সরকার ভাড়া না বাড়ালে

বেসরকারি পরিবহনের স্বাভাবিক মৃত্যু হবে

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ অতিরিক্ত বাস ভাড়া নিয়ে কড়া বার্তা পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের। বললেন, বেশি ভাড়া নেওয়া হলে বাসের পারমিট বাতিল করে দেওয়া হবে। 

আর এতেই ক্ষুব্ধ বাস মালিকদের সংগঠনগুলি। তারা আগামী শনিবার একটি মিটিং এর ডাক দিয়েছেন। পাশাপাশি তাদের প্রশ্ন, বাসের ক্ষেত্রেই শুধু নিয়ন্ত্রণ কেন, সরকার কেন অটো ভাড়া নিয়ন্ত্রণ করছে না। 

আরও পড়ুনঃ পুজোয় ডুয়ার্সে বেড়াতে গেলে মানতে হবে যে নিয়মগুলি

জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেটের যুগ্ম সম্পাদক তপন বন্দ্যোপাধ্যায় সি এন পোর্টালকে জানালেন, বাসের ভাড়া নিয়ে সরকারের সিদ্ধান্ত দুর্ভাগ্যজনক। ২০১৮ সাল থেকে সরকারের কাছে ভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে দাবি জানিয়ে আসছি। কেন্দ্রীয় সরকার যেভাবে জ্বালানির দাম বাড়াচ্ছে, তাতে ভাড়া বৃদ্ধি না হলে, বেসরকারি পরিবহনের স্বাভাবিক মৃত্যু (natural death) হবে। 

করোনাকালে রাস্তায় নেমেছে হাতে গোনা বাস। এর মধ্যে কিছু কিছু বাস অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছে বলে যাত্রীদের একাংশের অভিযোগ। এদিকে বিরাটি-বি বা দী বাগ মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, অতিরিক্ত ভাড়ার পরিবর্তে অনুদান চেয়ে আবেদন জানিয়েছে যাত্রীদের কাছে। 


আবেদন পত্রে লেখা হয়, যাত্রী সাধারণের প্রতি অনুরোধ, ডিজেলের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে আমরা অসহায়, অত্যন্ত নিরুপায় হয়ে আবেদন জানাচ্ছি, সহানুভূতির সাথে অনুদান সহ বাস ভাড়া প্রদান করে যাত্রী স্বার্থে পরিষেবা বজায় রাখতে সাহায্য করুন। যদিও অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ে পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের কড়া বার্তার পর প্রতিটি মিনিবাস থেকে ওই বিজ্ঞপ্তি সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে খবর। 

পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের কড়া হুঁশিয়ারি, অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া হলে, যাত্রী যদি সেই টিকিট দেখিয়ে থানায় অভিযোগ করেন, তাহলে সেই বাসের পারমিট বাতিল করে দেওয়া হবে।


Tags:
natural death
private transport
west bengal