ব্রেকিং নিউজ
  (12:20 PM)-এখনও সংকট কাটেনি পদ্মশ্রী পুরস্কারপ্রাপ্ত কার্টুনিস্ট নারায়ণ দেবনাথের     (12:18 PM)-মদন মিত্রকে এবার সতর্ক করল দল     (11:17 AM)-ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা গোটা দেশে বেড়ে দাঁড়াল ৮২০৯, সুস্থ ৩১০৯     (11:14 AM)-করোনা রুখতে সকাল ১০টার পর থেকে বন্ধ গ্যালিফ স্ট্রিটের পাখিবাজার     (11:02 AM)-সিঁথি থানা এলাকায় রামলীলা বাগানের একটি বাড়িতে ভোররাতে আগুন লাগল     (08:54 AM)-প্রখ্যাত কত্থক শিল্পী পণ্ডিত বিরজু মহারাজ প্রয়াত     (08:48 AM)-সিরিয়াল দেখার ফাঁকে কসবায় দুঃসাহসিক চুরি     (08:48 AM)-রাজ্যের করোনা আক্রান্ত কমলেও মৃত্যুসংখ্যা উর্ধ্বমুখীই     (08:47 AM)-তাপমাত্রা স্বাভাবিকের নিচে, ফের বঙ্গে শীতের আমেজ  
school-reopen-bengal
School স্কুল খুলছে, আবার বাজবে ছুটির ঘণ্টা


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-15 12:04:53


করোনা আবহে প্রায় দীর্ঘ ২ বছর বন্ধ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। স্কুলমুখি হয়নি ছাত্র-ছাত্রীরা। খাতায়কলমে পরীক্ষা দিতে ভুলেই গেছে। সবটাই এতদিন ইন্টারনেটের মাধ্যমে হচ্ছিল। তবে এবার প্রাণ ফিরে পাবে স্কুলগুলি। অনলাইনের অবসান ঘটিয়ে ফের স্কুল খুলতে চলেছে। আবার শুরু হবে পঠনপাঠন। স্কুল খোলার প্রাক্কালে নতুন রঙে সেজে উঠছে শ্রেণিকক্ষ থেকে স্কুলের বারান্দা। এমনই ছবি ধরা পড়েছে গোবরডাঙা খাটুরা বয়েজ হাইস্কুলে।

সেখানে ছোট ছোট গাছ লাগানো হয়েছে। স্কুলের বারান্দায় বিভিন্ন মনীষীদের বাণী লেখা হচ্ছে, যা ছাত্রদের বিশেষ আকর্ষণ করবে বলে জানান স্কুলের সহ প্রধান শিক্ষক বিশ্বনাথ রায়। তিনি জানান, এখানকার শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মীরা সকলেই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে আছেন। স্কুলের সম্পদ ছাত্ররা আবার স্কুলে ফিরবে। স্কুল প্রাঙ্গণকে প্রাণবন্ত করে তুলবে সকলে মিলে। 

এই বিষয়ে খাটুরা বয়েজ হাইস্কুলের এক প্রাক্তন ছাত্র বিশ্বজিৎ ঘোষ জানায়, স্কুল খুলছে বলবো না। বলবো নতুন করে স্কুল খুলছে অর্থাৎ নতুন শিক্ষাজীবন শুরু হচ্ছে। আর ছাত্রদের স্কুলমুখী করে তোলার জন্য স্কুল কর্তৃপক্ষের অভিনব ভাবনাকে সাধুবাদ জানাচ্ছে সকলেই।

অন্যদিকে, এতদিন অনলাইনে পরীক্ষার পর অফলাইনে মেধা পরীক্ষার আয়োজন করল একটি বেসরকারি সংগঠন। বেলদা গঙ্গাধর অ্যাকাডেমি সহ তিনটি পরীক্ষা কেন্দ্রে আয়োজিত হয়েছে এই কিশোর বিজ্ঞান মেধা পরীক্ষা। একজন অভিভাবক জানান, বিভিন্ন বিদ্যালয়ের অষ্টম, নবম ও দশম শ্রেণির প্রায় আড়াই শতাধিক ছাত্রছাত্রী অংশ নিয়েছে এই পরীক্ষায়। মূলত অফলাইনের মূল স্রোতে ফেরাতে এই ধরনের উদ্যোগ বলে মনে করছেন তাঁরা। বেসরকারি সংগঠনের এই আয়োজনে খুশি অভিভাবক-অভিভাবিকারা। 

এক পরীক্ষার্থী জানায়, সবার নজরে থেকে পরীক্ষা দিতে চায় তারা। যেভাবে ছোট থেকেই তারা পরীক্ষা দিয়ে এসেছে, সেইভাবেই পরীক্ষা দিতে চাইছে।  কারণ অনলাইনে অনেকেই চিটিং করে পরীক্ষা দিচ্ছে। তাছাড়াও গ্রাম্য এলাকায় অনেক সময় ইন্টারনেটের সমস্যা হয়। ফলে সেইভাবে ক্লাস করে উঠতে পারে না তারা।  তাই এই ধরনের উদ্যোগে খুশি তারা।

সংগঠনের সদস্য দেবজ্যোতি দে জানান, এই অঞ্চলটি গ্রামীণ।  যার ফলে অনেক সময় ছাত্র-ছাত্রীরা পিছিয়ে পড়ে বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষাতে। প্রধানত সেই ছাত্র-ছাত্রীদের আরও এগিয়ে নিয়ে যেতেই তাঁদের এই উদ্যোগ। প্রায় ২৫০ জন ছাত্রছাত্রী এই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিলো বলে জানান তাঁরা।  এছাড়াও বাচ্চাদের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনতেই এই উদ্যোগ।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us