৩২৯ রানে থামলো ভারত

চিপকে প্রথম দিনের শেষে  ভারত ৬ উইকেট হারিয়ে ৩০০ রান তুলেছিল। দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই ইংরেজ স্পিনার মইন আলি ও ওলি স্টোনের জোড়া উইকেটে শেষ হল ভারতের প্রথম ইনিংস। অল আউট হয়ে প্রথম ইনিংসে ভারতের স্কোর ৩২৯ রান।দিনের শুরতে ৭টি চার ও ২টি ছয়ের সাহায্যে নিজের অর্ধশতরান পূর্ণ করেন ঋষভ পন্থ। তিনি করলেন ৫৮ রান। ফলে কিছুটা সম্মানজনক রানে ভারতের প্রথম ইনিংস শেষ হয়। 

প্রথম ইনিংসে রোহিত শর্মার দুরন্ত শতরান ও রাহানের অর্ধশতরান ভারতের স্কোরবোর্ড সচল ছিল। কিন্তু দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই বাকি চার উইকেট মাত্র ২৯ রান যোগ করেই হারাল ভারত। জবাবে ব্যাট করতে নেমে অবশ্য বিপাকে পড়েছে ইংল্যান্ডও। ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই ইশান্ত শর্মা ইংরেজ ওপেনার ররি বার্নসকে ফিরিয়ে দিয়ে পাল্টা আঘাত হানলেন। ৬ ওভারের শেষে ইংল্যান্ডের স্কোর ১ উইকেটে ১৫ রান। 

টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত কোহলির

চিপকে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টে টসে জিতে ব্যাট করা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ভারত অধিায়ক বিরাট কোহলি। সিরিজের প্রথম টেস্টে বড় রানের ব্যবধানে হারতে হয়েছিল ভারতকে। ফলে দ্বিতীয় টেস্ট ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই ভারতের কাছে। ম্যাচ জিতে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের দৌঁড়ে এগিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য টিম ইন্ডিয়ার কাছে। দুই দলের একাদশেই ব্যাপক পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেল।  

ভারতের একাদশঃ রোহিত শর্মা, শুভমন গিল, চেতেশ্বর পূজারা, বিরাট কোহলি, অজিঙ্কা রাহানে, ঋষভ পন্থ, অক্ষর প্যাটেল, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, কুলদীপ যাদব, ইশান্ত শর্মা ও মহম্মদ সিরাজ।

ইংল্যান্ডের একাদশঃ ররি বার্নস, ডমিনিক সিবলি, ড্যান লরেন্স, জো রুট, বেন স্টোকস, ওলি পোপ, বেন ফোকস, মঈন আলি, স্টুয়ার্ট ব্রড, ওলি স্টোন ও জ্যাক লিচ।


বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপে ফাইনালের দৌড়ে ধাক্কা ভারতের

১৮ জুন থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপের ফাইনাল। সেই ফাইনালে যাওয়ার রাস্তা বেশ কঠিন হয়ে দাঁড়াল ভারতের কাছে। অজিদের বিরুদ্ধে সিরিজ জিতে ৭১.৭ শতাংশ পয়েন্ট পেয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তালিকার প্রথম স্থানে পৌঁছে গিয়েছিল ভারত। কিন্তু ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে ২২৭ রানে হেরে চতুর্থ স্থানে নেমে আসতে হল ভারতকে। জো রুটের নেতৃত্বে প্রথম স্থানে জায়গা করে নিল ইংল্যান্ড। প্রথম স্থানে জায়গা করে নিতে হলে ভারতকে অপাজিত থাকতে হবে। রুটদের বিরুদ্ধে ৩-১ অথবা ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিততে হবে। তবেই বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপের ফাইনাল খেলতে পারবে কোহলির দল।


এই মুহূর্তে ৪৪২ পয়েন্ট ও ৭০.২ জয়ের শতাংশ নিয়ে শীর্ষে ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে নিউজিল্যান্ড। তাঁদের পয়েন্ট ৪২০ ও জয়ের শতকরা হার ৭০.০ শতাংশ। যদিও তারা ইতিমধ্যেই ফাইনালে যাওয়া নিশ্চিত করে ফেলেছে। তিন নম্বরে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। অন্যদিকে, ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজ ড্র হলে ফাইনালে যাওয়ার দরজা খুলে যাবে অজিদের কাছে।


ঘরের মাঠেই হার টিম কোহলির!

ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা মাথা চুলকিয়েও বুঝে উঠতে পারছেন না, এই ভারতীয় দল অস্ট্রেলিয়াতে অবাক করা লড়াই লড়ে সিরিজা জিতে এল আর তারাই নাকি দেশে নিজেদের মর্জিমাফিক পিচ তৈরি করে সফরকারী ইংল্যান্ডের কাছে হেরে গেল! কার দোষে, অনেক দিন অবধি এই প্রশ্ন ঘুরবে ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে। তবে কিছু উত্তর তো মিলবেই অন্তত গাভাসকারদের মতো বিশেষজ্ঞদের কাছে। 

প্রথমত ব্রিসবেন টেস্টের "টিম রাহানে"কে চেন্নাই টেস্টে রাখা উচিত ছিল। মনে রাখতে হবে বাউন্সি পিচে জান লড়িয়ে খেলে দ্বিতীয় সারির দলটি পরে ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়াকে তাদের অপরাজেয় মাঠে হারিয়েছিল সেই দল থেকে কোন যুক্তিতে সিরাজ, নটরাজনদের ছিটকে দেওয়া হল? তাঁরা কি এর থেকেও বাজে বল করতেন? দ্বিতীয়ত, ভারত যখন স্পোর্টিং পিচে অসাধারণ খেলতে পারে তখন আন্ডারপ্রিপেয়ার্ড পিচ তৈরি করা হলো কার নির্দেশে, যেখানে ক্রমাগত বল ধীরে আসছে কিংবা বাউন্স পাচ্ছে না? এটার ফসল তুলেছে ইংল্যান্ড। শোনা যাচ্ছে, কোহলির নির্দেশেই এই পিচ তৈরি হয়েছিল। তৃতীয়ত নাদিমের মতো নতুন খেলোয়াড়কে নেওয়া হলো কার জায়গায়? এটা পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে, কোহলির ফর্ম খুবই খারাপ, শেষ সেঞ্চুরি কবে করেছেন তিনি সেটা তিনিই ভুলে গিয়েছেন। এছাড়া এত বেশি পরিবারের চিন্তা নিয়ে খেলায় উচিত হয়নি বলেই দাবি ক্রিকেট প্রেমীদের। হয়তো দেখা যাবে পরের টেস্টে কোপ পড়বে নাদিম, রোহিত কিংবা বুমরার উপর। কিন্তু উচিত কোহলির অধিনায়কত্ব ছেড়ে নিজের ব্যাটিংয়ের উপর জোর দেওয়া যা দিয়েছিলেন সচিন তেন্ডুলকর।  

খেলা ধরে নিয়েছে ইংল্যান্ড

শ্রীলংকায় জয়ের পর এ দেশে এসেই ইংল্যান্ড জানিয়েছিল তারা প্রস্তুত এবং টস জিতে ব্যাট করতে গিয়ে সেটাই তারা প্রমাণ করল। ৩০০ রান পার করে ফেলেছে তারা এবং অনায়াসেই স্পিনের বিরুদ্ধে ব্যাট করে অধিনায়ক জো রুট সেঞ্চুরি করে এখন দ্বিশত রানের দিকে এগোচ্ছে। শুরুর থেকেই ইংরেজরা ধরে এবং দেখে খেলেছে, বিশেষ করে চোট সারিয়ে আসা ইশান্ত শর্মা এবং বুমরার বল। তিন স্পিনারের মধ্যে অশ্বিন কিছুটা দাগ কাটলেও বাকিদের সাধারণ মানে নামিয়ে এনেছে ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। যেভাবে তাঁরা ব্যাট করছে তাতে নির্দ্বিধায় বলা যায় ইংল্যান্ড এখন চালকের আসনে। তবে খুব দ্রুত গতিতে কিন্তু রান উঠছে না। ওভার প্রতি ৩ রানও পাওয়া যাচ্ছে না। অর্থাৎ তারা প্রথম ইনিংস ধরে খেলবে এবং বড়ো রানের চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলবে ভারতকে।   

টস জিতে ব্যাট হাতে ইংল্যান্ড

শুক্রবার থেকে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করল টিম ইন্ডিয়া। টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইংরেজ অধিনায়ক জো রুট। 

ভারতের একাদশঃ রোহিত শর্মা, শুভমন গিল, চেতেশ্বর পূজারা, বিরাট কোহলি, অজিঙ্কা রাহানে, ঋষভ পন্থ, ওয়াশিংটন সুন্দর, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, শাহবাজ নদিম, ইশান্ত শর্মা ও যশপ্রীত বুমরা।

ইংল্যান্ডের একাদশঃ ডমিনিক সিবলি, ররি বার্নস, ড্যানিল লরেন্স, জো রুট, বেন স্টোকস, ওলি পোপ, জোস বাটলার, ডমিনিক বেস, জোফ্রা আর্চার, জ্যাক লিচ ও জেমস অ্যান্ডারসন।