পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফা ভোটের বিরুদ্ধে মামলা খারিজ সুপ্রিম কোর্টে

পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায় ভোট করানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন। এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দেশের সর্বোচ্চ আদালতে দায়ের হয়েছিল একটি জনস্বার্থ মামলা। সেই সঙ্গে রাজনৈতিক প্রচারে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দেওয়ার ওপরও নিষেধাজ্ঞা জারির আবেদন করা হয়েছিল। এবার দুটি মামলাই খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট। মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চে এই মামলার শুনানি হয়। শুনানিতে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দেয়, ধর্মের ভিত্তিতে বড়জোর নির্বাচনী পিটিশন হিসেবে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হওযা যায়। তাই মামলাকারী মনোহরলাল শর্মাকে বিকল্প হিসেবে কলকাতা হাইকোর্টে আবেদনের কথা বলেন। কিন্তু মামলাকারী এই বিকল্পে ইচ্ছুক ছিলেন না, তাই শেষপর্যন্ত মামলাটি খারিজ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। উল্লেখ্য, মামলাটি সর্বোচ্চ আদালতে দায়ের হয়েছিল গত ১ মার্চ। আবেদনে মামলাকারী দাবি করেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে যখন কোনও সন্ত্রাসবাদী হামলার মুখে নেই বা বিতর্কিত যুদ্ধক্ষেত্রের আওতায় পড়ছে না, তখন আট দফায় ভোটগ্রহণ স্পষ্টতই ভারতীয় সংবিধানের ১৪ নম্বর ধারার  লঙ্ঘনের বিষয়’। কিন্তু শেষপর্যন্ত মামলাটি খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট।

 

বিজেপির রথযাত্রা আটকাতে হাইকোর্টে জনস্বার্থের মামলা

রাজ্যে বিধানসভা ভোটের প্রচারে ইতিমধ্যেই পাঁচটি রথযাত্রা করার কথা ঘোষণা করেছে বঙ্গ বিজেপি। যার উদ্বোধন করবেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। এই রথযাত্রার অনুমতি চেয়ে নবান্নেও চিঠি দিয়েছিল বঙ্গ বিজেপি। সেই অনুমতি আসার আগেই এবার কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থে মামলা হল বিজেপির প্রস্তাবিত রথযাত্রা নিয়ে। এই রথযাত্রা হলে রাজ্যে আইনশৃঙ্খলার অবনতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই মর্মে কলকাতা হাইকোর্টে মামলাটি দায়ের হয়েছে। আগামীকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবারই মামলাটির শুনানি হতে পারে বলে হাইকোর্ট সূত্রে জানা যাচ্ছে।
তবে বিজেপির বক্তব্য, অনুমতি না মিললেও যথাসময়ে হবে রথযাত্রা। অপরদিকে নবান্ন সূত্রে জানা যাচ্ছে, অনুমতি চেয়ে বিজেপির চিঠির জবাব দেওয়া হয়েছে। রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতি প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে লেখা চিঠিতে নবান্ন জানিয়ে দিয়েছে এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসনের কাছে অনুমতি নিতে। সবমিলিয়ে বিজেপির ‘পরিবর্তন রথযাত্রা’ শুরুর আগেই বিতর্কে পড়ল। কিন্তু বঙ্গ বিজেপি হাবেভাবে বুঝিয়ে দিচ্ছে এই কর্মসূচি পালন করতে তাঁরা মরিয়া। উল্লেখ্য, বিজেপির প্রস্তাবিত পাঁচটি রথযাত্রা রাজ্যের ২৯৪টি বিধানসভাই ছুঁয়ে যাওয়ার কথা। বিধানসভা ভোটের আগে বিজেপির দিকে হাওয়া টানতেই এই কর্মসূচি নিয়েছে বলে জানিয়েছিল রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব।