চাকদহে উদ্ধার বিজেপি কর্মীর দেহ, পলাতক তৃণমূল নেতা

পঞ্চম দফার ভোটের পর দিনই নদিয়ার চাকদহে উদ্ধার হল এক বিজেপি কর্মীর দেহ। ঘটনার পর তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। চাকদহ থানার এনায়েতপুর মণ্ডলপাড়া এলাকায় বাড়ির উঠানেই মিলল দিলীপ কীর্তনীয়ার (৩১) দেহ। তাঁর নাক, মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়েছে বলেই দাবি স্থানীয়দের। বিজেপির দাবি পিটিয়ে খুন করা হয়েছে দিলীপকে। অভিযোগের তির শাসকদলের এক নেতার দিকে। স্থানীয় সূত্রে খবর, দিলীপ কীর্তনীয়া সক্রিয় বিজেপি কর্মী হিসেবেই পরিচিত। পঞ্চম দফায় ভোটের দিন একটি বুথে লাইন নিয়ে স্থানীয় তৃণমূল নেতা তথা অঞ্চল সভাপতি দুলাল মণ্ডলের সঙ্গে বচসা হয়েছিল। দুলালের পরিবারের দাবি, শনিবার রাতে তাঁকে কয়েকজন ডেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকেই নিখোঁজ ছিলেন দিলীপ। রবিবার ভোরে তাঁর রক্তাক্ত দেহ বাড়ির উঠানেই পাওয়া যায়। ঘটনা জানাজানি হতেই গ্রামবাসীরা চড়াও হয় তৃণমূল নেতা দুলাল মণ্ডলের বাড়িতে। ব্যপক ভাঙচুর চালানো হয়। যদিও ঘটনার পর থেকেই পলাতক দুলাল।


খুনের ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যেই চাপানউতোর শুরু হয়েছে চাকদহে। বিজেপি প্রার্থী বঙ্কিমচন্দ্র ঘোষ বলেন, “শনিবার সকাল থেকে দফায় দফায় গণ্ডগোল তৈরি করেছে তৃণমূল। ভোটে হেরে যাওয়ার ভয়ে আমাদের কর্মীকে খুন করেছে তৃণমূল। অপরদিকে চাকদহের তৃণমূল প্রার্থী শুভঙ্কর সিংহ জানিয়েছেন, এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের কোনও যোগাযোগ নেই। তাঁর অভিযোগ, ঘটনাটি বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফল। বিজেপি নেতা তথা দলের মুখপাত্র জয়প্রকাশ মজুমদার বলেন, “এটা তৃণমূলের সংস্কৃতি। পোলিং এজেন্টকে বাড়ি থেক ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন করছে ওরা। বিজেপি করা তৃণমূলের কাছে অপরাধ। দলের উপরতলা থেকে বিরোধী শূন্য রাজনীতি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ওদের কর্মীদের। তাই দলের নিচুতলার কর্মীরা খুনোখুনি করছে। যদিও পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। তদন্তও শুরু করেছে চাকদহ থানার পুলিশ। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় পুলিশি টহল চলছে।

আরও পড়ুন:
আজ জন্মদিন রাজ্যপাল ধনকড়ের

 |  5 minutes ago

জন্ম-মৃত্যু একসঙ্গেই! করোনা প্রাণ কাড়ল যমজ ভাইয়ের

 |  23 minutes ago

এবার বঙ্গোপসাগরে, বাংলার দিকেই ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’

 |  an hour ago

মুকুল-শুভেন্দু কেন গ্রেফতার নয়? জনস্বার্থ মামলা হাইকোর্টে

 |  2 hours ago

বন্ধ স্কুলেই ‘সেফ’ হোম তৈরির উগ্যোগ নিল রাজ্য সরকার

 |  3 hours ago

নারদ মামলাঃ সুপ্রিম কোর্টে যাবে তৃণমূল? আগাম ক্যাভিয়েট দাখিল করছে CBI

 |  4 hours ago

ফিরহাদদের গ্রেফতারের বিরোধিতায় বিরোধী দলগুলি

 |  4 hours ago

রাতভর তাণ্ডব চালল ঘূর্ণিঝড় ‘তকতে’, মহারাষ্ট্রে মৃত ৬, তছনচ গুজরাট উপকূল

দেশ  |  5 hours ago

করোনায় রেহাই নেই শিশুদেরও ১০ বছরের কম বয়সী শিশুরা বেশি আক্রান্ত

দেশ  |  5 hours ago

সংক্রমণের আশঙ্কায় চাহিদায় ভাটা ক্ষতির মুখে নদিয়ার মাছ ব্যবসায়ীরা

দেশ  |  6 hours ago

একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু দেশে, তবুও কমল দৈনিক সংক্রমণ

দেশ  |  6 hours ago

করোনাকালে বেড়েছে চাহিদা তুলনায় নেই জোগান, যার প্রভাব পড়েছে দামে

দেশ  |  6 hours ago

করোনা বিধি কার্যকরে পথে পুলিস চলছে সচেতনতার প্রচার

দেশ  |  6 hours ago

জেলে অসুস্থ মদন, শোভন

দেশ  |  7 hours ago

শিলিগুড়িতে এক, কলকাতায় আরেক...!

দেশ  |  8 hours ago

চাকদহে উদ্ধার বিজেপি কর্মীর দেহ, পলাতক তৃণমূল নেতা

পঞ্চম দফার ভোটের পর দিনই নদিয়ার চাকদহে উদ্ধার হল এক বিজেপি কর্মীর দেহ। ঘটনার পর তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। চাকদহ থানার এনায়েতপুর মণ্ডলপাড়া এলাকায় বাড়ির উঠানেই মিলল দিলীপ কীর্তনীয়ার (৩১) দেহ। তাঁর নাক, মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়েছে বলেই দাবি স্থানীয়দের। বিজেপির দাবি পিটিয়ে খুন করা হয়েছে দিলীপকে। অভিযোগের তির শাসকদলের এক নেতার দিকে। স্থানীয় সূত্রে খবর, দিলীপ কীর্তনীয়া সক্রিয় বিজেপি কর্মী হিসেবেই পরিচিত। পঞ্চম দফায় ভোটের দিন একটি বুথে লাইন নিয়ে স্থানীয় তৃণমূল নেতা তথা অঞ্চল সভাপতি দুলাল মণ্ডলের সঙ্গে বচসা হয়েছিল। দুলালের পরিবারের দাবি, শনিবার রাতে তাঁকে কয়েকজন ডেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকেই নিখোঁজ ছিলেন দিলীপ। রবিবার ভোরে তাঁর রক্তাক্ত দেহ বাড়ির উঠানেই পাওয়া যায়। ঘটনা জানাজানি হতেই গ্রামবাসীরা চড়াও হয় তৃণমূল নেতা দুলাল মণ্ডলের বাড়িতে। ব্যপক ভাঙচুর চালানো হয়। যদিও ঘটনার পর থেকেই পলাতক দুলাল।


খুনের ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যেই চাপানউতোর শুরু হয়েছে চাকদহে। বিজেপি প্রার্থী বঙ্কিমচন্দ্র ঘোষ বলেন, “শনিবার সকাল থেকে দফায় দফায় গণ্ডগোল তৈরি করেছে তৃণমূল। ভোটে হেরে যাওয়ার ভয়ে আমাদের কর্মীকে খুন করেছে তৃণমূল। অপরদিকে চাকদহের তৃণমূল প্রার্থী শুভঙ্কর সিংহ জানিয়েছেন, এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের কোনও যোগাযোগ নেই। তাঁর অভিযোগ, ঘটনাটি বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফল। বিজেপি নেতা তথা দলের মুখপাত্র জয়প্রকাশ মজুমদার বলেন, “এটা তৃণমূলের সংস্কৃতি। পোলিং এজেন্টকে বাড়ি থেক ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন করছে ওরা। বিজেপি করা তৃণমূলের কাছে অপরাধ। দলের উপরতলা থেকে বিরোধী শূন্য রাজনীতি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ওদের কর্মীদের। তাই দলের নিচুতলার কর্মীরা খুনোখুনি করছে। যদিও পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। তদন্তও শুরু করেছে চাকদহ থানার পুলিশ। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় পুলিশি টহল চলছে।

Tags:
BJP West Bengal

এই সংক্রান্ত আরও খবর পড়ুন :