়েছে। চুরি হয়ে যাওয়া গাড়িটি খুঁজে বার করতে সাহায্য করবে করে এই ডিভাইস। 

আরও পড়ুনঃ খোদ কলকাতায় ভুয়ো আইপিএস

এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে কলকাতার বুকে। কলকাতা পুলিস তাদের সোশ্যাল সাইটে লিখেছেন, বেলগাছিয়া থেকে কালো একটি বাইকট চুরি করে পালাচ্ছিল এক ব্যক্তি। বাইকের মধ্যে বসানো 'থেফট ট্র‌্যাকিং ডিভাইস' অর্থাৎ চোর ধরার প্রযুক্তির কল্যাণে মেসেজ চলে যায় বাইকের মালিক রোহিত শ-এর কাছে, এবং ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন তিনি। চোর চম্পট দিচ্ছে দেখে তাড়া করেন রোহিতবাবুর ভাই। 

তখন বেলগাছিয়া ক্রসিংয়ের কাছে ডিউটিতে ছিলেন শ্যামবাজার ট্রাফিক গার্ডের সার্জেন্ট সুরজিৎ পোড়েল। দুটি বাইককে ছুটতে  দেখে সুরজিৎবাবু নিজের বাইকে চড়ে দুজনকে ধাওয়া করেন।  অবশেষে কলকাতা স্টেশনের কাছে গজনভি ব্রিজের কাছে এসে চোরকে ধরে ফেলেন ওই ট্রাফিক সার্জেন্ট।