যাঁরা যেতে চান, তাড়াতাড়ি চলে যান, দলত্যাগীদের সাফ বার্তা মমতার

যাঁরা যেতে চাইছেন, তাড়াতাড়ি চলে যান, ট্রেন ছেড়ে দেবে। যাঁরা লাইন দিয়ে আছেন, তাঁরা ওঁদের পায়ে গিয়ে পড়ুন। ভোটের পর যাঁরা আসতে চাইবেন, তাঁদের আমরা নেব না, যারা যেতে চায়, তাড়াতাড়ি ল্যাজ গুটিয়ে পালাও। দলের টিকিট পাবেন না বুঝেই তাঁরা দল ছাড়ছেন। সোমবার হুগলি পুরশুড়ার জনসভায় এই ভাষাতেই দলত্যাগীদের উদ্দেশে তোপ দেগেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেছেন, এতদিন দলে থেকে অনেকেই অনেক কথা বলছেন। দল যথাযথ ব্যবস্থা নেবে। দলবিরোধী কাজ কোনওভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। তাঁর কথায়, বিজেপি একটা ওয়াশিং মেশিন। চোরগুলো বিজেপিতে গিয়ে সাদা হয়ে যাচ্ছে। অনেক টাকা করেছে, কালো টাকাকে সাদা টাকা করতে বিজেপিতে যাচ্ছে অনেকে। 
এদিনের সভায় তাঁর ভাষণের লক্ষ্য ছিলেন দলের বুথকর্মী এবং বিশেষ করে মহিলারা। শুরুতেই তিনি দলের বুথকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, তাঁরাই ভোটের কাজ করেন। তাঁরাই দলের সম্পদ। সভায় মহিলাদের উপস্থিতি ছিল নজরকাড়া। মমতা বলেন, বাংলার মেয়েদের ধর্ষণের হুমকি দিচ্ছে বিজেপি। মহিলাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, হাতা খুন্তি নিয়ে রান্না করে দেবেন বিজেপিকে, আমি চাই মা বোনেরা সামনে থাকুন। বিজেপির কোনও ভিডিও বিশ্বাস করবেন না। ফেক  ভিডিও তৈরি করে। ওদের বিশ্বাস করবেন না। বিজেপি পার্টি টাই ফেক। তাঁর কথায়, বাংলাকে গুজরাত বানাতে দেব না। বহিরাগতদের ঢুকতে দেব না।
তিনি বলেন, নেতাজিকে নিয়ে অনুষ্ঠানে নেতাজিকেই অপমান করেছে। তাঁকে কিছু ধর্মান্ধ টিজ করেছে। বিজেপি ভোটে জিততে টাকা দিলে টাকা নিয়ে মাংস-ভাত খান। ভোটের বাক্সে গিয়ে ভোটটা উল্টে দিন। তিনি বলেন, বিজেপি বর্ধমানে নিজেদের পার্টি অফিসে আগুন জ্বালাচ্ছে, ব্যারাকপুরেও গণ্ডগোল পাকাচ্ছে বলে অভিযোগ তোলেন। সেইসঙ্গে জানিয়ে দেন, বাইরের গুন্ডাদের আমরা ঢুকতে দেব না।
এদিন মুখ্যমন্ত্রীর জনসভার মঞ্চে ইন্টারনেট বিভ্রাট ঘটে। ইন্টারনেট সংযোগ আচমকা বিচ্ছিন্ন হওয়ায় সেখান থেকেই সার্ভিস প্রোভাইডারকে ফোন করে তিরস্কার করেন তিনি।

আরও পড়ুন:
আজ উত্তরে মমতা দক্ষিণে মোদী

 |  27 minutes ago

হাজারো আশ্বাস, হাজারো প্রতিশ্রুতি ,পূরণ হয়নি কিছুই।

 |  15 hours ago

খেয়া পার হয়েই রোজকার যাতায়াত।

 |  15 hours ago

প্রচারে নেমে পড়লেন বেহালা পূর্ব কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী রত্না চট্টোপাধ্যায়।

 |  15 hours ago

ভোটের বাজারে হরেক রকমের মিস্টি।

 |  15 hours ago

কালনা মহকুমা হাসপাতালে মিলছে না ইউএসজি পরিষেবা সহ একাধিক পরিষেবা।

 |  15 hours ago

গ্রামে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ, ঢালাই রাস্তার কাজ বন্ধ করলেন এলাকার মানুষ।

 |  15 hours ago

সিপিএম কংগ্রেসের জোটকে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছতে দুই নেতার ছেলের বিয়েতে অভিনব আয়োজন।

 |  15 hours ago

পানীয় জলের দাবিতে প্রতিবাদে সরব ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

 |  15 hours ago

অভিযোগ নারী নির্যাতনের তবুও কানে নেয়নি আমহার্স্ট স্ট্রিট থানা।

 |  16 hours ago

শুভেন্দুর বিরুদ্ধে মমতা

 |  16 hours ago

প্রার্থীতালিকা প্রকাশিত হতেই শুক্রবারের পর শনিবারও জেলায় জেলায় দলীয় নেতা কর্মীদের ক্ষোভ অব্যাহত।

 |  16 hours ago

ইসলামপুরের পুরোন বাজার যেন জতুগৃহ

 |  16 hours ago

শনিবারই ৬ জেলার ৬০ প্রার্থীকে নিয়ে জরুরি বৈঠকে তৃণমূল রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি।

 |  16 hours ago

সেলুন কারে প্যাকেজ ভ্রমণ, রেলের আকর্ষণীয় উদ্যোগ

দেশ  |  23 hours ago

যাঁরা যেতে চান, তাড়াতাড়ি চলে যান, দলত্যাগীদের সাফ বার্তা মমতার

যাঁরা যেতে চাইছেন, তাড়াতাড়ি চলে যান, ট্রেন ছেড়ে দেবে। যাঁরা লাইন দিয়ে আছেন, তাঁরা ওঁদের পায়ে গিয়ে পড়ুন। ভোটের পর যাঁরা আসতে চাইবেন, তাঁদের আমরা নেব না, যারা যেতে চায়, তাড়াতাড়ি ল্যাজ গুটিয়ে পালাও। দলের টিকিট পাবেন না বুঝেই তাঁরা দল ছাড়ছেন। সোমবার হুগলি পুরশুড়ার জনসভায় এই ভাষাতেই দলত্যাগীদের উদ্দেশে তোপ দেগেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেছেন, এতদিন দলে থেকে অনেকেই অনেক কথা বলছেন। দল যথাযথ ব্যবস্থা নেবে। দলবিরোধী কাজ কোনওভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। তাঁর কথায়, বিজেপি একটা ওয়াশিং মেশিন। চোরগুলো বিজেপিতে গিয়ে সাদা হয়ে যাচ্ছে। অনেক টাকা করেছে, কালো টাকাকে সাদা টাকা করতে বিজেপিতে যাচ্ছে অনেকে। 
এদিনের সভায় তাঁর ভাষণের লক্ষ্য ছিলেন দলের বুথকর্মী এবং বিশেষ করে মহিলারা। শুরুতেই তিনি দলের বুথকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, তাঁরাই ভোটের কাজ করেন। তাঁরাই দলের সম্পদ। সভায় মহিলাদের উপস্থিতি ছিল নজরকাড়া। মমতা বলেন, বাংলার মেয়েদের ধর্ষণের হুমকি দিচ্ছে বিজেপি। মহিলাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, হাতা খুন্তি নিয়ে রান্না করে দেবেন বিজেপিকে, আমি চাই মা বোনেরা সামনে থাকুন। বিজেপির কোনও ভিডিও বিশ্বাস করবেন না। ফেক  ভিডিও তৈরি করে। ওদের বিশ্বাস করবেন না। বিজেপি পার্টি টাই ফেক। তাঁর কথায়, বাংলাকে গুজরাত বানাতে দেব না। বহিরাগতদের ঢুকতে দেব না।
তিনি বলেন, নেতাজিকে নিয়ে অনুষ্ঠানে নেতাজিকেই অপমান করেছে। তাঁকে কিছু ধর্মান্ধ টিজ করেছে। বিজেপি ভোটে জিততে টাকা দিলে টাকা নিয়ে মাংস-ভাত খান। ভোটের বাক্সে গিয়ে ভোটটা উল্টে দিন। তিনি বলেন, বিজেপি বর্ধমানে নিজেদের পার্টি অফিসে আগুন জ্বালাচ্ছে, ব্যারাকপুরেও গণ্ডগোল পাকাচ্ছে বলে অভিযোগ তোলেন। সেইসঙ্গে জানিয়ে দেন, বাইরের গুন্ডাদের আমরা ঢুকতে দেব না।
এদিন মুখ্যমন্ত্রীর জনসভার মঞ্চে ইন্টারনেট বিভ্রাট ঘটে। ইন্টারনেট সংযোগ আচমকা বিচ্ছিন্ন হওয়ায় সেখান থেকেই সার্ভিস প্রোভাইডারকে ফোন করে তিরস্কার করেন তিনি।

Tags:
taapsee pannu
mithali raj
biopic
bollywood

এই সংক্রান্ত আরও খবর পড়ুন :

হাজারো আশ্বাস, হাজারো প্রতিশ্রুতি ,পূরণ হয়নি কিছুই।
খেয়া পার হয়েই রোজকার যাতায়াত।
প্রচারে নেমে পড়লেন বেহালা পূর্ব কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী রত্না চট্টোপাধ্যায়।
কালনা মহকুমা হাসপাতালে মিলছে না ইউএসজি পরিষেবা সহ একাধিক পরিষেবা।
গ্রামে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ, ঢালাই রাস্তার কাজ বন্ধ করলেন এলাকার মানুষ।
সিপিএম কংগ্রেসের জোটকে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছতে দুই নেতার ছেলের বিয়েতে অভিনব আয়োজন।
পানীয় জলের দাবিতে প্রতিবাদে সরব ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।
প্রার্থীতালিকা প্রকাশিত হতেই শুক্রবারের পর শনিবারও জেলায় জেলায় দলীয় নেতা কর্মীদের ক্ষোভ অব্যাহত।
ইসলামপুরের পুরোন বাজার যেন জতুগৃহ
মানুষের কথা