ব্রেকিং নিউজ
  Weather Update: একাধিক জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা, কমছে না গরম     Delhi: স্টেডিয়াম শূন্য করে কুকুর নিয়ে হাঁটার ফল, আইএএস অফিসার বদলি লাদাখে     Indonesia: ২০ লক্ষ টন ভোজ্য তেল পাঠিয়েছে ইন্দোনেশিয়া, বাজারে দাম কমার আশা     Assam: অসমে ভয়াবহ বন্যায় বাড়ছে মৃত্যু     Shawkat molla: সিবিআই দফতরে হাজিরা এড়িয়ে ১৫ দিন সময় চাইলেন শওকত মোল্লা     Corona Update: টানা ঊর্ধ্বমুখী দেশের করোনা সংক্রমণ     Manjusha: বিদিশার বন্ধু মডেল অভিনেত্রী মঞ্জুষা নিয়োগীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার পাটুলির বাড়ি থেকে     Salt Lake: পারলৌকিক ক্রিয়ার জন্য ২০ হাজার টাকা রেখে আত্মঘাতী মা ও মেয়ে?     Char Dham Yatra: চারধাম যাত্রার শুরুতেই ছন্দপতন, এখনও পর্যন্ত মৃত্যু ৭৪ জনের     Bidisha: মডেল বিদিশার মৃত্যুতে বন্ধু অনুভবকে তলব করল নাগেরবাজার থানা     Domestic Violence: স্বামীকে ব্যাট দিয়ে নির্মমভাবে পেটায় স্ত্রী! জেনে কড়া নির্দেশ দিল আদালত      CM Mamata: রাজ্য মন্ত্রিসভায় বড়সড় বদল আনবেন মমতা?     Rice: চড়া বাজারদর নিয়ন্ত্রণে গম, চিনির পর রফতানিতে লাগাম কি চালেও?     Modi: ড্রোন দিয়ে চুপিসারে নজর রাখেন মোদী, নিজেই ফাঁস করলেন গোপন তথ্য     Nurse: অভাব মেটাতে এবার নার্সদেরও ডাক্তারির প্রশিক্ষণ রাজ্যে     Survey: শিক্ষাক্ষেত্রে হতাশার চিত্র! পঞ্জাব-রাজস্থান ছাড়া সব রাজ্যেই মান নিম্নমুখী     Booker: হিন্দি উপন্যাস লিখে প্রথম বুকারজয়ী ভারতীয় গীতাঞ্জলী শ্রী     Marriage: বিয়ে সারলেন 'লালকুঠি' ও 'আমার দুর্গা' ধারাবাহিকের নায়ক ঋতজিৎ, দেখুন ছবি     Murder: মাত্র ২০০ টাকার জন্য সহকর্মী রুমমেটকে খুন! হাওড়ার ঘটনায় তাজ্জব পুলিসও     Dhawan: শিখর ধাওয়ানকে লাথি-ঘুষি মারলেন বাবা! মাটিতে লুটিয়ে পড়লেন ক্রিকেটার, ভাইরাল ভিডিও     Aryan Khan: মাদককাণ্ডে যুক্ত থাকার প্রমাণ মেলেনি, শাহরুখ-পুত্রকে ক্লিনচিট দিল এনসিবি     Tripura: এবার তৃণমূল ছাড়লেন আশিস দাস, 'তৃণমূলের নেতারা বাটপার', দাবি প্রাক্তন বিধায়কের     Online: অনলাইন-অফলাইন তরজা অব্যাহত, বিক্ষোভে উত্তাল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়     Riots: দিল্লি দাঙ্গায় পুলিসের দিকে বন্দুক তাক করা শাহরুখ জেল থেকে বেরোতেই 'জামাইআদর'!     Ankita: মন্ত্রী-কন্যা অঙ্কিতার নাম উঠলো এবার কলেজ চাকরিতে!     Uttarakhand: নাতনিকে শ্লীলতাহানির মামলা দায়ের পুত্রবধূর, সহ্য করতে না পেরে আত্মঘাতী প্রাক্তন মন্ত্রী!     Jail: আয়ের থেকে সম্পত্তির পরিমাণ ১০৩ গুণ বেশি! ৪ বছরের জেল প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর     Ssc: বাম ছাত্র-যুবদের বিক্ষোভে উত্তাল করুণাময়ী, পুলিসের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ  
The-price-of-rice-is-also-increasing-by-huge-amount
Rice: হু হু করে বাড়ছে চালের দামও, দাঁও মারছে ফড়েরা?


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-05-13 18:27:26


অগ্নিমূল্য বাজারে জিনিসপত্রের দাম। আলু (potato) থেকে মাংস, কিংবা মাছ- সবটাই ধীরে ধীরে মধ্যবিত্তের নাগালের বাইরেই চলে যাচ্ছে। ক্রমাগত বাড়ছে দাম। সামনেই জামাইষষ্ঠী। এই সময় এমনিতেই কিছু জিনিসের দাম বেশি থাকে। কিন্তু এবছর তা আর মধ্যবিত্তের হাতের নাগালে নেই। অনেকেই দায়ী করছে পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধিকে। অনেকেই আবার মনে করছেন, বৃষ্টিতে (rain) যেহেতু প্রচুর ফসল নষ্ট হয়েছে, তাই এই দাম বৃদ্ধি। কিন্তু শুধু সবজি ও মাছ-মাংস নয়। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে চালের (rice) দামও।

হুগলি (hooghly) জেলায় চিত্রটা কিছুটা এইরকম। খুচরো মার্কেটে পুরনো মিনিকিট চালের দাম ৫০ টাকা প্রতি কেজি। নতুন মিনিকিট চালের দাম ৩৮ থেকে ৪০ টাকা কেজি। স্বর্ণমাসুরি চালের দাম ২৬ থেকে ২৮ টাকা কেজি। গত বছর যে মিনিকিট চাল ৪০ টাকা প্রতি কেজি খুচরো মার্কেটে বিক্রি হচ্ছিল, সেই চাল এবছর কেজি প্রতি ১০ টাকা বেড়ে ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অন্যান্য চালের দাম প্রায়ই একই আছে।

রাজ্যে কিষাণ মাণ্ডিতে সহায়ক মূল্যে ধান কেনা শুরুর পর থেকে কিছুটা হলেও ফড়েরাজ কমেছে। তবে বর্তমানে কিষাণ মাণ্ডিতে কৃষকরা যেতে চান না একাধিক কারণে। সুকৌশলে সেই মাণ্ডি দখল করেছে ব্যবসায়ী থেকে মিল মালিকরা। ফলে চালের দাম বাড়লেও চাষিরা যে তিমিরে ছিলেন, সেই তিমিরেই আছেন। অর্থাৎ চালের দাম বাড়লে লাভবান হন মিল মালিক থেকে ব্যবসায়ীরা। অন্যদিকে গত আমন ধানের মরশুমে চাষের যেভাবে ক্ষতি হয়েছিল, সেই ক্ষতির বিমাই পাননি ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ চাষি। যদিও গত বছরের থেকে এবছর ৭২ টাকা বেড়ে এবছর কিষান মাণ্ডিতে ধানের সহায়ক মূল্য হয়েছে ১৯৬০ টাকা।

এই বিষয়ে চাল বিক্রেতারা জানান, চালের দাম কমার বদলে দিন দিন আরও বাড়বে। কমার কোনও আশা নেই।

প্রসঙ্গত, হুগলি জেলা আমন ধান উৎপাদনে রাজ্যে দ্বিতীয়। বর্ধমানের পরই হুগলি জেলার মূল অর্থকরী ফসলের মধ্যে ধানও অন্যতম। জেলায় আমন ধান চাষ হয় প্রায় ১ লক্ষ ৭২ হাজার হেক্টর জমিতে।

গত মরশুমে আমন চাষের শুরু থেকেই বিপত্তি শুরু হয়। জুন মাসে প্রথম পর্যায়ে বীজ নষ্ট হয় অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে। তারপরও আবার নতুন করে চাষ শুরু করেন চাষিরা। গত বছর জুলাইয়ের শেষ এবং আগস্টের শুরুতে টানা বর্ষণের জেরে ধান চাষে ব্যাপক ক্ষতি হয়। ধান তোলার সময়ও নিম্নচাপের কারণে বৃষ্টির ফলে বেশিরভাগ জমিতে পাকা ধান মাঠেই নষ্ট হয়। বিঘা প্রতি ১৪ মন ধান ফলার জায়গায় আট থেকে দশ মনের বেশি ধান তুলতে পারেননি চাষিরা। অন্যদিকে, গত বছর বোরো ধান চাষ অনেকটাই কম হয়েছিল এই জেলায়।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন