০২ মার্চ, ২০২৪

Sheikh Shahjahan: 'সন্দেশখালির বাঘ'-এর তিন-তিনটি বাড়ি! আর কত সম্পত্তি রয়েছে শাহজাহানের
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-01-06 15:41:53   Share:   

তদন্ত করতে গিয়ে ইডির আধিকারিকদের মার, খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে সাংবাদিক, চিত্র সাংবাদিকদের জখম হতে হয়েছে শেখ শাহজাহানের অনুগামীদের হাতে। এবারে জেনে নিন এই 'বেতাজ বাদশা' শেখ শাহজাহানের অগাধ সম্পত্তির পরিমাণ।

শেখ শাহজাহান। নামটা শুক্রবার থেকে শিরোনামে এলেও, সরবেড়িয়া সন্দেশখালির এই বেতাজ বাদশা, তৃণমূল নেতা শেখ শাহজাহানের সম্পত্তি চোখ কপালে তুলে দেওয়ার মতোই। তদন্তের খাতিরে তার বাড়ির সামনে গিয়ে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকদের পাশাপাশি মার খেতে হয়েছিল সিএন-এর চিত্র সাংবাদিককেও। তারপরেও সিএন-এর নির্ভীক কভারেজে প্রকাশ্যে এসেছে শেখ শাহজাহানের অগাধ সম্পত্তি।

সন্দেশখালির দাপুটে শেখ শাহজাহান, যাকে আড়ালে আবডালে রাখতে প্রায় পুরো গ্রাম ছুটে আসে, সেই শেখ শাহজাহানের সাম্রাজ্য ঠিক কতটা? এবার তার সাম্রাজ্যের খোঁজ সিএনের কাছে। জানা যাচ্ছে, সরবেড়িয়া সন্দেশখালির বেতাজ বাদশা শেখ শাহজাহানের সন্দেশখালি এলাকায় রয়েছে তিনটি প্রাসাদ প্রমাণ বাড়ি। যার মধ্যে সাদা বাড়িটিতে থাকেন তাঁর আত্মীয়রা। নীল বাড়িতে থাকেন তাঁর ঘনিষ্ঠরা। সর্বোপরি, হলুদ বাড়িটিতে থাকেন বেতাজ বাদশা নিজেই। তিনটি বাড়িতেই আপাতত ঝুলছে তালা। বাড়ির ভিতরেও কারোর অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। বাড়ির পাশে বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে রয়েছে বাগান। বাড়ি থেকে বের হওয়ার জন্য রয়েছে একাধিক রাস্তা। শুধু তাই না, শেখ শাহজাহানের বড় বড় তিনটি বাড়ি ছাড়াও রয়েছে ওই পরিসরেই কিছু ছোট ছোট বাড়ি। যাতে তার কর্মীরা থাকত বলে জানা যাচ্ছে সূত্র মারফত। এছাড়াও শাহজাহান শেখের বিশাল ইট ভাটার হদিশ পাওয়া গিয়েছে। ধামাখালিতে ৪৫ বিঘা জমি নিয়ে দুটো ইট ভাটার মালিক শাহজাহান। যেখানে প্রতিদিন দেখা যেত সাজাহান শেখকে। ৩ বছর আগে বসিরহাটের অশোক রাহা কাছ থেকে এই ইট ভাটা কিনেছিলেন শাহজাহান।

শুধু তাই না, জানা যাচ্ছে, শেখ শাহজাহানের তোলাবাজি চালাতে যাতে কোনও সমস্যা না হয়, সেই জন্যেই তাঁকে জেলা পরিষদের টিকিট দিয়ে করা হয়েছিল কর্মাধ্যক্ষ। এবার প্রশ্ন জাগছে কার নির্দেশে এমন তোলাবাজ শাহজাহানকে প্রশাসনিক পদে অলংকৃত করল দল? তাহলে কি তার দুর্নীতিকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতেই দলের এমন সিদ্ধান্ত? শেখ শাহজাহানের অগাধ সম্পত্তির হদিশ পেয়ে এমন হাজারো প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে রাজ্যবাসীর মনে।


Follow us on :