Vishwakarma Puja: উৎসবের সূচনা,রাত পোহালেই বিশ্বকর্মা পুজো

হাতে আর মাত্র একদিন। রাত পোহালেই বিশ্বকর্মা পুজো। শহরের একাধিক জায়গায় পুজোর আগের দিন থেকেই বসেছে বিশ্বকর্মা ঠাকুর। বেচা-কেনা চলছে না সেভাবে। যদিও গত দেড়বছর ধরে করোনা অতিমারীর জেরে সেভাবে বিক্রি-বাট্টায় ভাটা পড়েছে।  এদিকে কুমোরটুলিতেও সেভাবে বায়না নেই। আবার এই পুজোর হাত ধরেই কিন্তু বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজো। তার একটা আমেজ প্রায় চলে এসেছে। তবে বিশ্বকর্মা কথায় আছে বিশ্বের কর্ম। অর্থাৎ প্রতিটা অফিসে কিংবা যন্ত্রপাতির দোকানে পুজো হয়ে থাকে।

তবে এই অতিমারীতে অনেকেই কিন্তু পুজো ছোট করে সারবে। যেভাবে বড় করে পুজো করার প্রবণতা অনেকটাই কমেছে। এই পুজোর আরেকটা যে রীতি আছে,সেটা ঘুড়ি ওড়ানো। ঘুড়ি,লাটাই,সুতো নিয়ে দে দৌড়। তবে আসতে আসতে যেন সব হারিয়ে যাচ্ছে। সেভাবে চোখে পড়ছেনা ঘুড়ির বিক্রিও।

একটা সময়ে বিশ্বকর্মা পুজো আসছেই মানে ঘুড়ি ওড়ানো, সুতোয় মাঞ্জা দেওয়া এগুলো চলতোই। কিন্তু এই অতিমারীর কারণে সেই উচ্ছাস কিন্তু কোথাও একটা যেনো কমে যাচ্ছে। তারমধ্যে এবার যেনো বর্ষা যাচ্ছে না। অঝোরে বৃষ্টি। কিভাবে বিক্রি হবে ঠাকুর।চরম দুর্ভোগে পড়ছে ব্যবসায়ীরা। সবমিলিয়ে বলা যায় এবছর সেভাবে জমবেনা বিকিকিনি। 


Tags:
Vishwakarma Puja
puja coming