ভারতের মানচিত্র থেকে বাদ জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখ, বিতর্কে WHO

ভারতের মানচিত্রে বড়সড় ভুল করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)। বিষয়টি প্রথম চোখে পড়ে ব্রিটেনের প্রবাসী ভারতীয়দের। তাঁরাই প্রথম তীব্র প্রতিবাদে  ফেটে পড়েন। কোন দেশে করোনা পরিস্থিতি কেমন তা তুলে ধরতে WHO-এর তরফে বিভিন্ন রং ব্যবহার করে বিশ্বের একটি মানচিত্র প্রকাশ করা হয়েছে। আর এতে ভারতের মানচিত্রকে ঘিরেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। একটি সংবাদ প্রতিবেদনে প্রকাশ, জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখ সহ আকসাই চিন এবং উত্তর-পূর্ব ভারতের কিছু অংশ বাদ গিয়েছে ওই ম্যাপে। ভারতের ক্ষেত্রে চিহ্নিতকরণের রঙ ছিল গাড় নীল। ভারতের অন্যান্য রাজ্যগুলি এই গাঢ় নীল রংয়ে চিহ্নিত করা হয়েছে। অথচ জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখ বা উত্তর-পূর্ব ভারতের কিছু অংশের জন্য বাছা হয়েছে ছাই রঙ। আকসাই চিনকেও দেখানো হয়েছে ছাই রঙ ব্যবহার করে। তবে সেখানে হালকা নীল রঙের বর্ডার রয়েছে। সেই ধরণের হালকা নীল রঙ ব্যবহার হয়েছে চিনের ক্ষেত্রেও। এই ঘটনা চিনের কারসাজি রয়েছে বলেই মনে করেছেন ওয়াকিবহাল মহল। তবে WHO-র দাবি রাষ্ট্রসংঘের দেওয়া গাইডলাইন মেনেই তাঁরা এই মানচিত্র প্রকাশ করেছে। 

প্রসঙ্গত, ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডঃ হর্ষ বর্ধন বর্তমানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)-এর এগজিকিউটিভ বোর্ডের চেয়ারম্যান। এই ঘটনায় এখনও সরকারিভাবে ভারতের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া না জানানো হলেও সরব হয়েছেন নেটিজেনরা। 

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই ম্যাপ প্রকাশ করা হয়েছে সংস্থার কোভিড-১৯ ড্যাশবোর্ডে। ভুলটি প্রথম নজরে আসে ব্রিটেনের বাসিন্দা এক আইটি কর্মীর। তিনি সেটি সোশ্যাল মিডিয়ায় গ্রুপে ফরোয়ার্ড করেন। এরপরই ম্যাপটি ভাইরাল হয়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, WHO-র মতো এত বড় সংগঠনের কাছ থেকে এমন ভুল আশা করা যায় না। এই সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছে ভারত। আরও সতর্ক থাকা উচিত। তাঁর অভিযোগ, যেহেতু চিন মোট টাকার অনুদান দেয়, তাই এই  বিভ্রাটের পিছনে চিনের ইন্ধন রয়েছে বলেই সন্দেহ। 

আরও পড়ুন:
রবিবার গেরুয়া শিবিরের ব্রিগেড সমাবেশ।

 |  8 minutes ago

কলকাতা হাইকোর্টে রায়ে এ যাত্রা রক্ষা পেলেন ছত্রধর মাহাত

 |  15 minutes ago

সেলিব্রিটি তৃণমূল বিধায়কের এলাকায় কোনো উন্নয়ন হয়নি , সরব হয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

 |  20 minutes ago

দলের নেত্রী প্রার্থীতালিকা ঘোষণা করতেই জেলায় জেলায় তৃণমূল কর্মীদের মধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে উচ্ছ্বাস।

 |  23 minutes ago

করোনা রোগীদের ভোটদানের ব্যবস্থা

 |  30 minutes ago

শাসকদলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হল বিজেপি

 |  32 minutes ago

তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় মহিলা প্রার্থী ৫০ জন

 |  34 minutes ago

বিজেপিতে যোগ দীনেশের

দেশ  |  40 minutes ago

ডান-বাম সমস্ত দলই একে একে ঘোষণা করতে চলেছে নিজেদের প্রার্থী তালিকা

দেশ  |  41 minutes ago

দুর্ঘটনাগ্রস্ত শ্রমিকদের আর্থিক ক্ষতিপূরণ সংক্রান্ত মামলার দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য বিশেষ আদালত

দেশ  |  46 minutes ago

গোসাবায় বোমা বিস্ফোরণ, আহত ৬ বিজেপি কর্মী

দেশ  |  an hour ago

সেলুন কারে প্যাকেজ ভ্রমণ, রেলের আকর্ষণীয় উদ্যোগ

দেশ  |  2 hours ago

ট্রেন ভাড়া করে লোক আনছে বিজেপি

দেশ  |  2 hours ago

গ্যাস লিক দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানায়

দেশ  |  2 hours ago

ব্রিগেডে মোদির সভায়, টার্গেট গেরুয়া শিবির

দেশ  |  3 hours ago

ভারতের মানচিত্র থেকে বাদ জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখ, বিতর্কে WHO

ভারতের মানচিত্রে বড়সড় ভুল করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)। বিষয়টি প্রথম চোখে পড়ে ব্রিটেনের প্রবাসী ভারতীয়দের। তাঁরাই প্রথম তীব্র প্রতিবাদে  ফেটে পড়েন। কোন দেশে করোনা পরিস্থিতি কেমন তা তুলে ধরতে WHO-এর তরফে বিভিন্ন রং ব্যবহার করে বিশ্বের একটি মানচিত্র প্রকাশ করা হয়েছে। আর এতে ভারতের মানচিত্রকে ঘিরেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। একটি সংবাদ প্রতিবেদনে প্রকাশ, জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখ সহ আকসাই চিন এবং উত্তর-পূর্ব ভারতের কিছু অংশ বাদ গিয়েছে ওই ম্যাপে। ভারতের ক্ষেত্রে চিহ্নিতকরণের রঙ ছিল গাড় নীল। ভারতের অন্যান্য রাজ্যগুলি এই গাঢ় নীল রংয়ে চিহ্নিত করা হয়েছে। অথচ জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখ বা উত্তর-পূর্ব ভারতের কিছু অংশের জন্য বাছা হয়েছে ছাই রঙ। আকসাই চিনকেও দেখানো হয়েছে ছাই রঙ ব্যবহার করে। তবে সেখানে হালকা নীল রঙের বর্ডার রয়েছে। সেই ধরণের হালকা নীল রঙ ব্যবহার হয়েছে চিনের ক্ষেত্রেও। এই ঘটনা চিনের কারসাজি রয়েছে বলেই মনে করেছেন ওয়াকিবহাল মহল। তবে WHO-র দাবি রাষ্ট্রসংঘের দেওয়া গাইডলাইন মেনেই তাঁরা এই মানচিত্র প্রকাশ করেছে। 

প্রসঙ্গত, ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডঃ হর্ষ বর্ধন বর্তমানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)-এর এগজিকিউটিভ বোর্ডের চেয়ারম্যান। এই ঘটনায় এখনও সরকারিভাবে ভারতের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া না জানানো হলেও সরব হয়েছেন নেটিজেনরা। 

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই ম্যাপ প্রকাশ করা হয়েছে সংস্থার কোভিড-১৯ ড্যাশবোর্ডে। ভুলটি প্রথম নজরে আসে ব্রিটেনের বাসিন্দা এক আইটি কর্মীর। তিনি সেটি সোশ্যাল মিডিয়ায় গ্রুপে ফরোয়ার্ড করেন। এরপরই ম্যাপটি ভাইরাল হয়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, WHO-র মতো এত বড় সংগঠনের কাছ থেকে এমন ভুল আশা করা যায় না। এই সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছে ভারত। আরও সতর্ক থাকা উচিত। তাঁর অভিযোগ, যেহেতু চিন মোট টাকার অনুদান দেয়, তাই এই  বিভ্রাটের পিছনে চিনের ইন্ধন রয়েছে বলেই সন্দেহ। 

Tags:
taapsee pannu
mithali raj
biopic
bollywood