২৪ এপ্রিল, ২০২৪

Anubrata: জামিন বিরোধিতায় ফিরহাদের 'বীরভূমের বাঘ' মন্তব্যকে সিবিআইয়ের ঢাল, আবারও জেল অনুব্রতর
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2022-11-11 17:19:02   Share:   

ফের খারিজ অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mondal) জামিনের আবেদন। আরও ১৪ দিন অর্থাৎ ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত আসানসোল জেলেই থাকতে হবে বীরভূম তৃণমূলের সভাপতিকে। শুক্রবার জামিনের শুনানিতে প্রভাবশালী তত্ত্বেই তৃণমূল নেতার জামিনের (Bail Plea) বিরোধিতা করে সিবিআই। বিশেষ করে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের (Firhad Hakim) সাম্প্রতিক মন্তব্যকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করে কেন্দ্রীয় সংস্থা (CBI)। সিবিআইয়ের আইনজীবীর সওয়াল, 'রাজ্যের মন্ত্রী জেলায় গিয়ে বলছেন উনি বাঘ। তাহলে বুঝুন কতটা প্রভাবশালী অনুব্রত মণ্ডল। গরু পাচারের মূল উদ্দেশ্য ছিল টাকা তোলা। তাই এই বেআইনি রাস্তা বেছে নেওয়া হয়েছিল। টাকা ছিল এই বেআইনি ব্যাবসার মূল উদ্দেশ্য। এই অভিযুক্ত (পড়ুন অনুব্রত মণ্ডল) নিজের দেহরক্ষীর মাধ্যমে টাকা তুলতেন।'

সিবিআইয়ের এহেন সওয়ালের পাল্টা অনুব্রতর আইনজীবী জানান, সিবিআই বলছে আমার মক্কেল প্রভাবশালী। জামিন পেলে নথি নষ্ট করবেন। সাক্ষীদের ভয় দেখাবেন। আমার প্রশ্ন মক্কেল তো জানেন না এই মামলায় কারা সাক্ষী। তাহলে তাদের ভয় দেখাবেন কী করে?

আমাদের রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা তো এত খারাপ নয়! সিবিআই বলছে, রাজ্য সরকারের অধিকারিকদের কাজে লাগিয়ে আমার মক্কেল এসব কাজ করেছেন। তাহলে সিবিআই কি বলতে চাইছে রাজ্য সরকারের সব আধিকারিক দুর্নীতিগ্রস্থ?

তাঁর যুক্তি, 'বারবার বলা হচ্ছে প্রাথমিক পর্যায়ে তদন্ত। এভাবে চলতে থাকলে তদন্ত শেষ হবে না। ঠিক যেমন ভাবে সারদা কেস চলছে। এভাবে চললে, এক সময়  আর কেউ কিছু বলতে পারবেন না। আমার মক্কেলের বয়স আরও বাড়বে। তখন কিছু বলতে পারবেন না। গরু পাচার মামলায় যারা মূল অভিযুক্ত, তাঁদের মধ্যে অধিকাংশ এখন জামিন পেয়েছেন। আমার মক্কেল তো পাচার-কাণ্ডের সাক্ষী হিসাবে ছিলেন। তাহলে তাঁকে কেন জামিন দেওয়া হবে না?'

দু'পক্ষের এহেন সওয়াল-জবাব শেষে শুনানির পর কিছুক্ষণ রায়দান স্থগিত রাখেন বিচারক। অবশেষে বেলা বাড়লে জামিনের আবেদন খারিজ করে অনুব্রত মণ্ডলকে ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত জেলে পাঠায় আদালত।


Follow us on :