হাতে প্লাস্টার, তবুও চারতলার OT থেকে পাইপ বেয়ে পালাচ্ছিলেন রোগী

0
53

হাতে রয়েছে প্লাস্টার, সেটা নিয়েই এক ব্যক্তি চারতলা থেকে পাইপ বেয়ে নীচে নামার চেষ্টা করছেন। সোমবার দুপুরে এই দৃশ্য দেখে চক্ষু চড়কগাছ সাধারণ মানুষের। ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের ঘটনা। শেষ পর্যন্ত দমকলকর্মীরাই ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করলে হাফ ছেড়ে বাঁচেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। জানা গিয়েছে, এদিনই সুদর্শন দন্ডপাঠ নামে ওই ব্যক্তির হাতের অপারেশন করার কথা ছিল। সেই মতো তাঁকে ঝাড়গ্রাম হাসপাতালের চারতলার ওটিতে (OT Room) নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কিন্তু সেখানে নিয়ে যাওয়ার পরই ভয় পেয়ে যান ওই ব্যক্তি। সুযোগ বুঝে ওটির জানলা দিয়ে কার্নিশে চড়ে বসেন তিনি। তারপর পাইপ বেয়ে নামার চেষ্টা করতে থাকেন ওই রোগী।

রাস্তা থেকে এই দৃশ্য প্রথম দেখতে পান স্থানীয়রা। তাঁরা বিপদের আশঙ্কা করতে থাকেন। হাসপাতালের বাইরে জড়ো হয়ে যান অনেকে। খবর যায় হাসপাতালের নিরাপত্তাকর্মীদের কাছে। ছুটে আসেন তাঁরাও। খবর যায় পুলিশ ও দমকলে। হাসপাতালের নিরাপত্তাকর্মীরাই ওই ব্যক্তিকে প্রথমে বিরত করেন পাইপ বেয়ে নামতে। এরপর দমকলকর্মীরা এসে ছাঁদ থেকে দড়ি বেঁধে ওপর তোলা হয় ওই রোগীকে। ফলে বড়সড় বিপদের হাত থেকে রক্ষা পান জামবনী থানার চিল্কিগড় এলাকার বাসিন্দা সুদর্শন দন্ডপাঠ। ঝাড়গ্রাম জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রকাশ মৃধা স্বীকার করে নিয়েছেন এই ব্যাপারটা। তিনি বলেন, ‘ওই রোগী অপারেশন থিয়েটার (OT) থেকে পালিয়ে গিয়েছিলেন। আমাদের ধারণা, ভয় পেয়েই তিনি এই কাণ্ড করে ফেলেছেন। তবে দমকলের তৎপরতায় তাঁকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। তাঁর কোনও চোট, আঘাত লাগেনি, সুস্থই রয়েছেন।