ফাইল চিত্র

তবে কি হু-র স্বীকৃতি পেতে চলেছে কোভ্যাক্সিন!

ভারতে তৈরি দু’টি টিকার মধ্যে এর আগে শুধু কোভিশিল্ডকেই করোনার টিকা হিসেবে অনুমোদন করেছিল হু। তবে কোভিশিল্ড সম্পূর্ণ ভারতের তৈরি নয়। অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার ফর্মুলায় সেরাম ইনস্টিটিউটের তৈরি। কোভ্যাক্সিন ভারতের গবেষণাগারে তৈরি করেছেন ভারতীয় বিজ্ঞানীরাই। দামে কোভিশিল্ডের দ্বিগুণ হলেও হু-র অনুমোদন ছিল না। ফলে দেশে স্বীকৃতি পেলেও কোভ্যাক্সিন নিয়ে বিদেশে পাড়ি দিতে গিয়ে সমস্যায় পড়ছিলেন অনেকেই। দেশের বাইরে যাওয়ার জন্য নতুন করে টিকা নিতে হচ্ছিল তাঁদের। এবার করোনার বৈধ টিকা হিসেবে স্বীকৃতি পেতে চলেছে ভারতীয় টিকা কোভ্যাক্সিন।

এ সপ্তাহের শেষেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই স্বীকৃতি দিতে পারে বলে জানিয়েছে একটি সূত্র। যদিও দেশজুড়ে টিকাকরণ চলছে।তারমধ্যেই টিকার যোগান ঠিকমত না থাকায় কিছুটা সমস্যার মধ্যে পড়তে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। যদিও এই বিষয় নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও কিছু দিন আগে অভিযোগ জানিয়েছিলেন।

তিনি জানিয়েছিলেন ‘‘যাঁরা বিদেশের কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যাবেন ভেবেছিলেন তাঁরা কোভ্যাক্সিন নিয়ে বিপদে পড়েছেন। কেন না কোভ্যাক্সিনের টিকা নিয়ে তাঁরা দেশের বাইরে যাওয়ার শংসাপত্র পাচ্ছেন না।’’ এ সপ্তাহের শেষে কোভ্যাক্সিন হু-র অনুমোদন পেলে এই ধরনের সমস্যা মিটবে বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।


Tags:
Covaccine
WHO