করোনার ওষুধ এবং চিকিৎসা সামগ্রী থেকে জিএসটি প্রত্যাহারের দাবি মুখ্যমন্ত্রীর

দেশে ক্রমাগত বেড়ে চলা করোনা সংক্রমণ নিয়ে ফের প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চিঠিতে তিনি দাবি করলেন, অক্সিজেন, করোনার ওষুধ এবং চিকিৎসা সামগ্রীর চাহিদা ও সরবরাহের মধ্যে বিপুল ফারাক রয়েছে রাজ্যে। প্রধানমন্ত্রীকে লেখা ওই চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, ‘করোনার জন্য যে চিকিৎসা সরঞ্জাম প্রয়োজন সেগুলিতে কর ছাড় দেওয়া হোক। পাশাপাশি উপরে উল্লিখিত জীবনদায়ী ওষুধ ও সরঞ্জামের সরবরাহের বিষয়েও নির্দিষ্ট সীমা তুলে দেওয়া হোক, যাতে রাজ্যে কোনও কিছুর ঘাটতি না থাকে’। পাশাপাশি যে সমস্ত চিকিৎসা সামগ্রী বিদেশ থেকে আমদানি করা হচ্ছে, সেগুলি থেকে আমদানি শুল্কও প্রত্যাহার করার দাবি জানিয়েছেন মমতা। তিনি এও জানিয়েছেন, রাজ্যেও দ্রুতহারে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। আমরা সকলেই নিজেদের মতো করে চেষ্টা করছি পরিস্থিতি মোকাবিলার।


চিঠিতে তিনি জানিয়েছেন, সরকারের পাশাপাশি বহু বেসরকারি সংস্থা, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, এজেন্সি কিংবা কেউ কেউ ব্যক্তিগত উদ্যোগে চিকিৎসা সামগ্রী কেনার ব্যাপারে বা সরবরাহ করার ব্যাপারে সরকারকে সাহায্য করছেন। এই সংগঠনগুলি বারবার দাবি জানিয়ে আসছে, যাতে করোনার চিকিৎসায় ওষুধ এবং চিকিৎসাসামগ্রী থেকে জিএসটি প্রত্যাহার করা হোক। অপরদিকে আইসিইউ তৈরির সরঞ্জাম, বাইপ্যাক মেশিন, অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর, সিলিন্ডারের মতো সামগ্রীর উপর আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার দাবিও উঠছে। কিন্তু এই বিষয়গুলি যেহেতু কেন্দ্রের অধীনে তাই তিনি কিছু করতে পারছেন না। প্রধানমন্ত্রীকে মমতা অনুরোধ করেছেন বিষয়গুলি গুরুত্ব দিয়ে ভাবার জন্য। উল্লেখ্য, তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নেওয়ার পর এটা তৃতীয় চিঠি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে।