বিশাখাপত্তনম-আরাকু-হায়দরাবাদ (দ্বিতীয় পর্ব)

আগের পর্বে বিশাখাপত্তনমের মূল আকর্ষন সমুদ্র সৈকতগুলি নিয়ে বলা হয়েছে। এই পর্বে আমরা জানবো বিশাখাপত্তনমের অন্যান্য দৃষ্টব্যগুলি সম্পর্কে। পাশাপাশি আরাকু ভ্যালির সৌন্দর্য সম্পর্কেও বিস্তারিত জানবো। বিশাখাপত্তনম শহরের ১৬ কিমি দূরে পাহাড়ের গায়ে চলে যান সীমাচলম। পাহাড়ের গায়ে রয়েছে নৃসিংহ মন্দির। ভগবান বিষ্ণুর দশ অবতারের অন্যতম নৃসিংহ অবতার।দক্ষিণ ভারতীয় শৈল্পিক দক্ষতায় নির্মিত মন্দিরটির নির্মাণকাল ত্রয়োদশ শতক। এখানে মূল  বিগ্রহ সারা বছরই চন্দনের পুরু আস্তরণে ঢাকা থেকে, শুধু অক্ষয় তৃতীয়ার দিন ১২ ঘন্টার জন্য মূল বিগ্রহ দেখতে পারেন সাধারণ দর্শনার্থীরা। তবে মন্দির গাত্রে অপরূপ কারুকার্য পর্যটকদের মন কাড়ে। দুপুর ২টো থেকে ৩টে পর্যন্ত বন্ধ থাকে এই মন্দির। এবার চলুন কৈলাশগিরি পাহাড়ের চূড়ায়। এখান থেকে বিশাখাপত্তনম শহরের এরিয়াল ভিউ ও বঙ্গোপসাগরের অসাধারণ দৃশ্য দেখতে পাবেন। এই পাহাড়ের মাথায় রয়েছে সুন্দর সাজানো গোছানো পার্ক, উদ্যান ও টয়ট্রেন, আছে রোপওয়ে। এখানে বিশাল আকারের শিব-দুর্গা মুর্তিটিও পর্যটকদের কাছে সমান আকর্ষণীয়।