মৃত্যুপুরীতে চলছে লাশের খোঁজ

কারখানার মালিকসহ আটক ৮

নারায়ণগঞ্জ: জুস কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে ইতিমধ্যেই ৫২ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের মধ্যে অধিকাংশই শিশু শ্রমিক বলে খবর। তাছাড়া এখনও বেশ কয়েকজন শ্রমিক নিখোঁজ।এই ঘটনায় কারখানার মালিকসহ আটজনকে আটক করেছে বাংলাদেশ পুলিশ।

এদিকে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থানায় একটি খুনের মামলা দায়ের করা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম জানালেন,আটককৃতদের মধ্যে হাশেম ফুডস অ্যান্ড বেভারেজ নামক কারখানাটির স্বত্বাধিকারী এমএ হাশেম রয়েছেন।  

অন্যদিকে অগ্নিকাণ্ডের তদন্তে জেলা প্রশাসন, দমকল বিভাগ, কলকারখানা পরিদর্শন ও প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তর পৃথক তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ জানিয়েছেন, নিহত প্রত্যেক পরিবারকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা ও গুরুতর আহত ব্যক্তিদের চিকিৎসার জন্য ১০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।  

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টা নাগাদ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের জুস কারখানায় আগুন লাগে। শনিবারও বেশ কিছু জায়গায় আগুন রয়েছে। ফায়ার পকেটে আগুন নেভানোর কাছ চলছে। পাশাপাশি আরও লাশ রয়েছে কি না, সেই তল্লাশি চালাচ্ছে দমকলের উদ্ধারকারী দল।

Tags:
fire
Death
Bangladesh