লকডাউনে বন্ধ পরিষেবা, খরচ কমাতে কর্মী ছাঁটল দক্ষিণ-পূর্ব রেল

0

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে একমাসের ওপর বন্ধ রয়েছে যাত্রীবাহী ট্রেনের চাকা। ফলে রেলের ভাঁড়ারে টান পড়েছে। ইতিমধ্যেই রেল সহ কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের ডিএ বন্ধ করেছে কেন্দ্র। এরমধ্যেই বাড়তি কর্মী ছাঁটাইয়ের পথে হাঁটল দক্ষিণ-পূর্ব রেল। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই ৯৩ জন চুক্তিভিত্তিক কর্মচারীকে ছাঁটাইয়ের নির্দেশ ধরানো হয়েছে। জানা যাচ্ছে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের ওই কর্মীরা অবসরের পর ফের চুক্তির ভিত্তিতে কাজ করছিলেন। এদের মধ্যে ৯১ জন নন-গেজেটেড ও ২ জন গেজেটেড র‍্যাঙ্কে কর্মরত ছিলেন। দক্ষিণ-পূর্ব রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, যাত্রীবাহী ট্রেন বন্ধ থাকায় আপাতত তেমন কাজের চাপ নেই। পাশাপাশি ওই কর্মীদের বয়স ষাটের বেশি হওয়ায় করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় তাঁদের আর রাখা হচ্ছে না। সূত্রের খবর, গত ২২ এপ্রিলই এই সংক্রান্ত নির্দেশ দিয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষ। ছাঁটাই হওয়া কর্মীদের বেশিরভাগই রেলের অপারেশন বিভাগে কর্মরত ছিলেন বলে জানা যাচ্ছে। দক্ষিণ-পূর্ব রেল এই ধরনের কর্মীদের ছাঁটাই করলেও পূর্ব রেলের তরফে কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি বলেই জানা গিয়েছে। সেখানেও প্রায় হাজার দেড়েক চুক্তিভিত্তিক অবসরপ্রাপ্ত কর্মী কাজ করছেন। রেল সূত্রে খবর, পুনর্নিয়োগ হওয়া অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরা অর্ধেক পেনশন পান। ফলে বর্তমান বেতন ও পেনশন মিলিয়ে প্রায় মাসমাইনের পুরো টাকাই হাতে পেতেন ওই কর্মীরা। তবে চুক্তিভিত্তিক অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্তকে স্বাগতই জানিয়েছে ইউনিয়নগুলি।