ব্রেকিং নিউজ
  (11:33 AM)-হলদিয়ায় বিএসএনএলের কেওয়াইসি-র নামে অ্যাকাউন্টের সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা লুঠ      (11:30 AM)-রাস্তা হারিয়ে দিশাহারা দশটি দাঁতাল, বাঁকুড়ার ছাতনায় সাত সকালেই দাপাল হাতির দল     (11:29 AM)-শান্তিনিকেতনে জাল নোটের হদিশ     (09:51 AM)-খিদিরপুর ট্রাম ডিপোর নিকটে দুর্ঘটনা, মৃত্যু ১ ব্যক্তির     (09:50 AM)-ভিক্টোরিয়ার সাউথ গেটের সামনে এ জে সি বোস রোড ফ্লাইওভারে ওঠার মুখে বাইক দুর্ঘটনা      (09:48 AM)-গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ১১ হাজার ৪৪৭, মৃত্যু হয়েছে ৩৮ জনের     (09:45 AM)-দেশে মোট ওমিক্রন আক্রন্তের সংখ্যা ৯ হাজার ২৮৭ জন     (09:45 AM)-দেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৩ লক্ষ ১৭ হাজার ৫৩২ জন, মৃত্যু হয়েছে ৪৯১ জনের     (09:33 AM)-আমহার্স্ট স্ট্রিট-এর এম এম চ্যাটার্জি রোডে আগুন, ঘটনাস্থলে ৪টি ইঞ্জিন  
aadhar-card-harrashment-nabadwip
Aadhar Card আধার কার্ড পেতে কনকনে ঠান্ডায় রাতভর খোলা আকাশের নিচে


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-27 14:25:28


কনকনে ঠান্ডা, নিঝুম রাত। ঘড়িতে তখন রাত ঠিক ১ টা। জনশূণ্য রাস্তা। আর এমন একটা সময়েই দেখা মিলল প্রচুর মানুষের। জানা গেল, স্থানীয়রা ভিড় জমাচ্ছেন দুটি কারণে। এক, নতুন আধার কার্ড করা ও পুরনো আধার কার্ড সংশোধন করা। কাঁথাকম্বল নিয়েই সারারাত লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে তাঁদের। নেই কোনও সুরক্ষা ব্যবস্থা। নেই কোনও ছাউনি পর্যন্ত। সেন্টারগুলি খুলবে সকাল ৯ টা অথবা ১০ টায়। তবুও সন্ধ্যা থেকে দিতে হচ্ছে লাইন।

জানা যায়, নবদ্বীপের হাতে গোনা কয়েকটি জায়গায় হচ্ছে আধার কার্ড তৈরির কাজ। তবে সেইসব জায়গায় বেঁধে দেওয়া আছে সীমিত সংখ্যা। কোনও জায়গায় ১০ জন, তো কোনও জায়গায় ১৫ জন। আর সেখানেই সমস্যায় পড়ছেন সাধারণ মানুষ। নবদ্বীপের মুখ্য ডাকঘর সেই আধার সেন্টারগুলির মধ্যেই একটি।

ডাকঘর কর্তৃপক্ষের তরফে বলা হয়েছে, প্রতিদিন প্রথম ১৫ জনকে নতুন কার্ড করা বা সংশোধন করে দেওয়া হবে। যার ফলে প্রথমে নাম লেখানোর জন্যই এই লাইন। সারা রাত এই শীতের মধ্যেই কেউ ফোনে সিনেমা দেখে, তো কেউ রাস্তার মধ্যেই ঘুমিয়ে রাত কাটাচ্ছেন। নির্জন রাস্তায় বাচ্চা, মহিলারা সবাই অপেক্ষা করে আছেন আধার কার্ড করার জন্য।

স্থানীয় বাসিন্দা পলি সুত্রধর জানান, নিরাপত্তার কোনও ব্যবস্থা নেই সেখানে। তবে যাঁরা সন্ধ্যা থেকে রাস্তায় রাত কাটাতে চান না, তাঁদের কোনও সমস্যা নেই। শুধুমাত্র ৪০০ করে টাকা দিলেই আপনার লাইন হয়ে যাবে প্রথমেই। অভিযোগ, এভাবেই রমরমিয়ে চলছে দালালচক্রের কারবার। পোস্ট অফিস থেকে বলা হচ্ছে, যাঁরা সবার আগে এসে লাইন দেবেন, তাঁরাই প্রথমে কার্ড করার সুযোগ পাবেন। সন্ধ্যা সাতটা থেকে লাইনে দাঁড়িয়েও তাঁদের আদৌ কাজ হবে কিনা, সেই নিয়ে সংশয় দেখা গেছে তাঁদের মনে।

তবে পোস্ট অফিস শুধু নয়, নবদ্বীপের বুড় শিবতলা ওরিয়েন্টাল ব্যাঙ্কের সামনেও একইরকম অবস্থা। সেখানেও রাত কাটাচ্ছেন বেশ কয়েকজন মহিলা সহ আরও অনেকে।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us