ব্রেকিং নিউজ
  ষষ্ঠীর সকালেই আগ্নেয় অস্ত্রসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে মুর্শিদাবাদের ডোমকল থানার পুলিস     ফের এবঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস, হতে পারে ভারী বৃষ্টিও  
governor-sparks-controversy-while-delivers-statement-over-bengal-law-and-order-situation
Dhankar: 'বাংলা গ্যাস চেম্বার অফ ডেমোক্র্যাসি', খোঁচা ধনকরের, পাল্টা কটাক্ষ শান্তনুর

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-04-14 17:22:23


বিধানসভার পর বৃহস্পতিবার রাজভবনে পৃথক এক অনুষ্ঠানে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে সরব হয়েছিলেন রাজ্যপাল। বাংলাকে 'গ্যাস চেম্বার অফ ডেমোক্র্যাসি' বলে খোঁচা দেন জগদীপ ধনকর। এদিন তিনি বলেন, 'অর্জুনের যেমন মাছের চোখের মণিতে নজর ছিল, আমার তেমন বাংলার মানুষের ভালোর দিকে নজর। আমার লক্ষ্য শাসন ব্যবস্থা সংবিধান এবং আইন মেনে চলুক। এই পদ্ধতির বিচ্যুতি ঘটলে আমরা বলতে পারব না গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় বসবাস করছি।' যদিও রাজ্যপালের এই মন্তব্যকে সমালোচনার সুরে বিঁধেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

এদিন অবশ্য রাজভবনের অনুষ্ঠানে রাজ্যপাল বলেন, 'আমার দুঃখ লাগে, ভেবে খারাপ লাগে যে মানুষ ভয়ের মধ্যে আছে। সেই ভয়ের বাতাবরন দূর করাই আমার লক্ষ্য। আমার পক্ষে মুশকিল হচ্ছে, আমাকে শুনতে হচ্ছে, মানুষ বলছে পশ্চিমবঙ্গ গ্যাস চেম্বার অফ ডেমোক্র্যাসি। পশ্চিমবঙ্গ দুর্নীতিপরায়ণ।'

তাঁর মন্তব্য, 'বাংলার এই সমালোচনার মধ্যেই নতুন সংযোজন নারী নির্যাতন এবং ফৌজদারি তদন্তের উপর মানুষের কোনও আস্থা নেই। মানুষকে জ্যান্ত পুড়িয়ে দেওয়ার পর প্রশাসনের শীর্ষপদে থাকা ব্যক্তিরা তদন্তকে প্রভাবিত করতে পারে না। শীর্ষ পদে বসে থাকা কেউ যদি বলেন, ও নির্দোষ, তাহলে নিচুতলা থেকে কীভাবে নিরপেক্ষ তদন্ত হবে?' 

সুর আরও চড়িয়ে রাজ্যপাল বলেছেন, 'সাম্প্রতিক ঘটনায় মৃতের পরিবারের সদস্যরা চাকরি পাচ্ছে, তাহলে ভোট পরবর্তী হিংসায় যারা আক্রান্ত, তাঁদের পরিবার কী দোষ করেছে? ওখানেও অন্যায় হয়েছে। শাসন ব্যবস্থা যারা চালায় তারা কখনই ন্যায় দিতে ভেদাভেদ করতে পারে না।'

এই মন্তব্যের সমালোচনায় সরব তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন। তিনি বলেন, 'এর আগে বহুবার বিধানসভাকে কলঙ্কিত করে এই ধরনের কথাবার্তা বলেছেন। বিজেপির দলদাসে পরিণত হয়ে, হিজ মাস্টার ভয়েজের মতো কথা বলছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বাংলার সরকারকে ব্যতিব্যস্ত করতে তিনি এখানে বসে আছেন এটা সারা ভারত জানে।';

পাল্টা সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেছেন, 'বাংলার অবস্থা খারাপ। খুন-ধর্ষণ-শ্যুটআউট নিত্য ব্যাপার। নির্বাচিত কাউন্সিলর শপথের আগে খুন হচ্ছেন, হাথরসের ঘটনা হচ্ছে হাঁসখালিতে। এসব নিয়ে সংবাদমাধ্যম কিছু বললে চোখ রাঙানো হবে, হুমকি দেওয়া হবে। প্রশাসন দলদাসে পরিণত হয়েছে।'

বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষ বলছেন, 'রাজ্যপালের থেকে শুনতে হবে না। আমরা নিত্যদিন মুখোমুখি হচ্ছে। সাধারণ মানুষ ভোট দিতে পারছে না, বিচার ব্যবস্থাকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেওয়ার জন্য, গণতন্ত্র প্রতি পদে লুণ্ঠিত। সার্বিক ভাবে দমবন্ধ করা অবস্থা। যা আর দেখা যাচ্ছে না, সহ্য হচ্ছে না।'






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন