own plane: যে শহরের বাসিন্দারা অফিসে যান নিজের বিমানে চড়ে

শহরে বসবাসরত প্রত্যেকেই বিমান এর মালিক। বাড়ির সামনে গাড়ির পরিবর্তে বিমান। অফিসে যান বিমানে চড়ে। সপ্তাহান্তের ছুটি কাটাতেও বেড়িয়ে পড়েন বিমান  নিয়েই। এই শহরে অলিগলি, ছোট-বড় রাস্তা বলে কিছুই নেই। আছে রানওয়ে। নাম ‘বোয়িং রোড’।

আর পাঁচটা শহরে বাস-ট্যাক্সি বা ব্যক্তিগত গাড়ি যেভাবে চলে, এ শহরে বিমানও সেই ভাবেই চলে। গাড়ির গ্যারাজের মতোই বিমান রাখার জায়গা বা হ্যাঙ্গার রয়েছে ঘরে ঘরে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত এই শহরটির নাম ক্যামেরন পার্ক। সবাই একে ফ্লাই-ইন রেসিডেন্সিয়াল কমিউনিটি হিসেবেই চিনে। সোজা কথায় এটি একটি এয়ারপার্ক। একসময় নাম ছিলো ক্যামেরন পার্ক এয়ারপোর্ট। শহরের প্রতিটি পরিবারেরই কোনও না কোনও সদস্য একসময় পাইলট বা বিমানচালক ছিলেন। 

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে যে ছবি ধরা পড়েছে, তা হল শহরকে দুইভাগে ভাগ করেছে একটি রানওয়ে। বিমান অনায়াসে সেখানে ওঠানামা করতে পারে।

ক্যামেরন পার্কে স্কুল, বাজার, হাসপাতাল, এমনকি শপিংমলও রয়েছে। তবে বিশ্বে এমন ফ্লাই-ইন কমিউনিটি রয়েছে ৬৪০টি। তার মধ্যে ৬১০টিই যুক্তরাষ্ট্রে।

Tags:
own plane
city