ব্রেকিং নিউজ
mukutmanipur-without-tourists-due-to-government-restrictions
Tourism সরকারি বিধিনিষেধে পর্যটকশূণ্য মুকুটমণিপুর, চরম হতাশা সর্বত্র

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-01-26 13:58:25


সরকারি বিধিনিষেধে বন্ধ পর্যটনকেন্দ্র। জল, জঙ্গল, পাহাড়ের দেশ মুকুটমণিপুর জুড়ে এখন শুধুই শূন্যতা। বাঁকুড়ার বিখ্যাত মুকুটমণিপুর দেখলে কে বলবে, এখানে গত সপ্তাহেও তিল ধারণের জায়গা ছিল না। কে বলবে, গত সপ্তাহেও নৌকাভ্রমণবিলাসী পর্যটকদের ভিড়ে দম ফেলার স্বস্তি পাননি নৌকাচালকরা। কিন্তু এক সপ্তাহের মধ্যেই আমূল পরিবর্তন। বদলেছে মুকুটমণিপুরের সেই চেনা ছন্দ। এই পর্যটনস্থান জুড়ে এখন শুধুই শূন্যতা।

কথায় আছে, বাঙালির পায়ের নিচে সরষে। শীত পড়তে না পড়তেই বেড়ানোর জন্য ভ্রমণবিলাসী বাঙালির মন বাড়িতে থাকতে দেয় না। গত কয়েক বছর ধরে ভ্রমণবিলাসী বাঙালির কাছে অন্যতম সেরা স্থান হয়ে উঠেছে মুকুটমণিপুর। বেড়ানোর জন্য হোক বা শীতের মিঠে রোদে পিঠ লাগিয়ে পিকনিক, জল, জঙ্গল, পাহাড়ের মুকুটমণিপুর যেন সব ক্ষেত্রেই সেরা।

গত প্রায় দু'বছর পর্যটনে কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছিল করোনা ভাইরাস। তবে কিছুটা স্বস্তি মিলতেই ফের চলতি বছরে পর্যটন মরসুম শুরু হতেই পর্যটকের ভিড়ে উপচে পড়েছিল মুকুটমণিপুর। গত সপ্তাহেও ছিল ঠাই নাই ঠাই নাই অবস্থা। সে এক জমজমাটি ভিড়। সেই মুকুটমণিপুরের চেনা ছবি বদলে গেছে বর্তমানে।

ফের রাজ্য সরকার কড়া বিধিনিষেধ চালু করায় পর্যটকরা ফিরে গেছেন। একের পর এক হোটেল বুকিং বাতিল হয়েছে। পিকনিকের অনুমতি না থাকায় জনমানবহীন মুকুটমনিপুর। পর্যটকদের অভাবে একের পর এক হস্তশিল্পের দোকানে ভাটা নেমেছে। জলাধারের তীরে ভিড়িয়ে রাখা সাজানো নৌকা ছেড়ে মাঝিরা ফিরে গেছে যে যার ঘরে। পর্যটনের ভরা মরসুমে সংসার চালানোর তাগিদে কাউকে খুঁজতে হয়েছে মজুরির কাজ। তো কাউকে আবার কর্মহীন দিন কাটাতে হচ্ছে বাড়ির চার দেওয়ালের মধ্যেই। ধার-দেনা করে চালাতে হচ্ছে সংসার।

স্থানীয়দের দাবি, শীতের মরসুমে মুকুটমণিপুরে চলা আড়াই থেকে তিনমাসের পর্যটন ব্যবসায় প্রত্যক্ষভাবে যুক্ত রয়েছে এক থেকে দেড় হাজার মানুষ। তাঁদের ভিন্ন রোজগার না থাকায় এখন শুধুই হতাশার ছাপ সবার মুখেই।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন