কুঁদঘাটে ম্যানহোলে কাজ করতে নেমে তলিয়ে মৃত্যু পুরসভার চার ঠিকাকর্মীর

কুঁদঘাটে কলকাতা পুরসভার পাম্পিং স্টেশন তৈরি কাজ চলছিল। কলকাতা পুরসভার ১১৪ নম্বর ওয়ার্ডে তার জন্য ম্যানহোল পরিস্কারের কাজ করতে নামেন পুরসভার চার ঠিকাকর্মী। মুহুর্তের মধ্যে তাঁরা তলিয়ে যান সহকর্মীদের চোখের সামনেই। বেশ কিছুক্ষণ ডাকাডাকির পরও তাঁদের সাড়া না পাওয়া গেলে খবর যায় পুলিশ ও দমকলে। এলাকায় ছুটে আসে দমকল ও পুলিশকর্মীরা। কিন্তু ঘন্টাখানেকের প্রচেষ্টাতেও তাঁদের খোঁজ করতে পারেননি দমকলকর্মীরা। এরপরই খবর দেওয়া হয় বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরে। তাঁদের ডুবুরিরা এসে ওই ম্যানহোলে নামেন। এরপরই ঘন্টা দুয়েক পর দুজনকে উদ্ধার করেন বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সদস্যরা। দ্রুতই তাঁদের পাঠানো হয় এসএসকেএম হাসপাতাল এবং বাঘাযতীন হাসপাতালে। তাঁদের প্রত্যেকেরই অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল। কিন্তু পরে জানা যায় চারজনেই মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে ক্ষোভও ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।
স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে বৃহস্পতিবার সকালে পুরসভার ১৪৪ নম্বর ওয়ার্ডে কুঁদঘাট পাম্প হাউসের কাছে ম্যানহোলে পুরনো ও নতুন পাইপ সংযুক্তিকরণের কাজ চলছিল। সেখানেই চারজন ঠিকাকর্মী কাজ করতে নামেন। এই ঘটনার পর এলাকায় ব্যপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। প্রায় দুই ঘন্টা খোঁজার পর ডুবুরি নামিয়েই উদ্ধার করা সম্ভব হয়। ওই এলাকায় কাজ করতে আসা পুর কর্মী এবং স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, দমকল আসতেই অনেক দেরী হয়। আবার বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকেও অনেক দেরীতে খবর দেওয়ার অভিযোগ উঠছে। কেন কোনও সুরক্ষাব্যবস্থা ছাড়াই ওই কর্মীদের ম্যানহোলে নামানো হল সেই প্রশ্নও উঠেছে বিভিন্ন মহলে। যদিও ঘটনাস্থলে যান রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। তিনিও অসুস্থ কর্মীদের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন। কিন্তু হাসপাতালে ওই চারজনেই মৃত্যু হয়েছে বলে পরে খবর আসে।

Tags:
workers died