স্ট্রান্ড রোডে রেলের বহুতলে বিধ্বংসী আগুন, মৃত ৭

কলকাতার স্ট্র্যান্ট রোডে রেলের নিউ কয়লাঘাটা বিল্ডিংয়ে ভয়াবহ আগুন। অন্তত ৭ জনের মৃত্যুর ঘটনা সামনে এসেছে। মৃতদের মধ্যে চারজন দমকলকর্মী, একজন রেল রক্ষী বাহিনীর জওয়ান এবং একজন কলকাতা পুলিশের এসআই। তিনি হেয়ার স্ট্রিট থানায় কর্মরত ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। আগুন লাগে সন্ধ্যে ৬টা নাগাদ। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে যায় দমকলের ১০টি ইঞ্জিন। বহুতলের ১৩ তলায় আগুন লাগে। ফলে ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয় হাইড্রোলিক ল্যাডার। কিন্তু অত উঁচুতে না পৌঁছাতে পেরে সমস্যায় পরে দমকল কর্মীরা। এরপর আরও বড় ল্যাডার নিয়ে যাওয়া হয় কয়লাঘাটা বিল্ডিংয়ে। এরপর আগুন নেভানোর কাজে হাত দেয় দমকল। ঘটনাস্থলে ছুটে যান দমকল  ও পুলিশের উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা। যান দমকলের ডিজি এবং কলকাতা পুলিশ কমিশনার সৌমেন মিত্র। পরে সেখানে যান, দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু। তিনি বলেন, খুবই মর্মান্তিক ঘটনা। আমরা লড়াই চালিয়ে যাচ্ছি। আমরা সাতজনকে হারিয়েছি, আরও কয়েকজন থাকতে পারে। রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি রেলের ওপর দোষারোপ করে বলেন আমরা বিল্ডিং প্ল্যান পাইনি, রেলের একজনও অফিসার ছিলেন না। তাই সমস্যা হয়েছে। যারা মারা গিয়েছেন তাঁরা লিফটে উঠতে গিয়েছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী মৃতের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ এবং একজনের চাকরি ঘোষণা করেন। রাতের দিকে আগুন আরও ছড়িয়ে পড়ছে। পাঁচ ঘন্টাতেও আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব হয়নি। গঙ্গার হওয়ার জন্য আগুন ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে।

Tags:
fire on multi-storey