বিজেপির মিছিলে হামলা, রাজ্যপালকে নালিশ জানালেন মুকুল

রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রথম থেকেই সরব বঙ্গ বিজেপির নেতারা। এরপর সোমবার দক্ষিণ কলকাতার চারু মার্কেট এবং মঙ্গলবার নন্দীগ্রামের খেজুরিতে বিজেপির মিছিলে হামলার ঘটনা। এই নিয়ে এবার রাজ্যপালের দ্বারস্থ হল বঙ্গ বিজেপি। মঙ্গলবার বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায় রাজভবনে গিয়ে নালিশ ঠুকে এলেন। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে সাক্ষাতের পর মুকুল রায় ফের বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসনের জোরালো দাবি তুললেন। পাশাপাশি তিনি জানিয়ে দেন এই ইস্যুতে বুধবারই নির্বাচন কমিশনে যাবে বিজেপি।
প্রসঙ্গত এদিন রাজভবনে গিয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে দেখা করে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা করেন মুকুল রায়। জানা যাচ্ছে দুজনের মধ্যে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে কথা হয় এবং মুকুল রায় নানান তথ্য প্রমাণও রাজ্যপালের হাতে তুলে দেন। এরপর রাজভবন থেকে বের হয়ে মুকুল রায় বলেন, ‘রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা ভেঙে পড়েছে। জেপি নাড্ডা, দিলীপ ঘোষ-সহ বিজেপির নেতামন্ত্রীদের উপর হামলা হচ্ছে। ৩৫৬ ধারা জারি ছাড়া উপায় নেই। আজ খেজুরিতে কী হয়েছে তাও শুনেছেন রাজ্যপাল। তাঁকে সব বলেছি’। পাশাপাশি এদিন পুরুলিয়ায় মুখ্যমন্ত্রীর সভায় বিক্ষোভরত স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সদস্যরা বিক্ষোভ দেখায়। সভা মঞ্চ থেকেই মুখ্যমন্ত্রী মেজাজ হারিয়ে বলেন, বিজেপি পরিকল্পনামাফিক অশান্তি তৈরির চেষ্টা করছে। এই প্রসঙ্গেও পাল্টা তোপ দাগেন মুকুল রায়। তিনি বলেন, ‘সরকার তাদের। প্রশাসন তাদের। গ্রেপ্তার করুক। বিজেপি এ কাজ করে না’। তিনি এই বিষয়ে নির্বাচন কমিশনেও যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন বিজেপির সর্ব ভারতীয় সহ সভাপতি। উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবারই রাজ্যে আসছে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ। তাঁরা সম্ভবত বাংলার রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গেও কথা বলবেন। ওই দিনই বিজেপি এই বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চলেছে।

আরও পড়ুন:
ঐতিহাসিক ব্রিগ্রেড

 |  2 hours ago

'খেলা নয়, চাকরি হবে' - রবিবার ব্রিগেড থেকে এই শ্লোগান নিয়েই বাড়ি ফিরল জনতা

 |  2 hours ago

ব্রিগেড সমাবেশের পর বাম কংগ্রেস আইএসএফ জোটকে তোপ দাগলেন বিজেপি মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য

 |  2 hours ago

কার্ড দেখিয়েও মেলেনি পরিষেবা, পরিষেবা না পেয়ে মৃত্যু পৌরর

 |  3 hours ago

বক্তা অধীর, নজর তখন আব্বাসে...

 |  3 hours ago

পূর্ব মেদিনীপুরের মহিষাদলে প্রকাশ্য সভা থেকে হুশিয়ারি তৃণমূল নেতার।

 |  3 hours ago

রবিবারের ব্রিগেড হয়ে উঠলো যেন আব্বাস-ময়

 |  3 hours ago

'খেলা নয়, চাকরি হবে' - রবিবার ব্রিগেড থেকে এই শ্লোগান নিয়েই বাড়ি ফিরল জনতা

 |  3 hours ago

অব্যহত সবুজ সন্ত্রাস

 |  3 hours ago

রবিবারও জেলায় জেলায় চলল কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুটমার্চ

 |  3 hours ago

ব্রিগেডে ঐতিহাসিক সমাবেশ , বললেন পর্যবেক্ষকরা

 |  3 hours ago

বদলের বার্তা নিয়ে ...

 |  3 hours ago

লক্ষ্য বিহারি ভোট, তেজস্বী যাদব থাকছেন মমতার পাশেই

 |  5 hours ago

বিজেপিতেই যোগ দিলেন শ্রাবন্তী

 |  6 hours ago

মমতার প্রার্থী তালিকায় থাকছে বহু চমক, নতুন মুখ

 |  6 hours ago

বিজেপির মিছিলে হামলা, রাজ্যপালকে নালিশ জানালেন মুকুল

রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রথম থেকেই সরব বঙ্গ বিজেপির নেতারা। এরপর সোমবার দক্ষিণ কলকাতার চারু মার্কেট এবং মঙ্গলবার নন্দীগ্রামের খেজুরিতে বিজেপির মিছিলে হামলার ঘটনা। এই নিয়ে এবার রাজ্যপালের দ্বারস্থ হল বঙ্গ বিজেপি। মঙ্গলবার বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায় রাজভবনে গিয়ে নালিশ ঠুকে এলেন। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে সাক্ষাতের পর মুকুল রায় ফের বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসনের জোরালো দাবি তুললেন। পাশাপাশি তিনি জানিয়ে দেন এই ইস্যুতে বুধবারই নির্বাচন কমিশনে যাবে বিজেপি।
প্রসঙ্গত এদিন রাজভবনে গিয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে দেখা করে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা করেন মুকুল রায়। জানা যাচ্ছে দুজনের মধ্যে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে কথা হয় এবং মুকুল রায় নানান তথ্য প্রমাণও রাজ্যপালের হাতে তুলে দেন। এরপর রাজভবন থেকে বের হয়ে মুকুল রায় বলেন, ‘রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা ভেঙে পড়েছে। জেপি নাড্ডা, দিলীপ ঘোষ-সহ বিজেপির নেতামন্ত্রীদের উপর হামলা হচ্ছে। ৩৫৬ ধারা জারি ছাড়া উপায় নেই। আজ খেজুরিতে কী হয়েছে তাও শুনেছেন রাজ্যপাল। তাঁকে সব বলেছি’। পাশাপাশি এদিন পুরুলিয়ায় মুখ্যমন্ত্রীর সভায় বিক্ষোভরত স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সদস্যরা বিক্ষোভ দেখায়। সভা মঞ্চ থেকেই মুখ্যমন্ত্রী মেজাজ হারিয়ে বলেন, বিজেপি পরিকল্পনামাফিক অশান্তি তৈরির চেষ্টা করছে। এই প্রসঙ্গেও পাল্টা তোপ দাগেন মুকুল রায়। তিনি বলেন, ‘সরকার তাদের। প্রশাসন তাদের। গ্রেপ্তার করুক। বিজেপি এ কাজ করে না’। তিনি এই বিষয়ে নির্বাচন কমিশনেও যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন বিজেপির সর্ব ভারতীয় সহ সভাপতি। উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবারই রাজ্যে আসছে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ। তাঁরা সম্ভবত বাংলার রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গেও কথা বলবেন। ওই দিনই বিজেপি এই বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চলেছে।

Tags:

এই সংক্রান্ত আরও খবর পড়ুন :