ব্রেকিং নিউজ
A-businessman-was-severely-beaten-for-not-being-able-to-pay-the-subscription-accused-4-club-members
Durgapur: চাঁদা না দিতে পারায় বেধড়ক মারধর এক ব্যবসায়ীকে, অভিযুক্ত ৪ ক্লাব সদস্য

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-10-17 10:35:12


চাঁদার জুলুমবাজি। ক্লাবের দাবিমাফিক চাঁদা দিতে না পারাতে এক ব্যবসায়ীকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ ক্লাবের চার সদস্যর বিরুদ্ধে। ঘটনাস্থল দুর্গাপুর (Durgapur)। ইতিমধ্যেই ওই ব্যবসায়ী ক্লাবের (club) চার সদস্যর বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ (written complaint) দায়ের করছেন।

ঘটনার সূত্রপাত, দুর্গাপুজোর চাঁদা চাওয়াকে কেন্দ্র করে। বেনাচিতির মহিস্কাপুর প্লটে ফার্নিচারের একটি ওয়ার্কশপ রয়েছে মিথিলেশ শর্মা নামে এক ব্যবসায়ীর (businessman)। অভিযোগ, স্থানীয় একটি ক্লাবের সদস্যরা দুর্গাপুজোর সময় পঞ্চাশ হাজার টাকা দাবি করে তাঁর কাছ থেকে। এক দু হাজার টাকা দেওয়া সম্ভব কিন্তু পঞ্চাশ হাজার টাকা দেওয়া সম্ভব নয় বলে সাফ জানিয়ে দেন ওই ব্যবসায়ী। তবে তখনকার মতো ব্যাপারটা ধামা চাপা পড়ে গেলেও দুর্গাপুজো মিটতেই ফের স্থানীয় ওই ক্লাবের জনা চারেক সদস্য দাদাগিরি শুরু করে দেন বলে অভিযোগ।

ব্যবসায়ীর অভিযোগ, ফোনে প্রায়সই তাঁরা পঞ্চাশ হাজার টাকার জন্য দাবি জানাতে থাকেন। এই ঘটনার অশান্তি চরমে পৌঁছয় গত শনিবার সন্ধ্যা নাগাদ। ব্যবসায়ী মিথিলেশ শর্মার অভিযোগ, সেদিন আচমকা অভিযুক্ত চার ক্লাব সদস্য তাঁকে ক্লাবের সামনে ডাকেন। দাবি করেন পঞ্চাশ হাজার টাকাই দিতে হবে। এক দু হাজারে চলবে না। ব্যবসায়ী ফের তাঁর অসামর্থর কথা জানিয়ে দেন। এরপর তাঁর ওয়ার্কশপের সামনে অভিযুক্ত চার সদস্য তাঁদের অন্যান্য সঙ্গীদের নিয়ে এসেন, প্রথম দোকানের বৈধ নথি দেখতে চান। এরপর ব্যবসার ট্যাক্স দেওয়া আছে কিনা তার নথি দেখতে চান। জিএসটি দেওয়া আছে কিনা তার কাগজও দেখতে চান। কিন্তু এবার রুখে দাঁড়ান ব্যবসায়ী আর তাঁর স্ত্রী ও এক ভাই। অভিযোগ, এরপরেই অভিযুক্ত ক্লাব সদস্যরা ব্যবসায়ীর সঙ্গে দু এক কথা বলতে বলতে মারধর শুরু করে দেন। তাঁর স্কুটি ফেলে দেওয়া হয়। শাসনি দেওয়া হয়, যতদিন ওই পঞ্চাশ হাজার টাকা না দিতে পারবেন ততদিন ওয়ার্কশপ বন্ধ রাখবেন। নিরাপত্তাহীনতায় ভোগা ব্যবসায়ী শেষ পর্যন্ত স্থানীয় পুলিস প্রশাসনের দ্বারস্থ হন। দুর্গাপুর থানার অন্তর্গত এজোন ফাঁড়িতে গিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ন্যায় বিচারের আর্জি জানান প্রশাসনের কাছে।

যদিও মারধরের যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এক অভিযুক্ত ক্লাব সদস্যরা। তাঁরা ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে পাল্টা এলাকায় অশান্তি তৈরির অভিযোগ আনেন। সন্ধ্যা নামলেই ওই ওয়ার্কশপে মদের আসর শুরু হয়ে যেত, পাড়ার লোক লিখিত অভিযোগ জানিয়েছিল ক্লাবে। শনিবার সেই জন্যই এসব না করার জন্য ওয়ার্কশপে গিয়েছিলেন তাঁরা, উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় এ কথা ঠিক কিন্তু মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করেন অভিযুক্ত এক ক্লাব সদস্য।

তবে অভিযোগ পেয়ে পুলিস এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন