ব্রেকিং নিউজ
  ষষ্ঠীর সকালেই আগ্নেয় অস্ত্রসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে মুর্শিদাবাদের ডোমকল থানার পুলিস     ফের এবঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস, হতে পারে ভারী বৃষ্টিও  
tmc-festoon-damage
Tmc: মুখ্যমন্ত্রীর ছবি দেওয়া ফেস্টুন ছিঁড়ে কান ধরে ক্ষমা চাইলেন সিপিএম কর্মী

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-12-14 15:45:25


মুখ্যমন্ত্রীর ছবি দেওয়া ফেস্টুন ছিঁড়ে তৃণমূলের পার্টি অফিসে গিয়ে কান ধরে ক্ষমা চাইলেন সিপিএম কর্মী। "মদ্যপ অবস্থায় ভুল করে ফেলেছি!" অকপট স্বীকারোক্তি অভিযুক্ত ব্যক্তির। তবে তিনি উড়িয়ে দিয়েছেন সিপিএম যোগের কথা। ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য দাসপুরের খেপুত এলাকায়।

১ লা জানুয়ারি দলের প্রতিষ্ঠা দিবসকে সামনে রেখে দাসপুর দু নম্বর ব্লকের ফতেপুর এলাকায় একটি রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হয়েছে তৃণমূলের তরফে। সেই শিবিরের প্রচারে দাসপুরের খেপুত এলাকায় মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন লাগিয়েছে তৃণমূল। রবিবার রাতের অন্ধকারে সেই ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলেন জাকির হোসেন নামে এক ব্যক্তি। সোমবার সকালেই একটি সিসিটিভি ফুটেজ দেখে চিহ্নিত করা হয় জাকির হোসেনকে।

এরপর অভিযুক্তকে রীতিমতো শাসাতে দেখা যায় তৃণমূল কর্মীদের। এমনকী তাঁকে নিয়ে আসা হয় পার্টি অফিসেও। পার্টি অফিসে এসে রীতিমতো হাতজোড় করে কান ধরে ক্ষমা চাইতে দেখা যায় জাকিরকে। জানা গেছে, জাকির হোসেন দীর্ঘদিন সিপিএমের সঙ্গে যুক্ত। যদিও ঘটনার পর সিপিএম যোগের কথা সম্পূর্ণ উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। উল্টে ক্যামেরার সামনে তাঁর স্বীকারোক্তি, "রবিবার রাতের অন্ধকারে মদ্যপ অবস্থায় ঘটনা ঘটিয়ে ফেলেছেন।" এমন ঘটনা আর ভবিষ্যতে ঘটবে না বলেও ক্যামেরার সামনে অনুতাপ প্রকাশ করেছেন ওই ব্যক্তি।

ঘটনাকে ঘিরে ব্যাসপুর এলাকায় শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। তৃণমূলের দাবি, এলাকায় অশান্তির পরিবেশ তৈরি করতে সিপিএম উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এই ঘটনা ঘটিয়েছে। যদিও শাসকদলের এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে সিপিএম নেতৃত্ব। সিপিএমের পাল্টা দাবি, এই ঘটনার সাথে সিপিএমের কোনও যোগ নেই। এ ধরনের নোংরা রাজনীতিতে সিপিএম বিশ্বাসী নয় বলেও দাবি করেছেন স্থানীয় বাম নেতা শোয়েব আহমেদ।

ঘটনার পর রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। অবিলম্বে দোষী ব্যক্তির শাস্তির দাবি জানিয়েছেন শাসক দলের নেতাকর্মীরা।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন