ব্রেকিং নিউজ
Baghda-Parmadan-Tourist-Center-has-fallen-into-problem-due-to-administrative-indifference
Tourism: প্রশাসনিক উদাসীনতায় মুখ থুবড়ে পড়েছে বাগদার পারমাদন পর্যটন কেন্দ্র

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-04-07 22:46:39


প্রশাসনিক উদাসীনতায় বাগদার পারমাদন পর্যটন কেন্দ্রের (বিভূতিভূষণ অভয়ারণ্যের) আকর্ষণ কমেছে পর্যটকদের কাছে৷ এখন আর খুব বেশি পর্যটক আসেন না এখানে। সমস্যায় স্থানীয় ব্যবসায়ী, মাঝি, হোটেল ব্যবসায়ী সহ আশপাশের বাসিন্দারা।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, অতীতে এখানে হরিণের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রকার বিদেশি পাখি, জীবজন্তু থাকত৷ তার টানে কলকাতা সহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পর্যটকরা ছুটে আসতেন। স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীরা ভিড় করত। এখন হরিণ ছাড়া কিছুই নেই৷ তার উপর অত্যাধিক প্রবেশমূল্য, মাথাপিছু ১২০ টাকা।

স্থানীয় মাঝি ও ব্যবসায়ীরা বলেন "একে অভয়ারণ্যে এখন কোনও বন্যপ্রাণী নেই বললেই চলে৷ অন্যদিকে এত প্রবেশমূল্যের কারণে পর্যটকরা আর আসছেন না৷ পারমাদন ফরেস্টকে কেন্দ্র করে এলাকার বিকল্প যে অর্থনীতি গড়ে উঠেছিল, তা মুখ থুবড়ে পড়েছে৷

পারমাদন অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া এলাকা। বেশিরভাগ মানুষ জনমজুরি করে দিন কাটান। বছরভর কাজ থাকে না। ফরেস্টকে কেন্দ্র করে এখানে তৈরি হয়েছিল হোটেল। পার্শ্ববর্তী ইছামতি নদীতে নৌকা বিহারের জন্য জনা কুড়ি-পঁচিশ মাঝি রয়েছেন। দূর-দূরান্ত থেকে পর্যটকরা এসে সেখানে থাকতেন। পর্যটকদের বাইক এবং সাইকেল রাখার জন্য তৈরি হয়েছিল ঘর। পাশাপাশি স্থানীয় মানুষজন বিভিন্ন দোকানের পসরা সাজিয়ে বসতেন। পারমাদন অভয়ারণ্যকে ঘিরে স্বপ্ন দেখেছিলেন এলাকার বাসিন্দারা৷ 

অথচ এখন প্রায় ফাঁকাই পড়ে থাকে ফরেস্ট এলাকা। পর্যটকদের আনাগোনা কমে যাওয়ায় প্রশাসনের বিরুদ্ধে উদাসীনতার অভিযোগ এনেছেন বাসিন্দারা।

প্রবেশমূল্য বেড়ে যাওয়ার ফলেই যে সমস্যার সৃষ্টি, তা স্বীকার করে নিয়েছেন তৃণমূল বনগাঁ সাংগঠনিক জেলা সভাপতি গোপাল শেঠ। এ ব্যাপারে বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন