ঘূর্ণিঝড় তকতে-র দাপট শুরু কেরল ও কর্নাটকে, তছনছ ৭৩ গ্রাম, মৃত ৪

এখনও উপকূলে পুরোপুরি আছড়ে পড়েনি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘তকতে’ (Cyclone Tauktae)। পুরো দাপটও দেখায়নি ঘূর্ণিঝড়। তাতেই ত্রাহি ত্রাহি রব দক্ষিণের কয়েকটি রাজ্যের মানুষের। কর্নাটকের ৬টি জেলার ৭৩টি গ্রাম কার্যত তছনছ করেছে ঘূর্ণিঝড় ‘তকতে’। মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৪ জনের। কর্নাটক রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের তরফে জানানো হয়েছে এই কথা।  রবিবার ভোরেই কর্নাটকের উপকূলে প্রবেশ করেছে ঘূর্ণিঝড় ‘তকতে’। সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে এই খবর জানিয়েছেন কর্নাটকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাই।

তিনি আরও জানিয়েছেন, তাকতে-র দাপটে রীতিমতো বিধ্বস্ত উপকূলবর্তী ৭৩টি গ্রাম। রাজ্যে মোতায়েন করা হয়েছিল জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর দুটি দল এবং রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীরও তিনটি দল। পাশাপাশি এই অঞ্চলে রাজ্যের ১০০০ জনের বিশেষ দল উদ্ধার কাজে হাত লাগিয়েছেন। কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পা জানিয়েছেন, উপকূলবর্তী এলাকায় আমরা ঘূর্ণিঝড়ের পরিস্থিতির উপর নজর রাখছি।উদ্ধারকাজ  যাতে ঠিকভাবে চলে তার জন্য নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হচ্ছে ওই জেলাগুলির জেলাশসক এবং বিধায়কদের সঙ্গে।


অপরদিকে কেরলে ইতিমধ্যেই এই সাইক্লোনের  প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। গতকাল সকাল থেকেই টানা বৃষ্টিপাত চলছে। গতকাল রাতে কেরলের বহু জায়গায় কার্যত বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়ে গিয়েছে। কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন রাজ্য প্রশাসনকে সবরকমভাবে প্রস্তুত রেখেছেন। তিনি টুইট করে জানিয়েছেন, কেরলে ইতিমধ্যেই ১৭টি ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। প্রায় সাড়ে ৫০০টি পরিবারকে সেখানে সরানো হয়েছে। আজ দিনভর কেরলে এই সাইক্লোনের প্রভাব পড়তে পারে। দিল্লির মৌসম ভবন জানিয়েছে, আরব সাগরে তৈরি হওয়া সাইক্লোন তাকতে (Cyclone Tauktae) নিজের শক্তি বাড়িয়েই চলেছে। আগামী ১২ ঘণ্টার মধ্যে সে মারাত্মক আকার নেবে। অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিনত হতে পারে ‘তকতে’। মঙ্গলবারই সর্বশক্তি নিয়ে গুজরাট উপকূলে আছড়ে পড়বে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর।

আরও পড়ুন:
big breakingঃ কীভাবে মূল্যায়ন, ঘোষণা করল পর্ষদ ও সংসদ

 |  26 minutes ago

অঝোর বৃষ্টিতে জলমগ্ন শহর, হাঁটু জলে নাজেহাল আমজনতা

 |  10 minutes ago

পুকুরে ভাসল মরা মাছ,পুকুরে বিষ প্রয়োগ? তদন্তে পুলিস

 |  12 minutes ago

জল যন্ত্রণা, কামারহাটির জলছবি

 |  13 minutes ago

গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে ধুন্ধুমার, পুলিসের সামনেই হাতাহাতি

 |  14 minutes ago

রাজ্য সরকারের প্রতিশ্রুতি রক্ষা

 |  19 minutes ago

বেহালা-যাদবপুরের জলযন্ত্রণা , কেআইপি প্রকল্পের কাজে অসন্তোষ

 |  22 minutes ago

মধ্য ও পূর্ব কলকাতা জলমগ্ন, জল ঢুকে যাচ্ছে গাড়িতেও

 |  23 minutes ago

জলমগ্ন জাতীয় সড়ক, দুর্ভোগে বাসিন্দারা

 |  27 minutes ago

ফের ঘরভাঙার আতঙ্ক, বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে দুর্গাদোয়ানি

 |  30 minutes ago

দুঃস্থ মানুষকে সাহায্য, উদ্যোগী তৃণমূল যুব কংগ্রেস

 |  39 minutes ago

উলুবেড়িয়ায় বাজারে ফাটল, দোকান ধ্বসে খালের জলে

 |  51 minutes ago

গঙ্গায় বাক্সবন্দি শিশুকন্যা, উদ্ধার করলেন মাঝি

দেশ  |  54 minutes ago

বৃষ্টিতে পণ্ড প্রথম সেশনের খেলা

খেলাধুলা  |  55 minutes ago

শীলাবতী ফুঁসলে ঘুম উড়ে যায়, সেতু মেরামতির দায় গ্রামবাসীদের

খেলাধুলা  |  an hour ago

ঘূর্ণিঝড় তকতে-র দাপট শুরু কেরল ও কর্নাটকে, তছনছ ৭৩ গ্রাম, মৃত ৪

এখনও উপকূলে পুরোপুরি আছড়ে পড়েনি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘তকতে’ (Cyclone Tauktae)। পুরো দাপটও দেখায়নি ঘূর্ণিঝড়। তাতেই ত্রাহি ত্রাহি রব দক্ষিণের কয়েকটি রাজ্যের মানুষের। কর্নাটকের ৬টি জেলার ৭৩টি গ্রাম কার্যত তছনছ করেছে ঘূর্ণিঝড় ‘তকতে’। মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৪ জনের। কর্নাটক রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের তরফে জানানো হয়েছে এই কথা।  রবিবার ভোরেই কর্নাটকের উপকূলে প্রবেশ করেছে ঘূর্ণিঝড় ‘তকতে’। সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে এই খবর জানিয়েছেন কর্নাটকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাই।

তিনি আরও জানিয়েছেন, তাকতে-র দাপটে রীতিমতো বিধ্বস্ত উপকূলবর্তী ৭৩টি গ্রাম। রাজ্যে মোতায়েন করা হয়েছিল জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর দুটি দল এবং রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীরও তিনটি দল। পাশাপাশি এই অঞ্চলে রাজ্যের ১০০০ জনের বিশেষ দল উদ্ধার কাজে হাত লাগিয়েছেন। কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পা জানিয়েছেন, উপকূলবর্তী এলাকায় আমরা ঘূর্ণিঝড়ের পরিস্থিতির উপর নজর রাখছি।উদ্ধারকাজ  যাতে ঠিকভাবে চলে তার জন্য নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হচ্ছে ওই জেলাগুলির জেলাশসক এবং বিধায়কদের সঙ্গে।


অপরদিকে কেরলে ইতিমধ্যেই এই সাইক্লোনের  প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। গতকাল সকাল থেকেই টানা বৃষ্টিপাত চলছে। গতকাল রাতে কেরলের বহু জায়গায় কার্যত বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়ে গিয়েছে। কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন রাজ্য প্রশাসনকে সবরকমভাবে প্রস্তুত রেখেছেন। তিনি টুইট করে জানিয়েছেন, কেরলে ইতিমধ্যেই ১৭টি ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। প্রায় সাড়ে ৫০০টি পরিবারকে সেখানে সরানো হয়েছে। আজ দিনভর কেরলে এই সাইক্লোনের প্রভাব পড়তে পারে। দিল্লির মৌসম ভবন জানিয়েছে, আরব সাগরে তৈরি হওয়া সাইক্লোন তাকতে (Cyclone Tauktae) নিজের শক্তি বাড়িয়েই চলেছে। আগামী ১২ ঘণ্টার মধ্যে সে মারাত্মক আকার নেবে। অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিনত হতে পারে ‘তকতে’। মঙ্গলবারই সর্বশক্তি নিয়ে গুজরাট উপকূলে আছড়ে পড়বে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর।

Tags:
Cyclone Tauktae
very severe cyclonic storm
cyclonic storm
kerala
karnataka