ব্রেকিং নিউজ
municipal-vote-tmc-candidate
Tmc: ক্লাসিক সিগারেটের প্যাকেট গুঁজে দিলেই প্রার্থী নয়, তৃণমূল বিধায়কের মন্তব্যে শোরগোল


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-12-08 12:20:15


"হাতে ক্লাসিক সিগারেটের প্যাকেট গুঁজে দিলেই প্রার্থী হওয়া যাবে না"। গোবরডাঙায় তৃণমূল বিধায়ক দলীয় কর্মিসভা থেকে এমনই মন্তব্য করেছেন। যাকে ঘিরে শুরু রাজনৈতিক তরজা। 

অনেক সময়ই টাকার বিনিময়ে প্রার্থী হওয়ার অভিযোগ ওঠে। নেতৃত্বের ঘনিষ্ঠ হওয়ার সুবাদেও অনেকের ভাগ্যে শিকে ছেঁড়ে। এবার তৃণমূলের বিধায়ক পরিষ্কারই বললেন, প্রার্থী হতে গেলে ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে যেতে হবে। স্বচ্ছ মনোভাব রাখতে হবে। গোবরডাঙায় তৃণমূলের দলীয় যোগদান সম্মেলন ছিল। সেখানেই প্রকাশ্যে এমন মন্তব্য করেন অশোকনগরের বিধায়ক, তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলার তৃণমূল নেতা নারায়ণ গোস্বামী। আর তাঁর এই মন্তব্য ঘিরেই সরগরম বঙ্গ রাজনীতি।

গোবরডাঙার বিজেপির মণ্ডল সভাপতি আশিষ বন্দ্যোপাধ্যায় পাল্টা বলেন, তাহলে এটাই বোঝা গেল, সিগারেটের প্যাকেটেই এতদিন অনেকে তৃণমূলের প্রার্থী হয়ে এসেছেন। তবে তিনি কটাক্ষের সুরে বলেন, শুধুমাত্র সিগারেটের প্যাকেট, নাকি তার মধ্যে আরও অন্য কিছু দিতে হয় তৃণমূলের প্রার্থী হতে গেলে। টাকার মাধ্যমে তৃণমূলের প্রার্থী হওয়া যায় এবং সিগারেটের প্যাকেটেও। এটা পরিষ্কার নেতার বক্তব্যে, এমনটাই মনে করছেন তিনি।

তিনি জানান, বিষয়টি শুনেছেন সাধারণ মানুষ। গোবরডাঙার মানুষ বিচার করবেন আসন্ন পুরসভার নির্বাচনে। 

তবে নারায়ণ গোস্বামী তাঁর বক্তব্যে অনড়। তিনি জানান, যে কথাটি বলতে বা বোঝাতে চেয়েছিলেন, তা সম্পূর্ণ ভিন্ন। তিনি জানান, কোনও নেতাকে আলাদাভাবে তোষণ করে বা তৈলমর্দনের মধ্য দিয়ে দলের টিকিট পাওয়া যাবে না। টিকিট পেতে গেলে ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষের মধ্যে গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করতে হবে। আগের ভুল থেকেই শিক্ষা নিয়ে তাঁদের দলের উচ্চ নেতৃত্বের এই সিদ্ধান্ত। আসন্ন নির্বাচনে কোনওরকম বলপ্রয়োগ চলবে না। তবে কেউ বল প্রয়োগ করতে গেলে তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে দল।

তবে আগামীতে কী হবে, তা তো সময়ের অপেক্ষায়। 




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us