বিজেপির মঞ্চে প্রাক্তন তৃণমূলীদের মেলবন্ধন

সোমবার বিকেলে একঝাঁক সদ্য ছেড়ে আসা তৃণমূলীদের গেট টুগেদার হল। আদি বিজেপির দিলীপ ঘোষ, সায়ন্তন বসু এবং দু একজন বাদ দিলে মনে হতেই পারে ২০১১-র ভোট জয়ের পর তৃণমূল নেতারা একত্রিত হলেন এদিন। আসলে তৃণমূলে টিকিট না পেয়ে বিদ্রোহী প্রাক্তন বিধায়করা আজ বিজেপিতে যোগ দিলেন হেস্টিংসের নির্বাচনী কার্যালয়ে। এদিন বিজেপিতে যোগ দিলেন রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের মতো ৮৮ বছরের এবং জটু লাহিড়ীর মতো ৮৪ বছরের বৃদ্ধরা। যোগ দিলেন সোনালী গুহ, সরলা মুর্মু, অভিনেত্রী তনুশ্রী, খেলোয়াড় বিধায়ক দীপেন্দু বিশ্বাস, সহ আরো এক ঝাঁক নেতা-নেত্রী। আজ মঞ্চে ঘোষক ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী এবং আয়োজনে মুকুল রায়। অভ্যর্থনাতে সব্যসাচী দত্ত, অর্জুন সিংয়ের মতো বিজেপি নেতারা। যারা বিগত সময়ে তৃণমূল ছেড়েই বিজেপিতে এসেছেন বিভিন্ন সময়ে।


এদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সদ্য যোগ দেওয়া তৃণমূল নেতাদের হাতে বিজেপির পতাকা তুলে দেন। এখন প্রশ্ন হল, এই সব দলত্যাগীরা কি সবাই টিকিট পাবেন ? নিশ্চিত করে বলা যেতে রবিবাবু ,জটু বাবুরা পাবেন না। বিগত লোকসভা নির্বাচনে মোদি, অমিত শাহরা পরিষ্কার বার্তা দিয়েছিলেন ৭৫ বছর হয়ে গেলে আর নির্বাচনের টিকেট দেওয়া হবে না। এই কারণে গত লোকসভা নির্বাচনে বাদ পড়েছিলেন আদবানি, মুরলি মনোহর যোশীরা। বাকিরা কি পাবেন ? অন্দরের বার্তা যা ইতিমধ্যেই একটা চূড়ান্ত লিস্ট হয়ে রয়েছে, এখন সেসব নাম বাদ দিলে সমস্যা হতে পারে। যদিও সবটাই ঠিক করবেন বিজেপির সর্বভারতীয় নেতৃত্ব।            

Tags:
BJP West Bengal