ফিরে আসছে করোনা, আতঙ্কে ইউরোপ

0

প্যারিস ও আরও আটটি শহরে নৈশ কার্ফু জারি করল ফ্রান্স। নতুন করে করোনা সংক্রমণের ঢেউ ঠেকাতে এই ব্যবস্থা। শনিবার থেকেই কার্ফু চালু হয়ে যাবে। করোনা সতর্কতাবিধি আরও কঠোর করা হয়েছে জার্মানি ও আয়ারল্যান্ডে। ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরঁ টেলিভিশনে জাতির উদ্দেশে ভাষণে জানিয়েছেন, আগামী ৬ সপ্তাহ রাত ৯টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত নৈশ কার্ফু জারি থাকবে। প্যারিস ছাড়াও লিয়ঁ, মার্সেই, তুলুসের মতো শহরেও কার্ফু জারি হচ্ছে। ফ্রান্সে ৬ কোটি ৭০ লাখ বাসিন্দার ২ কোটিই করোনায় সংক্রমিত। তাই স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জরুরি অবস্থা বলবৎ করা হচ্ছে।

 

প্রথম দিকের করোনাসংক্রমণের ধাক্কা সামলে ওঠার পর নতুন করে সংক্রমণ বাড়ায় চিন্তায় ইউরোপের দেশগুলি। এখন অর্থনীতি বাঁচিয়ে কী করে এর মোকাবিলা করা যায় তা নিয়ে ভাবছে তারা। জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেল জমাযেত নিযিদ্ধ করা ও মাস্ক বাধ্যতামূলক করার কথা বলেছেন। বুধবারও জার্মানিতে সংক্রমণ বেড়েছে। ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার সংক্রমিত হয়েছেন। স্পেনের ক্যাটালোনিয়া অঞ্চলে আগামী ১৫ দিন সব বার, রেস্তরাঁ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। নেদারল্যান্ডসেও মদ বিক্রি বন্ধ করা হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে বার, কফিশপ, রেস্তরাঁ। কড়া নিয়ম জারি করা হয়েছে আয়ারল্যান্ডেও। সেখানেও জিম, পুল, খুচরো দোকান বন্ধ করা হয়েছে। ব্রিটেনেও কড়া ব্যবস্থা নেওয়া দাবি জোরদার হচ্ছে। দুই সপ্তাহের লকডাউনের কথাও ভাবা হচ্ছে। ইতালিতেও বুধবার সর্বোচ্চ সংক্রমণ হয়েছে, ৭,৩৩২। রোমে ইতিমধ্যেই কঠোর নিয়ম জারি হয়েছে। নিষিদ্ধ হয়েছে পার্টি, ফুটবল ম্যাচ।