ব্রেকিং নিউজ
war-of-words-betweem-bjp-and-tmc-over-high-courts-order-to-minister-partha
Partha CBI: পার্থর সিবিআই হাজিরা, পরোক্ষে দায় ঝাড়লেন কুণাল, 'সবচেয়ে বড় দুর্নীতি', তোপ শুভেন্দুর

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-05-18 19:25:10


বুধবার হাইকোর্টের বেঁধে দেওয়া ডেডলাইনের আগেই নিজাম প্যালেসে পৌঁছন রাজ্যের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Minister Partha)। এসএসসির (SSC Recruitment) গ্রুপ-সি এবং গ্রুপ-ডি পদে নিয়োগ-সহ একাধিক দুর্নীতির তদন্তে সিবিআই (CBI) জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তেই এদিন সাড়ে ৫টার কিছু পরে কেন্দ্রীয় সংস্থার দফতরে পৌঁছন পার্থবাবু। আর হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ এদিন রাজ্যের মন্ত্রীর উপর থাকা রক্ষাকবচ তুলে নিতেই সরগরম রাজ্য রাজনীতি। তৃণমূলের (TMC) মুখপাত্র কুণাল ঘোষের দাবি, 'কারও কোনও ভুল বা অসতর্কতায় ছাত্রছাত্রীদের ক্ষতি হলে, তার জন্য দল বা গোটা সরকারকে দায়ী করবেন না'

তিনি জানান, যাঁদের নাম আসছে, আইনি লড়াইয়ের দায়িত্ব তাঁদের। কোনওধরনের আপত্তিকর কাজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বা তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থন করছে না। এভাবেও এই কাণ্ড থেকে তৃণমূল-সহ মমতা সরকারকে দূরে রাখার চেষ্টা করেন শাসক দলের মুখপাত্র। তাঁর মন্তব্য, 'একজন বা দু'জনের জন্য বাংলাজুড়ে চলা মমতা সরকারের এত ভালো কাজগুলোকে কলুষিত করবেন না।' তদন্ত চলবে, সেই তদন্তের মধ্যে দিয়ে ভালো-খারাপ, ঠিক-ভুল বেড়িয়ে আসবে। এই দাবি করে এদিন বিরোধী দলকে দুষেছেন কুণাল ঘোষ। এদিন তাঁর প্রশ্ন, 'কেন শুভেন্দু অধিকারী এখনও গ্রেফতার হয়নি। নারদা এফআইআরে নাম থাকলেও উনি ঘুরে বেড়াচ্ছেন। সিবিআই নিরপেক্ষ হলে আগে শুভেন্দু অধিকারীকে গ্রেফতার করুক।'

তবে কারও কাজে যদি সত্যি দেখা যায় ছাত্র স্বার্থ বিঘ্নিত হয়েছে, সেই অন্যায় কাজকে সমর্থন করবে না তৃণমূল কংগ্রেস বা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এভাবেই এদিন এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি-কাণ্ডে তৃণমূল-সহ সরকারের অবস্থান স্পষ্ট করেন কুণাল ঘোষ। 

তবে শাসক দলের তরফে অবস্থান স্পষ্ট করা হলেও, বিরোধিতার ময়দান ছাড়তে নারাজ বিরোধী শিবির। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর খোঁচা, 'কান টানলে মাথা আসবে। স্বাধীনতার পর সবচেয়ে বড় নিয়োগ দুর্নীতি। এসএসসি উপদেষ্টা কমিটি গড়েন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। দুর্নীতির মূলে তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী। দুর্নীতি করতেই এসএসসি কমিটি।' এদিন তিনি শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর সিবিআই দফতরে হাজিরা নিয়েও সরব ছিলেন। বিরোধী দলনেতার দাবি, 'মমতার নির্দেশেই মন্ত্রীর মেয়েকে শিক্ষিকা হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে। পরেশ অধিকারীর মেয়ের অবৈধ নিয়োগ হয়েছে। তৃণমূলে যোগদানের আগে পরেশ অধিকারী তিনটি শর্ত রেখেছিলেন। যার মধ্যে অন্যতম সব নিয়ম ছাপিয়ে তাঁর মেয়েকে শিক্ষিকা হিসেবে নিয়োগ করতে হবে।' 

বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার জানান, কোর্টের রায়কে স্বাগত। তবে ভবিষ্যতে দেখতে পারি জনগণের টাকায় চোরদের বাঁচাতে সুপ্রিম কোর্টে দ্বারস্থ হবে। আমাদের বিচার ব্যবস্থার প্রতি বিশ্বাস আছে। পার্থ চট্টোপাধ্যায় বা উপদেষ্টা কমিটি হিমশৈলের চূড়ামাত্র। সিবিআই তদন্ত করলে কোথায় কী, কে কীভাবে জড়িত সব সামনে আসবে।

সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের রায় সামনে আসতেই এদিন দুপুরে দাবি করেন, 'দুর্নীতি রন্ধ্রে রন্ধ্রে। মেয়ের নিয়োগে প্রতিমন্ত্রী জড়িত, গ্রুপ-সি,গ্রুপ-ডি নিয়োগে মন্ত্রীর নাম। শিক্ষা মন্ত্রককে কলুষিত করেছে। সিবিআই ডেকেছে, উধাও বা উডবার্ন ওয়ার্ডে যাবেন না তো? অবিলম্বে মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দিয়ে হাজিরা দিন সিবিআইয়ের কাছে।'






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন