৩০ মে, ২০২৪

Hooghly: আলমারি খুলতেই বেরল মায়ের দেহ! তিন দিন নিখোঁজ প্রৌঢ়ার মৃত্যুতে চাঞ্চল্য
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2022-12-10 18:57:05   Share:   

দিল্লির শ্রদ্ধা-কাণ্ডের ছায়া এবার বাংলায়। এবারের ঘটনাস্থল হুগলি (Hooghly) জেলা সদর চুঁচুড়া (Chinsurah)। বন্ধ আলমারির ভিতর থেকে উদ্ধার হল মহিলার মৃতদেহ, তাও আবার দিন তিনেক পুরনো। আর এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে চুঁচুড়ার শ্যামবাবুর ঘাট এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে খবর, মৃতা বছর ৬২-র ভারতী ধারা শ্যামবাবুর ঘাটের কাছে স্বামী কাশীনাথ ধারাকে নিয়ে থাকতেন। ছোট্ট টিনের ঘরেই ছিল তাঁর সংসার। স্থানীয়দের বাড়িতে দৈনন্দিনের কাজ করে কোনওরকমে দিন চালাতেন ভারতী ধারা (Bharati Dhara)।

তবে স্থানীয়দের অভিযোগ তাঁর স্বামী কাশীনাথ সেই অর্থে কিছুই কাজ করেন না। কিন্তু নিত্যদিনই মদ্যপান করে বাড়ি ফিরতেন কাশীনাথ। এমনকি স্ত্রীর কাছ থেকে মদ কেনার টাকা চাওয়া নিয়েও প্রায়দিন চলত দুজনের বচসা। আর তার জেরেই স্ত্রীকে খুন করে আলমারিতে ঢুকিয়ে রেখেছেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। স্ত্রীর সঙ্গে খুব খারাপ ব্যবহার করতেন কাশীনাথ বলেও অভিযোগ পরিজনদের। গত বুধবার সকালে শেষবার ভারতীদেবীকে দেখতে পান বলেও জানিয়েছেন এলাকার বাসিন্দারা।

এদিকে শনিবার ভারতী দেবীর ছেলে বিশ্বনাথ ধারা পাশেই থাকেন। এদিন বেলার দিকে তিনি  ক্যাটারিং ব্যবসার জিনিসপত্র নেওয়ার জন্য মা-বাবার ঘরে ঢোকেন। সেখানেই আলমারি খুলতেই গড়িয়ে পড়ে তাঁর মায়ের দেহ। এদিকে বিশ্বনাথের স্ত্রী জানান, দিন তিনেক ধরেই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না ভারতীদেবীকে। কাশীনাথ বলেছিলেন তিনি এক পরিজনের বাড়ি গিয়েছেন। কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা যায় সেখানেও নেই তিনি। পরিবারের পক্ষ থেকে প্রাথমিক ভাবে থানাতে নিখোঁজ ডায়রি করা হয়। কিন্তু এদিনের এই ঘটনার পর শ্বশুরের কঠোর শাস্তির দাবি করেছেন তিনি। সেই সঙ্গে জানিয়েছেন এর আগেও শিশু হেনস্থার অভিযোগে পুলিসের হেফাজতে গিয়েছিলেন কাশীনাথ।



Follow us on :