বিশাখাপত্তনম-আরাকু-হায়দরাবাদ (প্রথম পর্ব)

যদি কখনও একসঙ্গে পাহাড়, সমুদ্র ও সবুজের সমাহার দেখতে ইচ্ছে করে তবে কোথায় যাবেন? এই প্রশ্নটি অনেক ভ্রমণপিপাসু মানুষের মনেই আসে। উত্তর একটাই, বিশাখাপত্তনম বা ভাইজ্যাক। এখানে বঙ্গোপসাগরের নীল জলরাশির গা ঘেঁষেই দাঁড়িয়ে  পূর্বঘাট পর্বতমালা। সবুজের সমারোহ এই এলাকা অন্যান্য পর্যটনকেন্দ্র থেকে আলাদা করেছে বিশাখাপত্তনমকে। প্রকৃতি দেবী এখানে যেন নিজের রূপ-রস-গন্ধ পুরোটাই ঢেলে দিয়েছে এখানে। এছাড়া ভারতের প্রথম দশটি পরিস্কার পরিচ্ছন্ন শহরের মধ্যে অন্যতম এই শহর। আবার হাওড়া থেকে মাত্র একরাতের জার্নি করে পৌঁছে যাওয়া যায় বিশাখাপত্তনম। সবমিলিয়ে কয়েকটা দিন পাহাড়-সমুদ্র-জঙ্গলের একযোগে মজা নিতে চলে আসুন ভাইজ্যাক।




বহু প্রাচীন এই শহরের ইতিহাস। খ্রিষ্ট পূর্ব যুগে রাজা বিশাল বার্মা রাজত্ব করতেন এই অঞ্চলে। তাঁর নাম অনুসারেই এই শহরের নাম বিশাখাপত্তনম। আবার অনেকের মতে দেব সেনাপতি কার্তিকের অস্ত্রের নামানুসারে এই নাম। যাইহোক, ব্রিটিশ শাসনে বিশাখাপত্তনমের নাম ছিল ওয়ালটেয়ার। বর্তমানে স্থানীয় দাবি মেনে শহরের নাম হয়েছে ভাইজ্যাক। বিশাখাপত্তনম শহরে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক মানের বিচ রয়েছে। এরমধ্যে অন্যতম রামকৃষ্ণ বিচ ও ঋষিকোন্ডা বিচ। এছাড়া যারা নির্জনতা চান, তাঁদের জন্য রয়েছে ইয়ারডা বিচ। বিশাখাপত্তনমের অন্যতম আকর্ষণ হল আরাকু ভ্যালি আর কিরণডুলু প্যাসেঞ্জার ট্রেনে ভ্রমণ। সবমিলিয়ে ভাইজ্যাক ভ্রমণ পর্যটকদের কাছে খুবই আকর্ষক।