ব্রেকিং নিউজ
A-businessman-was-killed-for-business-rivalry-in-asansol
Bankura: ১০ লক্ষ টাকার জন্য আসানসোলের ব্যবসায়ীকে খুনের পর বাঁকুড়ার জঙ্গলে ফেলল দুষ্কৃতীরা

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-08-28 17:11:30


আসানসোলের (Asansol) এক ব্যবসায়ীকে খুন (murder) করে হাত পা বেঁধে কার্টুনবন্দী করে বাঁকুড়ার (Bankura) জঙ্গলে ফেলে দেওয়ার ঘটনা। নৃশংস এই ঘটনায় বাঁকুড়ার শালতোড়া থানার পুলিস গ্রেফতার (arrest) করেছে দুই অভিযুক্তকে। জানা যায়, টাকা আদায় নিয়ে ব্যবসায়িক ঝামেলা, আর তার জেরেই এই খুন বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিসের (police)। ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে তথ্য জানার চেষ্টা চালাচ্ছে শালতোড়া থানার পুলিস।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার বিকেলে বাঁকুড়া শালতোড়া থানার ঝগড়াডিহি এলাকায় হাত পা বাঁধা কার্টুনবন্দী এক ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করে শালতোড়া থানার পুলিস। মৃতদেহ দেখেই পুলিস অনুমান করে, খুন করে ফেলা হয়েছে এই মৃতদেহ। বাঁকুড়া জেলা বিভিন্ন থানা এলাকায় মিসিং ডায়রির কেস কোথাও রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখার কাজ শুরু হয়। পরে পুলিস জানতে পারে আসানসোলের হীরাপুর থানায় বৃহস্পতিবার এক ব্যবসায়ীর মিসিং ডায়রির রয়েছে। সেই ব্যবসায়ীই এই উদ্ধার হওয়া ব্যক্তি কিনা তা জানার কাজ শুরু হয়। এরপর পুলিস জানতে পারে উদ্ধার হওয়া মৃতদেহ ওই নিখোঁজ ব্যবসায়ী সইদ মহম্মদ তৌফিক নিমডাঙা জামুড়িয়ার বাসিন্দা। 

ঘটনা তদন্তে নেমে পুলিস বিভিন্ন নথি উদ্ধারের পাশাপাশি কার্টুন থেকেও বিভিন্ন তথ্য উদ্ধার করে। মৃতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে। শুক্রবার রাতেই হীরপুর থানা এলাকা থেকে সন্দেহজনকভাবে গোলাম জিলামি ওরফে গোল্ডি নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে পুলিস। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই পুলিসের কাছে খুনের ঘটনা স্বীকার করে সে। আরও তথ্য জানতে শনিবার অভিযুক্ত গোল্ডিকে বাঁকুড়া জেলা আদালতে তোলা হয়। এরপর ৭ দিনের পুলিস হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। হেফাজতে নিয়ে খুনের ঘটনার বিস্তারিত পুলিসের হাতে উঠে আসে। 

এই ঘটনায় পুলিস সুপার জানিয়েছেন, ব্যবসায়িক সম্পর্ক ছিল অভিযুক্ত গোল্ডির সঙ্গে মৃত তৌফিকের। পুলিসি জেরায় গোল্ডি জানিয়েছে, তৌফিকের কাছে ১০ লক্ষ টাকা পাওনা ছিল তার। কিন্তু টাকা চাইলেও তিনি দিচ্ছিলেন না। তাই তৌফিককে খুন করা পরিকল্পনা করে গোল্ডি। বৃহস্পতিবার রাতে হীরপুরের একটি অ্যাপার্টমেন্টে খাবারে বিষ মিশিয়ে তৌফিককে বেহুঁশ করে শ্বাসরোধ করে খুন করে। এরপরে কাদের খান নামে আরও একজনের সহযোগিতায় তৌফিকের মৃতদেহ হাত পা বেঁধে কার্টুনবন্দী করে মোটর বাইকে চাপিয়ে গোপন পথ ধরে দামোদর নদ পেরিয়ে শালতোড়া ঝগড়াডিহি এলালায় রাস্তায় ধারে ফেলে দিয়ে চম্পট দেয় গোল্ডি ও কাদের।  

পুলিস ইতিমধ্যেই গোল্ডিকে ৭ দিনের পুলিস হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছিল, এরপর এই তথ্য উদ্ধার করে গ্রেফতার করা হয় কাদের খানকেও। রবিবার কাদের খানকে তোলা হয় বাঁকুড়া জেলা আদালতে। ধৃতকে নিজেদের হেফজতে নিতে আদালতে আবেদন করছে পুলিস। 






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন