আইনজীবী খুনের ঘটনায় স্ত্রী অনিন্দিতার যাবজ্জীবন সাজা

0
466

অবশেষে আইনজীবী রজতকুমার দে খুনের ঘটনায় স্ত্রী অনিন্দিতা পাল দে-কে যাবজ্জীবন সাজাই দিল বারাসত আদালত। রায় শুনে আদালত কক্ষেই কান্নায় ভেঙে পড়েন অনিন্দিতা। তিনি চিৎকার করে বলতে থাকেন ‘আমি নির্দোষ, আমি নির্দোষ। আমাকে ফাঁসানো হয়েছে। শেষ রক্তবিন্দু পর্যন্ত লড়াই করে যাব’। যদিও এই রায়ে খুশি নন রজতের পরিবার ও সুভানুধ্যায়ীরা। এদিন আইনজীবীরা আদালতের বাইরে বিক্ষোভও দেখিয়েছেন অভিযুক্তের সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়ার আবেদন জানিয়ে। সোমবারই স্বামীকে খুনের দায়ে দোষী সাব্যস্ত করেছিল বারাসতের ফাস্ট ট্র্যাক কোর্ট। এদিন যাবজ্জীবনের পাশাপাশি অনিন্দিতাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানাও করেছেন বিচারক।

বুধবার রায়দানের আগে অনিন্দিতার আইনজীবী সোহিনী অধিকারী বিচারকদের কাছে আবেদন করেন দোষীকে যেন সর্বোচ্চ সাজা না দেওয়া হয়। কারণ তাঁর একটি তিনবছরের সন্তান রয়েছে। বাবার আগেই মৃত্যু হয়েছে। এবার মায়ের ফাঁসি হলে সে অনাথ হয়ে যাবে। সবদিক বিবেচনা করে স্বামীকে খুনের দায়ে স্ত্রী অনিন্দিতা পাল দে-কে যাবজ্জীবন সাজাই দিয়েছেন বিচারক। উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ২৪ নভেম্বর নিউটাউনের ফ্ল্যাটেই কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবী রজতকুমার দে-র দেহ উদ্ধার হয়। প্রাথমিকভাবে এটা আত্মহত্যার ঘটনা মনে করলেও পরে পূর্ণাঙ্গ তদন্তে উঠে আসে হাড়হিম করা খুনের তথ্য। এই মামলায় ডিজিটাল মাধ্যমের তথ্য-প্রমাণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিল।