ব্রেকিং নিউজ
Even-grassroots-activists-angry-over-Paresh-Partha-unprecedented-posts-on-social-sites
Paresh Partha: পরেশ-পার্থ নিয়ে ক্ষুব্ধ তৃণমূল কর্মীরাও, সোশ্যাল সাইটে অভূতপূর্ব পোস্ট

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-05-21 13:50:22


পরেশ, পার্থ নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছে তৃণমূলের কর্মীদের। এসএসসি বা শিক্ষাক্ষেত্রে নিয়োগে যে বেআইনি কাজ হয়েছে, তা আজ অনেকটাই তদন্ত প্রক্রিয়ায় পরিষ্কার। সিবিআই এরই মধ্যে বর্তমান শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীকে দুবার জেরা করেছে, বৃহস্পতি ও শুক্রবার। আজ শনিবার ফের সিবিআই দফতরে গিয়েছেন পরেশ। সঙ্গে থাকতে পারেন শিক্ষাসচিব। ববিতা নামে এক প্রার্থী চাকরির পরীক্ষায় মনোনীত হওয়ার পর জানা গিয়েছে, তাঁর নাম সরিয়ে পরেশ অধিকারীর কন্যা অঙ্কিতার নাম লিপিবদ্ধ করা হয়েছে সরকারি লিস্টে। এই ঘটনা সামনে চলে আসে তখনই, যখন এসএসসি চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন তুঙ্গে, যখন অবস্থান থেকে অনশন-প্রতিবাদ চলছে জোরকদমে।

এই রিক্রুটমেন্ট প্রক্রিয়াই বেআইনি ঘোষিত হয়েছে উচ্চ আদালতে। জড়িয়ে গিয়েছে প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাম। আদালতের নির্দেশে পার্থবাবুর ডাক এসেছিল সিবিআই দফতর থেকে। নিজাম প্যালেসে সিবিআই দফতরে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন পার্থবাবু। এই তদন্ত যে বিরাট সংকট ডেকে আনবে, তা বলাই বাহুল্য। বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় এখন পার্থবাবুর সম্পত্তি নিয়েও মন্তব্য করেছেন আদালতে।

ইদানিং এই ঘটনার মস্ত ছাপ পড়েছে আমজনতার মধ্যে। মদন মিত্র, মুকুল রায়, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমুখ নেতার বিরুদ্ধে সিবিআই তৎপরতার বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিল তৃণমূলের সর্বস্তরের কর্মীরা। নেতাদের পাশে দাঁড়িয়েছিল তারা। তারা কারা? তারাই তৃণমূলের সারা বছরের কর্মী-সমর্থক। এরাই মিছিল-মিটিং করে, এরাই ভোটার স্লিপ থেকে ভোটের সময়ে জান লড়িয়ে পরিশ্রম করে দলের প্রার্থীকে জিতিয়ে আনে। এরাই দলনেত্রীর ভাষায়, দলের সম্পদ। সেই সম্পদরা আজ ক্ষুব্ধ। সরকারি চাকরির দাবিদাররা কেউই রাজনৈতিক কর্মী নয়, আর থাকলেও সব দলের সমর্থক তারা।

এছাড়া আজকের দুর্দিনের চাকরির বাজারে তারা চাকরির পরীক্ষায় পাশ করার পরেও চাকরি পাচ্ছে না। তাদের স্থানে অজানা কারা চাকরি বেআইনিভাবে পেয়েছে, প্রশ্ন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের। কেন এত বড় কেলেঙ্কারি হল, এই নিয়ে তারা বেপরোয়াভাবে সোশ্যাল নেটওয়ার্কে পোস্ট ছাড়ছে পার্থ-পরেশের বিরুদ্ধে, যা অভূতপূর্ব। মানব জীবনে বেঁচে থাকার ক্ষেত্রে পেটে লাথি পড়লে কেউ কি আর চুপ করে থাকতে পারে। ফলে ভাবনা বাড়ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, কারণ আজও তিনি জনতার চোখের মণি। এবার দেখার, তিনি কী প্রতিক্রিয়া জানান।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন