ব্রেকিং নিউজ
  ষষ্ঠীর সকালেই আগ্নেয় অস্ত্রসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে মুর্শিদাবাদের ডোমকল থানার পুলিস     ফের এবঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস, হতে পারে ভারী বৃষ্টিও  
Posted-on-social-media-distorting-the-picture-of-the-Chief-Minister
Maldaha: মুখ্যমন্ত্রীর ছবি বিকৃত করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট, আটক কংগ্রেস ও সিপিএম নেতা

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-04-03 16:55:40


মুখ্যমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার অভিযোগে মালদহের চাঁচলে আটক কংগ্রেস এবং সিপিআইএম-এর দুই নেতা। এইসঙ্গে তাঁদের বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কুরুচিকর মন্তব্য করার অভিযোগও রয়েছে৷ শনিবার রাতে ধৃত দুজনকে গ্রামের বাড়ি থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে চাঁচল থানার পুলিস।

মুখ্যমন্ত্রীর ছবি বিকৃত করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা হয়। চাঁচলের কংগ্রেস কর্মী মোজাম্মেল হক ও সিপিআইএমের কর্মী শফিকুল আলম তাঁদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এই ছবি পোস্ট করেন। গত কয়েকদিন ধরে তাঁরা তাঁদের ফেসবুক প্রোফাইলে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি বিকৃতি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে চলেছেন বলে অভিযোগ। ওই পোস্টে মুখ্যমন্ত্রীকে কুরুচিকর মন্তব্য করা হয় বলেও অভিযোগ। পোস্টটি প্রকাশ্যে আসার পরই চাঞ্চল্য ছড়ায় তৃণমূল শিবিরে। এই নিয়ে মালদহ জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের পক্ষ থেকে চাঁচল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। অভিযুক্তকে অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিতে সরব হয় চাঁচল ১ নং ব্লক তৃণমূল ছাত্র পরিষদ। অভিযোগ পাওয়ার পর সিপিআইএম ও কংগ্রেসের দুই কর্মীকে বাড়ি থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিস।

এ বিষয়ে অভিযোগকারী তথা মালদহ জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বাবু সরকার বলেন, গত দু'দিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখতে পাচ্ছেন কংগ্রেসের মোজাম্মেল হক ও সিপিআইএমের শফিকুল আলম নামে দুইজন ব্যক্তি নিজেদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি করে একটি পোস্ট করেছেন। সেই ছবির পাশে মুখ্যমন্ত্রীকে কুরুচিকর ভাষায় লেখা রয়েছে মন্তব্য। বিষয়টি তাঁদের নজরে আসতেই তৃণমূল ছাত্র পরিষদের পক্ষ থেকে চাঁচল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ অস্বীকার করে চাঁচল ১ নম্বর ব্লকের কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক কাজি আতাউর রহমান বলেন, পুলিস দলদাসে পরিণত হয়েছে। আজকে সাধারণ মানুষ নিজের ইচ্ছেমতো ছবি পোস্টও করতে পারবেন না? কোন রাজ্যে বসবাস করছেন সকলে, প্রশ্ন তোলেন তিনি।

সিপিআইএম-এর মালদহ জেলার সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য জামিল ফেরদৌস বলেন, এ রাজ্যে গণতন্ত্র নেই। মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ইচ্ছেমতো কোনও কিছু শেয়ার করতে পারছেন না। এর জন্য জেল খাটতে হচ্ছে। পুলিস প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়ে কোনও সুরাহা মিলছে না।

তবে উল্টো সুর শোনা যাচ্ছে বিজেপির উত্তর মালদহের সাংগঠনিক জেলার উজ্জ্বল দত্তের গলায়। তিনি জানিয়েছেন, এধরনের ঘটনা যদি সত্যি হয়ে থাকে, তাহলে তা অন্যায়। এটা পশ্চিমবঙ্গের কালচার নয়। বিরোধ যাই থাকুক না কেন, মুখ্যমন্ত্রীর ছবি বিকৃত করা কাঙ্খিত নয়। যদি বিরোধীদের ফাঁসানোর জন্য তৃণমূল এ কাজ করে থাকে, তাহলে তা নিন্দনীয়।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন