মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজের আবেদন শুভেন্দুর

ঠিক এক সপ্তাহ আগে আজকের দিনে মুকুল রায় বিজেপি ত্যাগ করে তৃণমূলে ফিরে আসেন | কয়েকদিন ধরে জল্পনা চলছিল তাঁর বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেয় বিজেপি | এবারে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়কে পত্র দিয়ে মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজ করার আবেদন জানালেন | শুভেন্দুর সাথে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদের এই বিষয়ে কথাও হয়েছে বলা জানা গিয়েছে | কিন্তু পদ্ধতিগত ভাবে এই ভাবেই কি সদস্যপদ  খারিজ করা যায় উঠেছে প্রশ্ন | তৃণমূলের নেতাদের পরম নিশ্চিন্ত দেখা গেল |

অন্যদিকে বিজেপির মাথাব্যথার কারণ এই ভাবে দল ভাঙার চেষ্টা চালাবে তৃণমূল বলে ধারণা | তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ জানালেন, আগে শুভেন্দু তাঁর বাবার বিষয়ে ভাবুক | প্রসঙ্গত শিশির অদিকারী তৃণমূলের সাংসদ হওয়া সত্বেও বিজেপির মঞ্চে উঠে প্রচার করেছেন | তৃণমূলও তাঁর সাংসদ পদ বাতিল করার ভাবনায় লোকসভার স্পিকারের সাথে কথা শুরু করেছে |  

অভিষেকের ডাকে মুকুল ক্যামাক স্ট্রিটে

আর বসে থাকা নয় | এবারে রীতিমতো তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড অভিষেকের ডাকে প্রাক্তন সেকেন্ড ইন কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যাধ্যায়ের অফিসে | অভিষেক ভোটের আগে থেকেই প্রশান্ত কিশোরের সাথে নিয়মিত আলোচনা করে দলের প্রতিটি পদক্ষেপ তৈরি করেছিলেন |

বলাই বাহুল্য আজকের অভিষেক অনেক বেশি পরিণত | তিনি জানেন কখন কাকে কোথায় ব্যবহার করতে হয় এবং প্রয়োজনে কাকে ছেঁটে ফেলতে হয় | এখন ক্ষুরধার বুদ্ধি সম্পন্ন মুকুল দলে | সুতরাং মুকুলকে যোগ্য কাজে নামাতে পারলে আখেরে সুবিধা দলের | এইটা বুঝেই অভিষেক আর কাল বিলম্ব করলেন না | 


তৃণমূলের সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল !

কলকাতাঃ শুক্রবার 'ঘরের ছেলে' মুকুল রায় ঘরে ফিরলেন অর্থাৎ দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এমনটিই ঘোষণা করেছিলেন | মুকুল প্রথম যে কাজটি করলেন তা, তিনি কেন্দ্রের সিকিউরিটি ছাড়লেন এবং এই বিষয়ে কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্র দপ্তরে চিঠি পাঠালেন | তিনি বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি ছিলেন , তৃণমূলে ফিরে ওই একই পদ পেলেন বলে জানা গেলো |

তিনি অবশ্য যখন তৃণমূল ছাড়েন তখনও সর্বভারতীয় সহ সভাপতি ছিলেন | মুকুলের স্ত্রী কৃষ্ণা রায় দীর্ঘদিন ধরে বাইপাসের একটি হাসপাতালে ভর্তি | তাঁর ফুসফুস সংক্রান্ত সমস্যা রয়েছে | জানা যাচ্ছে তাঁকে দক্ষিণ ভারতে চিকিৎস্যর জন্য নিয়ে যাওয়া হবে | প্রয়োজনে অস্ত্রোপচার হতে পারে | কিন্তু এরই মধ্যে মুকুল তাঁর দায়িত্ব বুঝে নিচ্ছেন শনিবারই

দিলীপের ডাকা বৈঠকে অনুপস্থিত মুকুল রাজীব

কলকাতাঃ ইদানিং বিজেপির ডাকা জরুরি বৈঠকে অনুপস্থিত থাকছেন বেশ কয়েকজন প্রাক্তন তৃণমূলী | পার্টি অফিস যাচ্ছেন না অনেকেই | কিন্তু আজকের জরুরি বৈঠকে অবশেষে উপস্থিত থাকলেন সৌমিত্র খান, সব্যসাচী দত্ত | শোনা যাচ্ছিলো অনেকেই পা বাড়িয়ে রয়েছেন পুরাতন দলে, কিন্তু সোমবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সাংবাদিক বৈঠকে দলবদলুদের সম্বন্ধে কোনও উচ্চবাচ্চ না করায়, আজকের দলের সভায় অনেকেই উপস্থিত ছিলেন |


তবে ছিলেন না মুকুল রায় কারণ তাঁর স্ত্রী অসুস্থ হয়ে বাইপাসের ধারের একটি হাসপাতালে ভর্তি গত ১১ মে থেকে | কার্যত তিনি মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত | তিনি জানিয়েছেন, মিটিংয়ের খবর জানেন না | কিন্তু রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় অনেকদিন ধরেই দলের সঙ্গে বিচ্ছিন্ন | দলের থেকেই জানা গিয়েছে, তিনি এই কমিটির সদস্য নন কিন্তু বিশেষ আমন্ত্রিত থাকেন। কিন্তু কেন আজ আসেন নি কেউ জানে না |