৮০০ বছরে প্রথমবার, বৃহস্পতি-শনির যুগলবন্দি দেখা যাবে ২১ ডিসেম্বর

আমাদের সৌরজগতে সবচেয়ে বড় গ্রহ বৃহস্পতি, আয়তনে এর ঠিক পরেই রয়েছে শনি। আর এই দুই বিশালাকার গ্রহ যদি জুটি বাঁধে তবে রাতের আকাশে জ্বলজ্বল করবেই। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, এই বিরল ঘটনা ঘটবে আগামী ২১ ডিসেম্বর। দুই দৈত্যাকার গ্রহ একেবারে কাছে চলে আসবে ওইদিন। এককথায় ওইদিন দুই গ্রহ মিলেমিশে একাকার হয়ে যাবে, আর উজ্জ্বল নক্ষত্র হিসেবে দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিম আকাশে দেখা যাবে। খালি চোখেই দুই গ্রহের অস্তিত্ব বোঝা যাবে, তবে টেলিস্কোপ হলে আরও ভালো। 

বিড়লা তারামণ্ডলের অধিকর্তা দেবীপ্রসাদ দুয়ারি বলছেন, খালি চোখেই এই দুই বৃহৎ গ্রহের যুগলবন্দি দেখা যাবে, তবে দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিম আকাশে অনেকটা খোলা জায়গা বা কোনও বহুতল হলে ভালো হয়। আর যদি টেলিস্কোপ বা বাইনোকুলার থাকে তবে তো সোনায় সোহাগা। 

আয়তনে বৃহস্পতি শনি গ্রহের থেকে ১.৭৩ গুন বড়। আর দুই গ্রহের মধ্যে দূরত্ব প্রায় ৭৩ কোটি কিলোমিটার। যা দূরত্বের নিরিখে অনেকটাই। তবে তাঁর কাছাকাছি আসবে কী করে? জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, ১৬ ডিসেম্বর থেকে বড়দিন পর্যন্ত দুই গ্রহ  কাছাকাছি অবস্থান করবে। আর ২১ ডিসেম্বর থাকবে সবচেয়ে কাছাকাছি, ফলে দুই গ্রহকে দেখে মনে হবে যুগ্ম তারা। নাসার বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, প্রায় ৮০০ বছর পর এই বিরল দৃশ্য দেখা যাচ্ছে পৃথিবী থেকে। এর আগে ১২২৬ সালের ৪ মার্চ শেষবার দেখা গিয়েছিল এই যুগলবন্দি।

আমেরিকার টেক্সাস রাইস ইউনিভার্সিটির পদার্থবিদ্যা ও জ্যোতির্বিজ্ঞানের অধ্যাপক প্যাট্রিক হার্টিগান জানালেন, "এই দুই গ্রহের বিন্যাস অত্যন্ত বিরল। প্রতি ২০ বছর পরপরই এদের মধ্যবর্তী দূরত্ব পালটে যায়। কিন্তু এই যুগলবন্দি অত্যন্ত বিরল। কারণ এই সময় একে অপরের অনেক কাছে চলে আসবে তারা। এমন এক মহাজাগতিক ঘটনা দেখার জন্য বহু বছর অপেক্ষা করতে হয় বিজ্ঞানীদের। তবে আপাতদৃষ্টিতে দুই গ্রহকে যতই কাছাকাছি দেখা যাক না কেন, বাস্তবে তাদের মধ্যে কয়েকশো হাজার লক্ষ মাইলের দূরত্ব বজায় থাকবে বলে জানিয়েছে নাসা।

বিকাল সাড়ে ৫টা  থেকে সন্ধে ৬টার মধ্যে দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিম আকাশে দেখা যাবে দুই গ্রহের যুগলবন্দি। যাঁদের কাছে বাইনোকুলার বা টেলিস্কোপ রয়েছে, তাঁদের বাড়তি পাওনা বৃহস্পতির চার উপগ্রহ গ্যানিমিড, ক্যালিস্টো, আইও ও ইউরোপা এবং শনির উপগ্রহ টাইটান দেখার সুযোগ।

আরও পড়ুন:
কয়লা পাচারকাণ্ডে শুক্রবার রাজ্যজুড়ে সর্ববৃহৎ তল্লাশি অভিযানে সিবিআই-ইডি

 |  29 minutes ago

ইলেকট্রিক স্কুটিতে চেপে নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

 |  47 minutes ago

সায়েন্স সিটির প্রেক্ষাগৃহে বিশিষ্টদের সভায় বক্তব্য রাখলেন জে পি নাড্ডা

 |  50 minutes ago

সোনার বাংলার লক্ষ্যে এগোচ্ছে বিজেপি

 |  52 minutes ago

ম্যানহোলে কাজ করতে নেমে মর্মান্তিক মৃত্যু

 |  58 minutes ago

বিধানসভা নির্বাচনী লড়াইয়ে ফ্যাক্টর হয়ে উঠেছে কর্মসংস্থান

 |  an hour ago

রুজিরাকাণ্ডে এবার আঁটঘাট বেঁধে এগতো চাইছে সিবিআই

 |  an hour ago

উত্তরাখন্ডে নিখোঁজ পুরুলিয়ার শ্রমিক, মৃত বলে ঘোষণা করেছে উত্তরাখন্ড সরকার

 |  an hour ago

৬৭ সালের মতো চোরাস্রোত কাজ করছে, দাবি অশোক ভট্টাচার্যের

 |  an hour ago

নিউ মার্কেটে ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ

 |  an hour ago

একুশের নির্বাচনের আগে বাংলার মণীষীদের গুরুত্ব বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের

 |  an hour ago

তৃণমূল বিধায়ক জটু লাহিড়ির অনুগামীদের পোস্টারে ছয়লাপ হাওড়ার শিবপুর

 |  an hour ago

ঠাকুরবাড়িতে অভিষেকের পুজো

 |  an hour ago

দিল্লির হেভিওয়েট নেতাদেরই প্রচারের মুখ করতে চাইছে বিজেপি

 |  2 hours ago

বিজেপি নেত্রীর বাড়িতে বোমাবাজি ভাটপাড়ায়

 |  2 hours ago

৮০০ বছরে প্রথমবার, বৃহস্পতি-শনির যুগলবন্দি দেখা যাবে ২১ ডিসেম্বর

আমাদের সৌরজগতে সবচেয়ে বড় গ্রহ বৃহস্পতি, আয়তনে এর ঠিক পরেই রয়েছে শনি। আর এই দুই বিশালাকার গ্রহ যদি জুটি বাঁধে তবে রাতের আকাশে জ্বলজ্বল করবেই। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, এই বিরল ঘটনা ঘটবে আগামী ২১ ডিসেম্বর। দুই দৈত্যাকার গ্রহ একেবারে কাছে চলে আসবে ওইদিন। এককথায় ওইদিন দুই গ্রহ মিলেমিশে একাকার হয়ে যাবে, আর উজ্জ্বল নক্ষত্র হিসেবে দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিম আকাশে দেখা যাবে। খালি চোখেই দুই গ্রহের অস্তিত্ব বোঝা যাবে, তবে টেলিস্কোপ হলে আরও ভালো। 

বিড়লা তারামণ্ডলের অধিকর্তা দেবীপ্রসাদ দুয়ারি বলছেন, খালি চোখেই এই দুই বৃহৎ গ্রহের যুগলবন্দি দেখা যাবে, তবে দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিম আকাশে অনেকটা খোলা জায়গা বা কোনও বহুতল হলে ভালো হয়। আর যদি টেলিস্কোপ বা বাইনোকুলার থাকে তবে তো সোনায় সোহাগা। 

আয়তনে বৃহস্পতি শনি গ্রহের থেকে ১.৭৩ গুন বড়। আর দুই গ্রহের মধ্যে দূরত্ব প্রায় ৭৩ কোটি কিলোমিটার। যা দূরত্বের নিরিখে অনেকটাই। তবে তাঁর কাছাকাছি আসবে কী করে? জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, ১৬ ডিসেম্বর থেকে বড়দিন পর্যন্ত দুই গ্রহ  কাছাকাছি অবস্থান করবে। আর ২১ ডিসেম্বর থাকবে সবচেয়ে কাছাকাছি, ফলে দুই গ্রহকে দেখে মনে হবে যুগ্ম তারা। নাসার বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, প্রায় ৮০০ বছর পর এই বিরল দৃশ্য দেখা যাচ্ছে পৃথিবী থেকে। এর আগে ১২২৬ সালের ৪ মার্চ শেষবার দেখা গিয়েছিল এই যুগলবন্দি।

আমেরিকার টেক্সাস রাইস ইউনিভার্সিটির পদার্থবিদ্যা ও জ্যোতির্বিজ্ঞানের অধ্যাপক প্যাট্রিক হার্টিগান জানালেন, "এই দুই গ্রহের বিন্যাস অত্যন্ত বিরল। প্রতি ২০ বছর পরপরই এদের মধ্যবর্তী দূরত্ব পালটে যায়। কিন্তু এই যুগলবন্দি অত্যন্ত বিরল। কারণ এই সময় একে অপরের অনেক কাছে চলে আসবে তারা। এমন এক মহাজাগতিক ঘটনা দেখার জন্য বহু বছর অপেক্ষা করতে হয় বিজ্ঞানীদের। তবে আপাতদৃষ্টিতে দুই গ্রহকে যতই কাছাকাছি দেখা যাক না কেন, বাস্তবে তাদের মধ্যে কয়েকশো হাজার লক্ষ মাইলের দূরত্ব বজায় থাকবে বলে জানিয়েছে নাসা।

বিকাল সাড়ে ৫টা  থেকে সন্ধে ৬টার মধ্যে দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিম আকাশে দেখা যাবে দুই গ্রহের যুগলবন্দি। যাঁদের কাছে বাইনোকুলার বা টেলিস্কোপ রয়েছে, তাঁদের বাড়তি পাওনা বৃহস্পতির চার উপগ্রহ গ্যানিমিড, ক্যালিস্টো, আইও ও ইউরোপা এবং শনির উপগ্রহ টাইটান দেখার সুযোগ।

Tags:

সর্বশেষ খবর

কয়লা পাচারকাণ্ডে শুক্রবার রাজ্যজুড়ে সর্ববৃহৎ তল্লাশি অভিযানে সিবিআই-ইডি

29 minutes ago

৬৭ সালের মতো চোরাস্রোত কাজ করছে, দাবি অশোক ভট্টাচার্যের

an hour ago

দিল্লির হেভিওয়েট নেতাদেরই প্রচারের মুখ করতে চাইছে বিজেপি

2 hours ago

শনিবার সাতরাগাছি-শালিমার শাখায় বাতিল বহু ট্রেন, রইল বিস্তারিত তথ্য

2 hours ago

আজই বিধানসভা ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করতে পারে নির্বাচন কমিশন

2 hours ago

কুঁদঘাটে ম্যানহোলে মৃত শ্রমিকদের ৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে কলকাতা পুরসভা

3 hours ago

ফুরফুরা শরিফে আসছেন মমতা, জানালেন ত্বহা সিদ্দিকী

3 hours ago

গুজরাতে বিশ্বের সবচেয়ে বড় চিড়িয়াখানা বানাচ্ছে আম্বানি গোষ্ঠী

20 hours ago

রায়গঞ্জে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের মুখে ‘জয় বাংলা’ লেখা মাস্ক, তুঙ্গে বিতর্ক

20 hours ago