ব্রেকিং নিউজ
Tensions-over-Tmc-factionalism-on-the-occupation-of-party-offices
Durgapur: পার্টি অফিস দখলকে কেন্দ্র করে প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, উত্তেজনা

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-05-03 16:46:02


পার্টি অফিসের দখল কার হাতে থাকবে, এই প্রশ্নকে ঘিরে তৃণমূলের (trinamool) গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে। দুর্গাপুর (durgapur) নগর নিগমের ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের বেনাচিতি (benachity) অগ্রণী গলি সংলগ্ন তৃণমূলের এই দলীয় কার্যালয়ে মঙ্গলবার সকালে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ধুন্ধুমার কাণ্ড শহরের বুকে। স্থানীয় সূত্রে খবর, বিট্টু সান্যাল নামে স্থানীয় এক তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি বিধান উপাধ্যায়ের কাছে ফোনে ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর। অভিযুক্ত তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান তৃণমূল কাউন্সিলর অসীমা চক্রবর্তী। জানা যায়, গণ্ডগোলের সূত্রপাত গতকাল অর্থাৎ সোমবার রাতে। বেনাচিতির অগ্রণী গলির ওই তৃণমূল পার্টি অফিসে বসেন তৃণমূল কাউন্সিলর অসীমা চক্রবর্তী ও তাঁর অনুগামীরা। অভিযোগ, বিট্টু সান্যাল নামে স্থানীয় এক তৃণমূল নেতা গতকাল রাতে ওই পার্টি অফিসের সামনে এসে পৌঁছয়। তৃণমূল কাউন্সিলর অসীমা চক্রবর্তীর অনুগামী বলে পরিচিত মানবেন্দ্র সাহাকে মারধর করে বিট্টু। এরপরই পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। দুই পক্ষের গণ্ডগোলের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে পুলিস। বিট্টু সান্যাল নামে স্থানীয় ওই তৃণমূল নেতাকে পুলিস জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায়। এরপর বিট্টু সান্যালের অনুগামীরা তৃণমূলের বেনাচিতির অগ্রণী গলির পার্টি অফিসের সামনে তুমুল বিক্ষোভ শুরু করে। দলীয় কাউন্সিলর অসীমা চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে অবিলম্বে বিট্টু সান্যালকে ছেড়ে দেওয়ার দাবি জানায়। বিট্টু সান্যালের অনুগামীদের অভিযোগ, দলীয় পার্টি অফিসকে দুর্নীতির আখড়াতে পরিণত করে ফেলেছেন তৃণমূল কাউন্সিলর অসীমা চক্রবর্তী ও তাঁর অনুগামীরা। ঘর দখল থেকে শুরু করে যাবতীয় অপকর্ম করা হচ্ছে এই পার্টি অফিস থেকে। আর এর প্রতিবাদ করতে গিয়েই কাউন্সিলরের মদতে পুলিস গ্রেফতার করেছে বিট্টু সান্যালকে।

অন্যদিকে স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর অসীমা চক্রবর্তী পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, বিট্টু সান্যাল এলাকায় দাদাগিরি শুরু করেছে। সরকারি খাস জমি বিক্রি করে দিচ্ছে। সবরকম অন্যায় করছে এই বিট্টু সান্যাল। এমনকি মহিলা তৃণমূল কর্মীদের প্রতি অসম্মানজনক আচরণ করে। অবিলম্বে এই তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি তোলেন স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর অসীমা চক্রবর্তী।

প্রবল বিড়ম্বনায় পড়ে যাওয়া তৃণমূলের জেলা সভাপতি বিধান উপাধ্যায় ফোনে জানান, দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে দেওয়া যাবে না কোনওভাবে।

দুই পক্ষের গণ্ডগোলে বেনাচিতি এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এদিকে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর বিবাদে এবার সুর চড়িয়েছে বিরোধীরা। উন্নয়নকে স্তব্ধ রেখে নিজেদের দ্বন্দ্বেই এখন ব্যস্ত তৃণমূল নেতারা, পাল্টা তোপ বিরোধীদের।

গোটা ঘটনায় এখনও থমথমে গোটা এলাকা। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে রয়েছে পুলিস।





All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন