সিবিআই আইনজীবীর সাথে কেন সাক্ষাৎ শুভেন্দুর?

এই মুহূর্তে নরেন্দ্র মোদি বা অমিত শাহের প্রিয়পাত্র শুভেন্দু অধিকারী | প্রায় প্রায় তিনি যাচ্ছেন তাঁদের সাথে যোগাযোগ করতে এবং মোদি থেকে নাড্ডা সকলেই সময় দিচ্ছেন শুভেন্দুকে | এবারেও কয়েকদিন ধরে দিল্লিতে রইলেন শুভেন্দু এবং শুক্রবারের বাজেট অধিবেশনে থাকার জন্য ফিরে এসেছেন কলকাতায় | সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, তৃণমূলের উপর চাপ তৈরী করার বুদ্ধিই নিতে বারবার দিল্লিতে আগমন শুভেন্দুর |

 দলের উচ্চ নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ থাকার মধ্যে প্রশ্ন থাকতে পারে না কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে শুভেন্দু কেন সিবিআই এর প্রধান আইনজীবীর সাথে দেখা করলেন | এই এজেন্সির সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহেতা এখন ব্যস্ত পশ্চিমবঙ্গের নারদ কান্ড নিয়ে | ইতিমধ্যে জেলে গিয়েছেন ববি হাকিম সহ ৪ হেবি ওয়েট নেতা |

এই মামলায় নাম রয়েছে শুভেন্দু অধিকারীরও, তাঁকে সরাসারি টাকা নিতে দেখা গিয়েছে ( যদিও CN ওই ছবি যাচাই করে নি) | সূত্র বলছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাথে দেখা করে শুভেন্দু এই বিষয়ে কথা বলেছেন এবং অমিত শাহের সাথে কথা বলার পরই তিনি তুষার মেহেতার সাথে দেখা করেন | এই বিষয়ে অবশ্য কোনও তথ্য নেই কিন্তু প্রশ্ন আছে |তদন্তে থাকা সরকারি আইনজীবীর সাথে অভিযোগে নাম থাকা সন্দেহভাজন  কেউ কি দেখা করতে পারে ?

কসবা কান্ডঃ কেন্দ্রীয় সংস্থার তদন্ত চেয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধনকে চিঠি শুভে

ভুয়ো ভ্যাকসিন কান্ডে তোলপাড় রাজ্য। তার মধ্যেই এই কাণ্ডে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডঃ হর্ষ বর্ধনকে চিঠি লিখলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়ে এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত চেয়ে এই চিঠি লিখলেন তিনি।  অন্যদিকে ভ্যাকসিন কাণ্ডে ১০ সদস্যের বিশেষ তদন্তকারী দল বা সিট গঠন করেছে কলকাতা পুলিশ।

শুভেন্দুর দাবি, অসংখ্য মানুষ কসবার ওই ভ্যাকসিন কেন্দ্র থেকে করোনার টিকা নিয়েছেন। আগামী দিনে এই ঘটনার জন্য তাঁদের যদি কোনও ক্ষতি হয়, তবে তার দায় কে নেবে?

জানা গিয়েছে, ভুয়ো টিকা নেওয়ার ৪ দিনের মাথায় অসুস্থ অভিনেত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। শনিবার ভোর থেকেই তার সমস্যা শুরু হয়। আপাতত বাড়িতেই চিকিৎসা চলছে মিমির।

এদিকে, ভুয়ো ভ্যাকসিন ক্যাম্পের আয়োজক ধৃত দেবাঞ্জন দেবের বিরুদ্ধে অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা রুজুর জন্য কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজের আবেদন শুভেন্দুর

ঠিক এক সপ্তাহ আগে আজকের দিনে মুকুল রায় বিজেপি ত্যাগ করে তৃণমূলে ফিরে আসেন | কয়েকদিন ধরে জল্পনা চলছিল তাঁর বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেয় বিজেপি | এবারে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়কে পত্র দিয়ে মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজ করার আবেদন জানালেন | শুভেন্দুর সাথে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদের এই বিষয়ে কথাও হয়েছে বলা জানা গিয়েছে | কিন্তু পদ্ধতিগত ভাবে এই ভাবেই কি সদস্যপদ  খারিজ করা যায় উঠেছে প্রশ্ন | তৃণমূলের নেতাদের পরম নিশ্চিন্ত দেখা গেল |

অন্যদিকে বিজেপির মাথাব্যথার কারণ এই ভাবে দল ভাঙার চেষ্টা চালাবে তৃণমূল বলে ধারণা | তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ জানালেন, আগে শুভেন্দু তাঁর বাবার বিষয়ে ভাবুক | প্রসঙ্গত শিশির অদিকারী তৃণমূলের সাংসদ হওয়া সত্বেও বিজেপির মঞ্চে উঠে প্রচার করেছেন | তৃণমূলও তাঁর সাংসদ পদ বাতিল করার ভাবনায় লোকসভার স্পিকারের সাথে কথা শুরু করেছে |  

এবারে শুভেন্দু বনাম দিলীপ

বাংলাতে রাজনীতি থাকবে আর গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব থাকবে না এমনটা হয় নাকি ? কয়েক বছর বিজেপি দলের অভন্ত্যরে একটি কথাই চালু ছিল মুকুলপন্থী বনাম দিলীপ ঘোষ পন্থী | শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর দিলীপ ঘনিষ্টরা খুশি হয়েছিলেন বলে শোনা যায় কিন্তু আজ আর মুকুল দলে নেই এবং শুভেন্দুরও কেন্দ্রীয় স্তরে মর্যাদা বাড়ছে | এর ফলে দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্টরা যে খুশি নয় তা বোঝাই যাচ্ছে |

জানা গেলো সম্প্রতি শুভেন্দু যে দিল্লি গিয়েছিলেন তা জানতেন না দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ | তিনি মিডিয়ার কাছে তা জানিয়েছিলেন | এর সাথে শুভেন্দু যে রাজভবনে দলের বিধায়কদের নিয়ে যান তাও নাকি অজানা দিলীপের | দলের অন্দরের গুঞ্জন দিলীপ ঘোষকে না জানিয়েই শুভেন্দু নানান সংগঠনের কাজ করছেন | কিন্তু শুভেন্দুর ঘনিষ্টরা জানাচ্ছেন যে দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক( সং ) আমিতাভ চক্রবর্তী নাকি সব  জানেন কিন্তু প্রশ্ন উঠছে দলের সভাপতি জানবেন না কেন ?  

শুভেন্দু দিল্লিতে কেন ?

কলকাতাঃ রাজ্যে যেখানে বিজেপির সভাপতি বৈঠক ডাকছেন সেখানে বিধানসভার বিরোধী নেতা বৈঠকে না থেকে দিল্লিতে কেন? এক সাক্ষাৎকারে শুভেন্দু জানালেন, বিরোধী নেতা হিসাবে তাঁর দলের শীর্ষ নেতাদের সাথে কথা বা দেখা করা উচিত, তাই তিনি দিল্লিতে | কিন্তু শুধুই কি দেখা করতে যাওয়া? শুভেন্দু দেখা করলেন, অমিত শাহ, নাড্ডা এবং শিবপ্রকাশের সঙ্গে |

সূত্র বলছে, তিনি পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান অবস্থা নিয়ে কথা বলতেই শুধু যান নি, নিজের পুলিশি ঝঞ্ঝাট নিয়েও নালিশ জানাতে গিয়েছেন অন্তত এমন ধারণা তৃণমূলের | তৃণমূলের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ, জানালেন, সিবিআই থেকে নানান সংকটে আছেন শুভেন্দু | এবারে দেখার বিষয়ে সত্যিটা কি|