কমল টাকার দাম, সতর্কবাণী বিশেষজ্ঞদের

0
236

ডলারের নিরিখে কমল টাকার দাম। সোমবারে এক মার্কিন ডলারের দাম পৌছায় ৬৭.১৪ টাকা। বিগত এক বছরের মধ্যে এটাই সর্বাধিক টাকার পতন বলে মনে করছেন অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। শুধু ডলার নয় পাউন্ড, ইউরো প্রভৃতি বিদেশি টাকার দামই উর্ধ্বমুখী। বিদেশি মুদ্রার সঞ্চয় কমে যাওয়া, কর্নাটকের নির্বাচন, ইরানের পরমাণু চুক্তি, বিশ্ববাজারের আর্থিক অনিশ্চয়তাকেই মুদ্রার পতনের কারণ হিসেব চিহ্নিত করছেন তাঁরা। এর প্রভাব পড়তে চলেছে শেয়ারবাজার সহ গোটা দেশের আর্থ-সমাজিক পরিস্থিতির ওপর। আরও সোজা ভাষায় বলা যায়, বেড়ে যাবে অশোধিত তেলের দাম। যাদের ছেলেমেয়ে বিদেশে পড়াশোনা করছে, সেসব অভিভাবকদের অতিরিক্ত টাকা গুনতে হবে। বিদেশ থেকে কোনও জিনিস আমদানি করতে হলে খরচ বাড়বে। রপ্তানি করলেও মুনাফার হার কমবে। আর জ্বালানি তেলের ওঠানামার সঙ্গেই প্রতিটি জিনিসের বাজারদরের উত্থান পতন ঘটে। তাই নিত্যপ্রয়োজনীয় সবকিছুর দাম যে বাড়তে চলেছে সেটা বলাই বহুল্য। সর্বোপরি ভয়াবহ মুদ্রাস্ফীতি দেখা দিতে পারে বলেও সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা।