Terrorist: ভারতে তুলো বোঝাই ট্রেনে হামলার ছক পাকিস্তান জঙ্গিদের!

স্বাধীনতার পর থেকেই ভারতের বিরুদ্ধে ছায়াযুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান। এবার ভারতে ‘অর্থনৈতিক সন্ত্রাস’ চালানোর ছক কষছে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই (ISI)। এমনটাই সূত্রের খবর। 

সম্প্রতি দিল্লি পুলিশের তৎপরতায় পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গি শাখার পর্দা ফাঁস হয়েছে। জঙ্গি মডিউল এর ৬ জঙ্গিকে  দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতদের মধ্যে পাকিস্তানে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি ছিল। 

ধৃত পাকিস্তানি মডিউলের ওই জঙ্গিদের জেরা করে প্রচুর বিস্ফোরক তথ্য পেয়েছেন তদন্তকারী অফিসাররা। গোয়েন্দা সূত্রে খবর, ভারতের অর্থনীতিতে আঘাত হানতে পারে পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই। তারা তুলো বোঝাই ট্রেন, বড় কারখানা, পণ্য রাখার গুদামগুলিকে টার্গেট করেছে বলে খবর। 

দিল্লি পুলিশের হাতে ধৃত জঙ্গিরা হল জিসান কামার,ওমর,জান মোহাম্মদ,লালা,আবু বক্কর ও মোঃ আলী জাভেদ। এদের মধ্যে জিসান কামার ও ওমর এর অস্ত্র বিস্ফোরক প্রশিক্ষণ হয়েছে পাকিস্তানে। ধৃত জঙ্গিদের কাছ থেকে মিলেছে বিস্ফোরক এবং অস্ত্র।

গোয়েন্দা সূত্র অনুসারে, জিসান ও ওমরকে ছোট বোটে (যে ভাবে মুম্বাই এ জঙ্গি কাসভরা প্রবেশ করেছিলো) নিয়ে যাওয়া হয় পাকিস্তান এর গদর বন্দরে। সেখান থেকে সিন্ধ প্রদেশে ISI এর নির্দেশে পাক সেনা বাহিনীর গোপন ঘাঁটিতে নিয়ে যাওয়া হয়। শুরু হয় প্রশিক্ষণ। মূলত পাক আর্মির লেফটেন্যান্ট গাজী,জব্বর ও হামজার নির্দেশে চলে এই প্রশিক্ষণ পর্ব। পরে প্রশিক্ষণ শেষে ISI এর নির্দেশে ও দাউদ ইব্রাহিমের ভাই আনিস এর তত্ত্বাবধানে ভারতে প্রবেশ করে জঙ্গি দলটি ।


Afghanistan:পাঞ্জশির দখলে তালিবান বাহিনীকে সরাসরি মদত দিচ্ছে পাকিস্তান-সূত্র

পাঞ্জশির: পর্দার আড়ালে থেকে নয়, এবার পাঞ্জশির দখল করতে তালিবান বাহিনীকে সরাসরি মদত দিচ্ছে পাকিস্তান।এমনটাই অভিযোগ। 

স্থানীয় সূত্র অনুসারে, পাকিস্তানের এসএসজি কমান্ডোদের নেতৃত্বে পাক বিমান পাঞ্জশির আকাশ সীমায় প্রবেশ করেছে। শুরু হয়েছে এয়ার strike। রবিবার সন্ধ্যের পর থেকেই পাক বাহিনীর মদতে পাঞ্জশির দখলে ঝাঁপিয়ে পরে তালিবান। সারা রাত ব্যাপক গোলাগুলি চলে ন্যাশনাল রেসিস্টেন্স ফোর্স ও তালিবানদের মধ্যে। লড়াই তীব্র হয় মূলত খায়ক পাসে,দাসে রাওয়াক অঞ্চলে। 

প্রথম পর্যায়ে লড়াইয়ে হেরে তালিবান বন্দুকবাজরা পালিয়ে যায় কপিসা প্রদেশে। এর পরই শুরু পাক বিমান বাহিনীর এয়ার strike। শেষ খবর অনুসারে আমিরুল্লা সালেহ ও মাসুদ আহমেদ পাঞ্জশিরেই রয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ পাহাড়ি এলাকা এখনও নর্দান অ্যালাইন্সের দখলে। তালিবানদের পাঞ্জশির দখলের দাবি ও সত্য নয় বলে জানিয়েছে নর্দান অ্যালাইন্স। 

অন্যদিকে আমিরুল্লা সালেহ পাঞ্জশির এর তথ্য সবিস্তারে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপুঞ্জকে। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে তালিবান শীর্ষ নেতা মোল্লা ব্রাদার রাষ্ট্রপুঞ্জে গিয়ে বৈঠক করেছেন। সূত্রের খবর তালিবানদের মনোভাব ও দক্ষতা নিয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জ এর যথেষ্ট সংশয় তৈরি হয়েছে। তাই রাষ্ট্রপুঞ্জ ও আন্তর্জাতিক দুনিয়ার বড় অংশের সরাসরি সমর্থন না আসায়,আফগানিস্তান এ সরকার গঠন প্রক্রিয়া আবার পিছিয়ে দিলো তালিবান শীর্ষ নেতৃত্ব। 


EXCLUSIVE:তালিবান কোন পথে কাশ্মীরে জেহাদি কার্য কলাপ বাড়াতে পারে, কি বলছে গোয়েন্দা রিপো

সত্যজিৎ মুখোপাধ্যায়ঃ আফগানিস্তান এর তালিবানিকরন এর পর এবার কি মধ্য এশিয়া,দক্ষিণ- পূর্ব এশীয়া,পশ্চিম এশিয়া এবং পশ্চিমি দেশগুলোতে বাড়তে চলেছে সন্ত্রাসবাদ এর ডাল-পালা। নিষিদ্ধ জেহাদি গোষ্ঠীগুলোর শিকড় কি ক্রমশ ছড়িয়ে পড়তে চলেছে বহ যত্নে সাজিয়ে তোলা গণতন্ত্রে বিশ্বাসী দেশগুলোতে। 

এই পরিস্থিতিতে কী হবে কাশ্মীর এর।  কাশ্মীর বা ভারতের সুরক্ষা কতটা অশনি সংকেত এর ওপর দাঁড়িয়ে আছে ? উত্তর খুঁজতে ব্যস্ত এ দেশের তাবর গোয়েন্দা সংস্থাগুলো। বিদেশ মন্ত্রক থেকে দেশে-বিদেশে ছড়িয়ে থাকা কূটনীতিবিদরা। তালিবান শীর্ষ নেতৃত্ব জানিয়েছে, তারা কাশ্মীর ইস্যুতে নাক গলাবে না। ভারতের প্রতি তাদের সম্পর্ক সহজ ও স্বাভাবিকই থাকবে। 

 কিন্তু গোয়েন্দা রিপোর্টগুলো অন্য ছবির জন্ম দিচ্ছে। ইতিমধ্যে তালিবান নেতৃত্ব খুলমকুল্লা ই পাকিস্তানকে কার্যত মোস্ট ফেভারিট কান্ট্রির তকমা দিয়ে দিয়েছে। রিপোর্ট অনুসারে অগস্ট মাসের ২৮ তারিখ নাগাদ পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত জঙ্গি গোষ্ঠী জয়েশ ই মুহাম্মদ এর শীর্ষ নেতা মওলানা মাসুদ আজহার আফগানিস্তানের কান্দাহার এ শীর্ষ তালিবান নেতা মোল্লা আব্দুল গনি ব্রাদার সঙ্গে দেখা করে দীর্ঘ আলোচনা করেন। 


সূত্র বলছে, কাশ্মীর এ ব্যাপক জঙ্গি কার্যকলাপ ও হত্যালীলা সংগঠিত করতে ই মাসুদ গিয়েছিল আফগানিস্তানে। অতীত বলছে, পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত জঙ্গি গোষ্ঠী জয়েস এর সুপ্রিমো মাসুদ এজাহার কে ১৯৯৯ সালে ভারতীয় বিমান IC 814 অপহরণ এর মাধ্যমেই ছিনিয়ে নিয়ে গিয়েছিল জঙ্গিরা। পূর্ণ মদত করেছিল তালিবানরা। তালিবান শীর্ষ নেতৃত্বের মুখে সু সম্পর্কের কথা বললেও intelligence report অন্য কথা বলছে। 

তাদের তথ্য বলছে, আপাতত তালিবান শীর্ষ নেতৃত্ব ভারত এর সঙ্গে সু সম্পর্ক ই রাখবে। কারণ আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে গেলে ভারতের মত বৃহৎ গণতান্ত্রিক দেশের সমর্থন অনেকটাই ক্যারেক্টার সার্টিফিকেট এর মত কাজ করবে। কিন্তু আসল ছবি রয়েছে লুকোনো। 

গোয়েন্দা রিপোর্ট বলছে, ইতিমধ্যে পাক মদদপুষ্ট জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর মূল নেটওয়ার্ক সিস্টেম পি ও কে (pak occupied kashmir ) থেকে আফগানিস্তান এর কান্দাহার ও নানগর হার প্রদেশে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। 


পাশাপাশি হাক্কানি নেটওয়ার্ক,আই সিস এর মত বিশ্বে ত্রাস তৈরি করা জঙ্গি গোষ্ঠীগুলো আফগানিস্তানে জড়ো হয়েছে। লক্ষ্য তালিবান সরকার এর আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির পরই, আফগানিস্তান সমস্ত জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর একটা সমন্বয় মঞ্চ (community forum) গড়ে তোলা। এরপর তালিবান বা আল কায়েদার ঝুলিতে রাখা পুরোনো এজেন্ডা "গাজবায়ে হিন্দ " র লক্ষ্য পূরণ এর জন্য ঝাঁপিয়ে পড়া কাশ্মীরের ওপর। 

যে রুটে এই আক্রমণ হতে পারে বলে সূত্রের খবর, কান্দাহার সংলগ্ন বান্দাকশ থেকে পাক অধিকৃত কাশ্মীর এর দুরত্ব খুবই কম। এই পথেই লস্কর,জয়েশ,তালিব,হাক্কানির মত জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর যৌথ মঞ্চের সন্ত্রাসবাদীরা লাগাতার হামলার উদ্দেশে বান্দাকশ হয়ে পাক কাশ্মীর এর Launching প্যাডগুলোতে জড়ো হবে। সেখান থেকে তারা নৌসেরা, রোজউড়ি, Punch সেক্টর হয়ে কাশ্মীরে প্রবেশ এর চেষ্টা করবে। Satellite picture বিশ্লেষণ করে সেই গতি বিধির হদিস কিছুটা পেয়েছেন গোয়েন্দারা।

অন্যদিকে স্লিপার সেল এর মাধ্যমে কাশ্মীরকে অশান্ত করার সব রকম চেষ্টা চালাচ্ছে আই এস আই। ইতিমধ্যে জম্মু কাশ্মীর এর বিভিন্ন অংশে পাথর ছোড়ার ঘটনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। পাশাপাশি গত দু মাসে শুধুমাত্র রোজউড়ি ও punch সেক্টরে ১০ জন জঙ্গি নিকেশ হয়েছে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে। শ্রীনগর  সাম্প্রতিক সময়ে অন্তত চার বার গ্রেনেড হামলার ঘটনা ঘটেছে।  

তাই মুখে যাই বলুক, পাকিস্তানী সেনা বাহিনীর মদতে চলা আফগান তালিবান যে কাশ্মীরে জেহাদি কার্য কলাপ এর ঠিকানা বানাতে চলেছে , সেই তথ্যই উঠে আসছে গোয়েন্দা রিপোর্টে। 


৩০ বছর পর মিললো মুক্তির স্বাদ,ফিরলেন ভারতে

সত্যজিৎ মুখোপাধ্যায়ঃ দীর্ঘ ৩০ বছর পর মিললো মুক্তির স্বাদ। মিললো বন্দীজীবন থেকে খোলা হাওয়ার ঘ্রাণ। কিন্তু বন্দীজীবন ছিল বড়ই কষ্টকর।

আজ থেকে ৩০ বছর আগে ভুল করেই দেশের সীমানা পেরিয়ে গিয়েছিলেন রাম বাহাদুর ও প্রলহাদ রাজপুত। উত্তরপ্রদেশ ও মধ্যপ্রদেশ এর সেদিনের দুই যুবক দু স্বপ্নেও ভাবেন নি,কতটা নারকীয় ভবিষ্যৎ রয়েছে তাদের অপেক্ষায়। 

এরপর বহুবার মসনদে পরিবর্তন ঘটেছে। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে বহু জল। পাকিস্তান এর কারাগারে প্রত্যেকটা দিন কেটেছে নরক সমতুল। জেলের মধ্যে দুই ভারতীয় যুবক এর সঙ্গে পশুর মত আচরন করতো পাক পুলিশ। মিলতো না সময় মতো খাবার, এমনকি পানীয় জলও। 

একাধিক মানবাধিকার সংগঠনের চেষ্টা, সর্বোপরি ভারতীয় বিদেশমন্ত্রকের লাগাতার প্রয়াস। ২০২১ এর ৩০ অগস্ট শেষ পর্যন্ত পাক জেল থেকে মুক্তি পেলেন দুই পথ ভোলা ভারতীয়। বয়স এর ভারে এখন ন্যুব্জ। 

যখন পাক সীমান্ত ছেড়ে দেশে প্রবেশ করছেন,তখন দুজন প্রায় নিজের পা এ হাটতে ভুলে গেছেন। চিকিৎসকদের বক্তব্য অনুযায়ী দুজন এখন হারিয়েছেন মানসিক ভারসাম্যও। 


Breaking News: পাকিস্তানে বিধ্বংসী আগুন,মৃত অন্তত ১৬

করাচিঃ পাকিস্তানের বৃহত্তম শহর করাচির একটি রাসায়নিক কারখানায় বিধ্বংসী আগুন। ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে খবর।  

দমকল সূত্রে খবর, আগুন লাগার সময় কারখান অধিকাংশ জানালাই বন্ধ ছিল। তারফলে ভিতরে কিছু শ্রমিক আটকে পড়ে। তাছাড়া কারখানাটিতে প্রবেশের একটিমাত্র পথ ছিল। এমনকি ছাদে উঠার দরজাও বন্ধ ছিল। 

বিস্তারিত আসছে --


তালিবান বন্দুকবাজদের পকেটে মিলল পাক সামরিক বাহিনীর সচিত্র পরিচয় পত্র

সত্যজিৎ মুখোপাধ্যায়ঃ আন্তর্জাতিক দুনিয়ার সামনে ফের পাক তালিবান যোগের প্রমাণ পাওয়া গেল। নিহত তালিবান বন্দুকবাজদের পকেট থেকে মিলছে পাক সামরিক বাহিনীর সচিত্র পরিচয় পত্র।  

এদিকে সামনে এলো আন্তর্জাতিক দুনিয়ার পাঞ্জশির গণতন্ত্রের ছবি।  মানবাধিকারকে বাঁচিয়ে রাখতে লড়ছেন আমিরুল্লা সালেহ ও মাসুদরা। তাদের নেতৃত্বে লড়ছে নর্দান অ্যালায়েন্স এবং আফগান সামরিক বাহিনী। এরই মধ্যে প্রকাশ্যে এসেছে একটি ভিডিও। সেখানে দেখা যাচ্ছে, পাঞ্জশির তালিবান জঙ্গিরা পালিয়ে যাচ্ছে। 

জানা গিয়েছে,লড়াইয়ে ইতিমধ্যে পিছু হটছে তালিবান। যদিও তালিবানের দাবি,পাঞ্জশির চারিদিক তারা ঘিরে ফেলেছেন। পাশাপাশি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে রীতিমত সতর্ক করল তালিবান। 

চুক্তি মেনে ৩১ অগস্টের মধ্যে আমেরিকার বাকি সেনাকে না ফেরত নিলে, তার ফল ভাল হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিল তালিবানরা। এই মুহূর্তে কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সুরক্ষায় রয়েছে প্রায় ৫ হাজার মার্কিন সেনা। 

অন্যদিকে চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এসেছে লড়াইয়ের ময়দান থেকে । নিহত তালিবান বন্দুকবাজদের পকেট থেকে মিলছে পাক সামরিক বাহিনীর সচিত্র পরিচয় পত্র। একটি দুটি নয়। প্রচুর সংখ্যায়। প্রশ্ন উঠছে তাহলে কি তালিবান এর আড়ালে  জয়েস ই মোহাম্মদ , হাক্কানি নেটওয়ার্ক এর স্বর্গ রাজ্য আফগানিস্তান কে বানাতে চাইছে পাকিস্তান ?


কাবুল দখলের পর এবার পাকিস্তানে নজর তালিবানদের !

আফগানিস্তানে অশান্তির আঁচ এ বার পাকিস্তানে। বুধবার আফগান সীমান্ত লাগোয়া খাইবার-পাখতুনখোয়া প্রদেশের দক্ষিণ ওয়াজিরিস্তানে তেহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তান (টিটিপি) গোষ্ঠীর সঙ্গে সংঘর্ষে এক পাক সেনার মৃত্যু হয়েছে। সংঘর্ষে নিহত হয়েছে এক জঙ্গিও। যদিও গত রবিবার তালিবান বাহিনী কাবুল দখলের পরেই তাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

আফগানিস্তানের পরবর্তী তালিবান সরকারে পাক সেনার মদতে পুষ্ট তালিবান নেতা সিরাজ্জুদ্দিন হক্কানি গুরুত্বপূর্ণ পদ পেতে পারেন বলেও ইঙ্গিত মিলেছে। খাইবার-পাখতুনখোয়া প্রদেশের উত্তর ওয়াজিরিস্তানে প্রভাব রয়েছে হক্কানি নেটওয়ার্কের।এরই মধ্যে বুধবার আফগানিস্তানের জেলে বন্দি টিটিপি-র নেতা মৌলানা ফকির মহম্মদকে মুক্তি দিয়েছে তালিবান। আফগান তালিবানের নেতা মহম্মদ ইয়াকুবের নির্দেশেই তাঁকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে বলে পাক সংবাদমাধ্যমের একাংশ জানিয়েছে। প্রসঙ্গত, নেতৃত্বের প্রশ্নে হক্কানি গোষ্ঠীর সঙ্গে তালিবান প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা মহম্মদ ওমরের ছেলে ইয়াকুবের বিরোধ দীর্ঘদিনের।তালিবানের অভ্যন্তরীণ সমীকরণ বলছে, দক্ষিণ ওয়াজিরিস্তানের টিটিপি এবং সোয়াট উপত্যকায় সক্রিয় ‘তেহরিক-ই নিফাজ-ই শরিয়তি মহম্মদি’ (টিএনএসএম) গোষ্ঠীর সঙ্গে হক্কানিদের পুরনো শত্রুতা রয়েছে। তবে কাবুল দখলের পর এবার তালিবানদের নজরে পাকিস্তান।

ভারত- পাকিস্তান ক্রিকেট লড়াইয়ে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু, সময়সূচি ঘোষণা

এবার প্রকাশিত হল আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপের সূচি। ২৪ অক্টেবর দুবাইয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সুপার টুয়েলভের ম্যাচ দিয়ে অভিযান শুরু করবে টিম ইন্ডিয়া। ভারত সুপার টুয়েলভের গ্রুপ-২'এর চারটি ম্যাচ খেলবে দুবাইয়ে। একটি ম্যাচে তারা মাঠে নামবে আবু ধাবিতে। শারজায় কোনও লিগ ম্যাচ নেই ভারতের।


বিস্তারিত আসছে।....

স্কুলে কুরআন শিক্ষা বাধ্যতামূলক করল এই সরকার

পাঞ্জাবঃ স্কুলে কুরআন শিক্ষা বাধ্যতামূলক করল পাঞ্জাব সরকার। প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত সব স্কুলে কুরআন শিক্ষাকে বাধ্যতামূলক করল পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশ।   

প্রাদেশিক সরকারের পক্ষ থেকে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বলা হয়েছে, প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত পাঠ্যসূচিতে কুরআনের নাজেরা তেলাওয়াত বাধ্যতামূলক থাকবে। ষষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত কুরআনের তর্জমার বিষয়টি গুরুত্ব পাবে।

জিয়ো নিউজ খবরে প্রকাশ, পাঞ্জাবের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ডিগ্রি অর্জনের জন্য অনুবাদসহ কুরআন অধ্যায়ন একটি অপরিহার্য শর্ত।

গত বছর পাকিস্তানের জাতীয় সংসদ সে দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় পবিত্র কুরআনের অনুবাদ শিক্ষাদানের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে। পরে সংসদ বিষয়কমন্ত্রীর প্রস্তাবটি সংসদে সর্বসম্মতভাবে পাস হয়।

পাকিস্তান টি ২০ বিশ্বকাপ জিতবে জানালেন শোয়েব

পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার শোয়েব আখতার কি জ্যোতিষী হয়ে গেলেন ? আসন্ন টি ২০ বিশ্বকাপ হতে চলেছে মধ্যপ্রাচ্যে । হওয়ার কথা ছিল ভারতে কিন্তু করোনা সংকটে পরে ভারত থেকে খেলা সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় দুবাই, শারজা ইত্যাদি স্থানে । মোট ১২ টি দল খেলবে তার মধ্যে প্রথম ৮ টি দল সরাসরি খেলবে যার মধ্যে ভারত, পাকিস্তান রয়েছে । 

পাকিস্তানের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার খেলা শুরুর কয়েক মাস আগেই ফাইনালে করা খেলবে তা ঠিক করে ফেলেছেন । শুধু তাই নয়  তিনি জানিয়েছেন, ফাইনাল হবে ভারত পাকের মধ্যে এবং কোহলির দলকে হারিয়ে পাকিস্তান বিশ্বকাপ জিতবে । হঠাৎ তিনি কি জ্যোতিষ চর্চা শুরু করেছেন, প্রশ্ন নেট দুনিয়াতে । শোয়েবের অবশ্য একটি যুক্তি আছে । তিনি মনে করেন, দুবাই ইত্যাদি শহরের মাঠ এখন পাকিস্তানের হোম গ্রাউন্ড যেহেতু দীর্ঘদিন পাকিস্তানের মাঠে কোনও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট হয় নি ফলে ওই মাঠগুলিতে পাক খেলোয়াড়রা খেলে অভস্থ্য তাই তাদের জয় অনিবার্য । কিন্তু ভারতকে হারিয়ে কেন ? এর অবশ্য উত্তর পাওয়া যায় নি । 


দিল্লিতে কৃষক আন্দোলনে পাকিস্তানের ছায়া!

নয়াদিল্লিঃ তিনটি কৃষি আইনের বিরোধিতায় দিল্লি সীমান্তে আন্দোলন কৃষকদের। কয়েক মাস ধরে অবস্থান আন্দোলনে তাঁরা। কৃষকদের সেই আন্দোলনকেই এবার টার্গেট করেছে আইএসআই।

ভারতীয় গোয়েন্দা রিপোর্ট অনুযায়ী, আন্দোলনকারীদের ছদ্মবেশে বড়সড় হামলার ষড়যন্ত্র কষছে পাক গুপ্তচর সংস্থা। সেজন্য আগে ভাগে দিল্লি পুলিস ও সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্সকে সতর্ক করেছে গোয়েন্দারা।

গোয়েন্দা রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, কৃষক আন্দোলনে ছদ্মবেশে ঢোকার চেষ্টা করছে আইএসআই-এর চররা। সেখানে নিরাপত্তায় মোতায়েন রক্ষীদের বিভিন্ন রকম ভাবে প্ররোচিত করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। সেই প্ররোচনাকে ঘিরেই বড়সড় হামলার ছক কষছে পাক গুপ্তচর সংস্থা।

এদিকে, দিল্লির কৃষক আন্দোলনের সাত মাস পূর্তি এবং জরুরি অবস্থা জারির ৪৬তম বর্ষপূর্তি হিসেবে ২৬ তারিখ দিনটি বেছে নেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন রাজ্যের রাজভবনের সামনে বিক্ষোভের কর্মসূচি নিয়েছে আন্দোলনকারীরা। 'কৃষি ও গণতন্ত্রকে রক্ষা করুন', এই আবেদন নিয়ে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের কাছে স্মারকলিপি দেবে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা।

প্রসঙ্গত, কৃষক আন্দোলন ঘিরে যথেষ্ট অস্বস্তিতে রয়েছে কেন্দ্র। বারেবারে বৈঠক করেও মেলেনি সমাধান। কেন্দ্রের বক্তব্য কৃষক স্বার্থেই এই নতুন তিন আইন আনা হয়েছে। অন্যদিকে তিন নতুন কৃষি আইনের পুরোপুরি রদ চাইছেন কৃষকেরা।

পাকিস্তানে বিস্ফোরণ, মৃত ২, আহত ১৫

লাহোর: ভারতে মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গি হাফিজ সইদ। পাকিস্তানে তার বাড়ির কাছে বিস্ফোরণে অন্তত ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। আহত হয়েছে প্রায় ১৫ জন। আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

২০০৮ সালের মুম্বই হামলার মূল চক্রী এই হাফিজ সইদ। তার বাড়ি লাহোরের জোহর টাউন এলাকায়। বুধবার সকালে আচমকাই প্রবল বিস্ফোরণের কেঁপে ওঠে ওই এলাকা।  বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে, আশেপাশের বাড়িগুলির জানলার কাঁচ, এমনকী দেওয়ালও ভেঙে গিয়েছে। যেখানে বিস্ফোরণ হয়েছে, সেখানে চার ফুট গভীর গর্ত হয়ে গিয়েছে। তবে বিস্ফোরণের সময় হাফিজ সইদ বাড়িতে ছিল না বলে খবর।  

এই বিস্ফোরণ কারা ঘটালো এবং কেন এই হামলা চালানো হয়েছে, সে বিষয়ে এখনও কিছু জানা যায়নি। তবে যেখানে বিস্ফোরণ হয়েছে, সেখানে বেশ কিছু শোরুম, ব্যাঙ্ক ও হাসপাতাল রয়েছে। এই প্রথম নয়,এর আগেও জঙ্গি হাফিজ সইদ-র বাড়ির কাছে বিস্ফোরণ হয়েছিল।

পাক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, একটি বড় গাড়িতে করে বিস্ফোরণের জন্য বিস্ফোরক আনা হয়েছিল। ওই গাড়িতেই বিস্ফোরণ ঘটে। 

মহিলাদের সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করে বিপাকে ইমরান খান!

ফের সংবাদের শিরোনামে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মহিলাদের সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করে বিপাকে তিনি! বিশ্বজুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

পাকিস্তানে বেড়ে চলা ধর্ষণ,নির্যাতন ও শ্লীলতাহানির জন্য মহিলাদেরকেই দায়ী করলেন ইমরান খান। মহিলারা স্বল্পবসন পরে ঘুরে বেড়ানোর জন্যই বাড়ছে ধর্ষণ।

Axio ON HBO-র একটি অনুষ্ঠানে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, “পুরুষরা যদি রোবট না হয়, তাহলে মহিলাদের স্বল্পবসনে তাঁদের উপরে প্রভাব পড়বেই। এটা খুবই সাধারণ বুদ্ধি।”

তার এই মন্তব্যের পরই বিশ্বজুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। পাশাপাশি পাকিস্তানের বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতারাও ইমরান খানের মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন।

ভ্যাকসিন না নিলে বন্ধ করে দেওয়া হবে মোবাইল

পাঞ্জাবঃ করোনাকালে টিকাদানে গতি আনতে চাইছে সরকার। কিছু মানুষ টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে অনীহা দেখাচ্ছে। তাদের জন্য এবার কড়া পদক্ষেপ নিল পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশ।


সূত্রের খবর, পাকিস্তানের অসংখ্য মানুষ টিকা নিতে আগ্রহী নন। তাদের বিশ্বাস টিকা নিলে বন্ধ্যাত্ব নেমে আসবে। কারও কারও মতে,টিকা নিলে দু’বছরের মধ্যে নিশ্চিত মৃত্যু। এসব মানুষকে টিকা নিতে বাধ্য করতে নতুন নিয়ম আনল সরকার। 


পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশ কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করল, টিকা না নিলে ‘শাস্তি’ হিসেবে মোবাইল ফোনের সিম বন্ধ করে দেওয়া হবে।  এর আগে সিন্ধু প্রদেশ ঘোষণা করেছিল, সরকারি কর্মীরা টিকা নিতে অস্বীকার করলে জুলাই থেকে বন্ধ হবে বেতন।

বাজেট অধিবেশনে ইমরানের সঙ্গে গাধার তুলনা!

পাকিস্তানে সম্প্রতি বেড়েছে গাধার সংখ্যা। তাই এবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী এই তথ্যকে হাতিয়ার করেই এবার পাক সংসদের বাজেট অধিবেশনে বিক্ষোভ দেখাল বিরোধীরা। ইমরানের পিটিআই সরকারের অর্থমন্ত্রী শউকত তারিনের বাজেট বক্তৃতা ছিল  ‘ডাঙ্কি রাজা কি সরকার নেহি চলেগি’ স্লোগানে। যার অর্থ ‘গাধা রাজার সরকার চলবে না’।

এভাবেই ব্যাঙ্গ করে ‘গাধা’ বলে বিরোধীরা কটাক্ষ করল পাক প্রধানমন্ত্রীকে। এমনিতেই পারিস্তানে অর্থনৈতিক অবস্থা শোচনীয়। এদিকে ইমরান সরকারের মাথায় একগুচ্ছ দেনার বোঝা। তাঁর মাঝেই আজ পাকিস্তানের বাজেটে ইমরানকে এই স্লোগান।