চতুর্থ দফায় মুখোমুখী একাধিক হেভিওয়েট, দেখে নিন কাদের ভাগ্য পরীক্ষা

দ্বিতীয় দফায় নন্দীগ্রাম লাইম লাইটের সমস্ত ফোকাস নিয়ে নিয়েছিল। আগামী শনিবার রাজ্যে চতুর্থ দফার ভোটগ্রহন। এই দফাতেও রয়েছে একাধিক নজরকাড়া আসন। একাধিক হেভিওয়েট প্রার্থী ভোটের ময়দানে মুখোমুখি হচ্ছেন বা লড়াই করছেন এই দফাতে। সবমিলিয়ে জমজমাট হতে চলেছে চতুর্থ দফার ভোটযুদ্ধ। এবার দেখে নিন কয়েকটি নজরকাড়া কেন্দ্র…

চণ্ডীতলা-

চতুর্থ দফার ভোটে সবচেয়ে কঠিন লড়াই হুগলির চণ্ডীতলায়। এই বিধানসভা আসনে এবার ত্রিমুখী লড়াই। একদিকে রয়েছেন বিজেপির তারকা প্রার্থী যশ দাসগুপ্ত (দেবাশিস)। অপরদিকে সংযুক্ত মোর্চার সমর্থনে সিপিএম প্রার্থী বর্ষীয়ান রাজনৈতিক মহম্মদ সেলিম। শাসকদলের তরফে আছেন এলাকার পরিচিত মুখ এবং জনপ্রিয় নেত্রী স্বাতী খন্দকর। চণ্ডীতলা এলাকায় খন্দকারদের দাপট কারোর অজানা নয়। কিন্তু একুশের ভোটে বিজেপি এবং সিপিএম দুই দলই হেভিওয়েট প্রার্থী দেওয়ায় লড়াই জমে গিয়েছে। টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত জোরদার প্রচার চালিয়েছেন। তাঁর হয়ে প্রচার করে গিয়েছেন মিঠুন চক্রবর্তী থেকে শুরু করে বিজেপির তাবর কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। মহম্মদ সেলিমও এলাকায় এলাকায় ঘুরে প্রচার করেছেন। ফলে কে জিতবেন সেটা জানতে অপেক্ষায় থাকবেন বঙ্গবাসী।

ডোমজুড়-

হাওড়ার ডোমজুর এবার সকলের নজরে। কারণ এই কেন্দ্রে এবারের বিজেপি প্রার্থী তৃণমূলেরই প্রাক্তন বিধায়ক তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল এবার টিকিট দিয়েছে কল্যাণ ঘোষকে। অপরদিকে সিপিএম প্রার্থী উত্তম বেরা। তবে লড়াই মূলত তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে। দল বদলে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এখন বিজেপি প্রার্থী। তাই নজর থাকবে ডোমজুড়ের দিকে।

সিঙ্গুর-

মুখোমুখী হাইভোল্টেজ লড়াইয়ে এবার সিঙ্গুর আন্দোলনের দুই নেতা। সিঙ্গুরের বিদায়ী বিধায়ক তথা মাস্টারমশাই রবীন্দ্রনাথ ঘোষকে এবার টিকিট দেয়নি তৃণমূল। তিনি দল বদলে বিজেপিতে যান, এবং টিকিট পান। অপরদিকে সিঙ্গুরের পরিচিত মুখ তথা হরিপালের বিদায়ী বিধায়ক বেচারাম মান্নাকে এবার সিঙ্গুরে টিকিট দিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী। অপরদিকে সিপিএম প্রার্থী সৃজন ভট্টচার্য ভোট প্রচারের প্রথম থেকেই নজর কাড়ছেন। তবে লড়াই মূলত রবীন্দ্রনাথবাবু এবং বেচারাম মান্নার মধ্যে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক মহল। বুধবারই সিঙ্গুরে বিশাল রোড শো করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ফলে দেখার এবারও রবীন্দ্রনাথবাবু জিততে পারেন কিনা।

চুঁচুড়া-

তৃণমূলের বিদায়ী বিধায়ক অসিত মজুমদারের খাস তালুক চুঁচুড়া। কিন্তু এবারের লড়াইটা পাল্টে গিয়েছে। কারণ এই বিধানসভায় এবার বিজেপি প্রার্থী বিজেপি সাংসদ তথা মহিলা মোর্চার নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়। দুজনের লড়াই যে সমানে সমানে হবে সে কথা বলাই বাহুল্য। লড়াকু নেত্রী হিসেবে পরিচিত লকেট একা হাতেই জিতেছিলেন লোকসভায়। এবার টক্কর বিধানসভায়।

টালিগঞ্জ-

এক কথায় বলা যায় টালিগঞ্জে এবার তারকা লড়াই। এই বিধানসভা কেন্দ্রে বরাবরই জিতে আসছেন তৃণমূল নেতা তথা রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। কিন্তু এবার তাঁকে টক্কর দিতে বিজেপি সেখানে পাঠিয়েছে আসানসোলের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে। তিনি নিজেও সংস্কৃতি জগতের তারকা। একাধারে বলিউডের নামকরা গায়ক অন্যদিকে বিজেপির দুবারের সাংসদ এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। ফলে লড়াইটা হবে জোরদার।